মাসুদ পথিক’র একগুচ্ছ কবিতা

২৬৪ বার পঠিত

ভূ-রিকালচারেশন

==================

তথাপি কুয়াশার ভেজা যোনি বেয়ে
এই যে জাগছে কাঁদাকাদা আল
আর,পিছল মাঠের পথ শেষে বনেদী বেরো-বিল
জাগছে বিলের তলা কিশোরীর বুকের তিল

বিচিকলার খোসার মতো ভোরের খোলস ছেড়ে রোজ
বিলের কাদায় করি কশরত, আমি
বুনি বাৎসরিক বোরো ধানের রোয়া

যেনো এই চাষা সারারাত বউয়ের যোনিতে খেলে রোয়া
বিলের তলার শেষ মাটি, দেহের কাদা, কিংবা
কাদা ঘেটে ঘেটে পাই গুতুমমাছ
পাই কুয়াশার রক্তে সুপ্রাচীন জীবনগাছ

এবং জেনো, আজও জাগবে দিবসের প্রথম আলো,
আর শিশিরের আড়ে বিলের দুটি পিছল ঢালো
শুধু এটাই জানি যে আমি চাষা মাটির মতোই কালো

অথবা পাড়ার মোড়ে কামনা ছড়িয়ে সবার চোখে
চা-দোকানের টিভি জুড়ে এক উছল যুবতী বলে,

‘ফলনে ফেলবেই সাড়া; এই ধান, মাতৃহীন খুব ‘সুফলা’! ‘

 

কম্পোজিশন ২০১৭

=======================

বুকের ভিতর হাওয়া
বুকের ভেতর যাওয়া
বাতাস ছেঁচে মনের থাকা-খাওয়া
বাতাস বেচেই সুখ তোরে পাওয়া

ওরে, ওরে আমার শূন্যে চাষের ধন
তোরে নিয়েই তো জীবনের সংরচন

বুকের ভেতর পাওয়া এই মাঠের বাড়ি
হাওয়ার মাঝে ছাওয়া কালার ইমেজারি
আমি তোর, আমি-কি নই নতুন দিনের বর?
রাত হলেই, হয়, হয়-রে আমার কেবল জ্বর

এবং আমার অন্ধ মুখের স্বর
বুকের ভেতর বাতাস ছেঁচা জ্বর

 

ইতিপাখি

=======================

কুয়াশাপাখির ডানায় স্মিতাকে পেয়েছি
স্মিতা ও’পারের প্রিয়তম মন
আমার ইতিহাসের অন্ধ সুজন

শীতের এই দুটো বোন, শিশির ও হিম
নির্ঘুম অতীত! কুয়াশাডানায় করছে গুঞ্জন
পাখি-গো আমিও অন্ধ;ভালোবাসি পালকের গন্ধ

উদোম দেহ কুয়াশায়, ভিজে ভিজে হয়;
হই ইতিহাসের ধাতু ক্ষয়!
স্মিতা মানে বাতাস;স্মৃতির দুমুখো অব্যয়

 

স্বপ্নদোষ

========================

অাকস্মাৎ মাঝরাতে ঘুম ভাঙার পর এই ‘স্বপ্নদোষ’
শব্দটি ভেঙে ছড়িয়ে দিলাম
সঙ্গম শেষে আমরা হাতপা ছড়িয়ে দেই যেরূপে
ফলে সে এক চতুর্ভূজের আকার ধারন করলো
যেমন আমাদের বোরো-চকের দুফলা খেতের মতো

আর যে মুখটি মূর্ত হলো,তা আর কেউ-না
চিত্রনায়িকা বিদ্যা বালানের স্তন ঘেষে প্রিয়তমা ‘হিম’
কেননা রাতটি যথার্ত শীতের রাত
হ্যাঁ, যোনির পথটি পিচ্ছিল এবং কুয়াশা মোড়ানোই ছিলো

 

 

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুব্রত দেব নাথ

সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com