পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩৩০ রানের বিশাল জয়ে সিরিজে সমতায় ইংল্যান্ড

লর্ডস টেস্টে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে যেন আকাশে উড়ছিল পাকিস্তান দল। তবে ওল্ড ট্র্যাফোর্ড সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টেই সফরকারী দলকে বাস্তবের জমিনে নামিয়ে আনলো ইংল্যান্ড। ব্যাটিং-বোলিংয়ে সমান আধিপত্য দেখিয়ে ম্যানচেস্টারে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩৩০ রানের বিশাল জয় তুলে নিয়েছে অ্যালেস্টার কুকের দল।

জয়ের জন্য পাকিস্তানের সামনে ৫৬৫ রানের বিশাল চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয় ইংল্যান্ড। এই রানের লক্ষ্যে ছোঁটা যেকোনো দলের জন্যই যে কঠিন তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। পাকিস্তানের সামনে অবশ্য ম্যাচ বাঁচাতে ড্র করার একটা পথ ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশ বোলারদের বোলিং তোপে সাজঘরে আসা-যাওয়ার মিছিলে সামিল হয় সফরকারী ব্যাটসম্যানরা। শেষ পর্যন্ত ম্যাচের একদিন বাকি থাকতেই ২৩৪ রানে গুটিয়ে যায় মিসবাহ-উল-হকের দল।

প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে পাকিস্তান। সোমবার দ্বিতীয় টেস্টের চতুর্থ দিনে জয়ের জন্য ৫৬৫ রানের বিশাল লক্ষ্য নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে মিসবাহ বাহীনি। কিন্তু দলীয় ২৫ রানের মাথায় শান মাসুদ (১) ও আজহার আলিকে (৮) হারিয়ে শুরুতে বিপদে পদে সফরকারীরা। এরপর ইংলিশ বোলারদের বিপক্ষে অবশ্য কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে মোহাম্মদ হাফিজ ও ইউনিস খান। ৫৮ রানের জুটি গড়েন তারা।

কিন্তু দলীয় ৮৩ রানে হাফিজ-ইউনুস জুটি ভাঙেন মইন আলি। মোহাম্মদ হাফিজকে (৪২) বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান এই ডানহাতি। কিছুক্ষণ পরেই ইউনুসও (২৮) ফিরে যান সতীর্থদের দেখানো পথে। এবারও ইংল্যান্ডকে ইউকেট এনে দেন আলি। এরপর মিসবাহ-উল-হক (৩৫) ও আসাদ শফিক (৩৯) ছাড়া আর কোনো ব্যাটসম্যান নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেনি। এই দুই ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর পাকিস্তানের হার অনেকটা সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। শেষ দিকে মোহাম্মদ আমির করেন ২৯ রান।

ইংল্যান্ডের হয়ে অ্যান্ডারসন, ওকস ও মইন আলি নেন ৩টি করে উইকেট। এছাড়া জো রুট নেন ১টি উইকেট। এরআগে সোমবার অ্যালেস্টার কুক ও জো রুট মিলে ঝড়ো ব্যাটিং করে ১ উইকেটে ১৭৩ রানের মাথায় দিনের এক ঘণ্টা না পেরুতেই ইনিংস ঘোষণা করে ইংলিশ শিবির।

এদিকে প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে ৫৮৯ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ইংলিশ বোলারদের তোপের মুখে পড়ে প্রথম ইনিংসে ১৯৮ রানেই গুটিয়ে যায় পাকিস্তানের ইনিংস। ফলে ৩৯১ রানে পিছিয়ে থেকে ফলোঅনে পড়ে মিসবাহ-উল হকের দল। অবশ্য পাকিস্তানকে ফলোঅন না করিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামে ইংল্যান্ড। রুট ও কুকের দৃঢ়তায় ১ উইকেটে ১৭৩ রান তোলে ইনিংস ঘোষণা করে স্বাগতিকরা। ফলে পাকিস্তানের সামনে ৫৬৫ রানের প্রায় অসম্ভব লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায়।

সোমবার টেস্টের চতুর্থ দিন ১ উইকেটে ৯৮ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে ইংল্যান্ড। মাত্র ৯ ওভারে ৭৫ রান যোগ করে ইনিংস ঘোষণা করেন ইংলিশ অধিনায়ক কুক। অথচ কুক ও রুট চাইলে হয়তো সেঞ্চুরি আদায় করে নিতে পারতেন। দ্বিতীয় ইনিংসে কুক ৭৮ বলে ৯টি চারের সাহায্যে ৭৬ রান করেন। তবে রুট ছিলেন আরো আগ্রাসী। এই স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান ৪৮ বলে ১০টি চারের সাহায্যে করেন ৭১ রান। রোববার ২৪ রান করে আউট হওয়া অ্যালেক্স হেলসের উইকেটটি নেন মোহাম্মদ আমির।

এর আগে জো রুটের ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি, অ্যালেস্টার কুকের সেঞ্চুরি এবং ওকস ও স্টোকসের হাফ সেঞ্চুরির সুবাদে প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেটে ৫৮৯ রান সংগ্রহ করে ইনিংস ঘোষণা করে ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে ইংলিশদের হয়ে ৪০৬ বলে ২৭টি চারের সাহায্যে ২৫৪ রানের মহাকাব্যিক ইনিংস খেলেন রুট। টেস্টে এটিই তার সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস। এছাড়া কুক ১০৫, এবং বেয়ারস্টো ও ওকস সমান ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন।

পাকিস্তানের হয়ে প্রথম ইনিংসে ওয়াহাব রিয়াজ তিনটি এবং মোহাম্মদ আমির ও রাহাত আলি নেন দুটি করে উইকেট। লর্ডস টেস্টে ১০ উইকেট পাওয়া ইয়াসির শাহ নেন একটি উইকেট। ইংল্যান্ডের বড় সংগ্রহের জবাবে ক্রিস ওকস, মঈন আলি ও বেন স্টোকসের বোলিং তোপে পড়ে মাত্র ১৯৮ রানেই গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। ওকস চারটি এবং মঈন ও স্টোকস নেন দুটি করে উইকেট নেন। এছাড়া জেমস অ্যান্ডারসন ও স্টুয়ার্ট ব্রড নেন একটি করে উইকেট।

পাকিস্তানের ইনিংসে মিসবাহ, ওয়াহাব রিয়াজ, শান মাসুদ ও সরফরাজ আহমেদ বলার মতো রান করেন। মিসবাহ ৫২, ওয়াহাব ৩৯, মাসুদ ৩৯ ও সরফরাজ করেন ২৬ রান। মোহাম্মদ হাফিজ (১৮), আজহার আলি (১), ইউনিস খান (১) ও আসাদ শফিক (৪) ব্যাট হাতে চরম ব্যর্থ হলে ফলোঅনে পড়ে সফরকারী পাকিস্তান।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
২০ বার পঠিত
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com