অবশেষে পাওয়া গেল মোস্তাফিজের মেডিক্যাল রিপোর্ট

আহসান হাবিব সুমন #  টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর পরই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ(আইপিএল) খেলার জন্য ভারতে চলে যান মোস্তাফিজুর রহমান। আইপিএল খেলে ডান পায়ের অ্যাংকেল ও হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট নিয়ে দেশে ফিরেছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। এসব চোটের চেয়েও বেশি মারাত্মক ছিলো মোস্তাফিজের পুষ্টিসংক্রান্ত এবং মানসিক সমস্যা। সবকিছু মিলিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে(ডিপিএল) খেলতে পারেন নি। তবে দেশে ফেরার পরে তার সার্বিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। ওজন বেড়ে প্রায় আগের অবস্থায় চলে আসায় পুষ্টির সমস্যাটা বলতে গেলে দূর হয়ে গেছে। সব মিলিয়ে আইপিএল থেকে যে শারীরিক অবস্থা নিয়ে ফিরেছিলেন, তার চেয়ে এখন অনেক ভালো আছেন মোস্তাফিজ।

 

আইপিএল খেলে ভারত থেকে দেশে ফিরে আবার সাসেক্সের হয়ে খেলার ইংল্যান্ডে যাওয়ার কথা ছিল তার। তবে শতভাগ ফিট না থাকায় তার ইংল্যান্ডে যাওয়া অনিশ্চয়তার মধ্যে ছিল। তবে সেই অনিশ্চয়তা অনেকট দূর হয়েছিল। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) একটি সূত্র জানিয়েছিল, সব ঠিক থাকলে আগামী ১২ বা ১৩ জুন ইংল্যান্ডের উদ্দেশে উড়াল দেবেন ‘কাটার মাস্টার’। মোস্তাফিজের ইংল্যান্ডের ভিসা নেওয়ার প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গেছে এরই মধ্যে।

গত ৯ জুন থেকে বিসিবির ফিজিও-ট্রেনারদের তত্ত্বাবধানে শুরু হয়েছে মোস্তাফিজের পুনর্বাসন। ২৩ জুন নেটে বোলিং শুরু করেছিলেন, দুই-তিন দিন তা করেছেন কোনো সমস্যা ছাড়াই। তবে তার চার সপ্তাহের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষ হবে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে। মোস্তাফিজকে এখনো শতভাগ ফিট না বললেও জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজিদুল ইসলাম জানিয়েছেন, ওর পুনর্বাসনের আরও ৪-৫টা সেশন বাকি আছে। আশা করছি, এর মধ্যেই ও পুরোপুরি ফিট হয়ে যাবে। কিন্তু তার অভাব পূরণে বসে ছিল না সাসেক্স। প্রথম দফায় ডেভিড উইসেকে দলে নিয়েছিল তারা।

অনেক জল্পনা কল্পনার পর সাসেক্সের হয়ে কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অনুমতি পেয়েছেন টাইগার পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। বৃহস্পতিবার এএফপিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। জালাল ইউনুস বলেছেন, মোস্তাফিজের শারীরিক অবস্থার ব্যাপারে আমাদের মেডিক্যাল টিম ইতিবাচক রিপোর্ট দিয়েছে। অনুশীলনেও সে ভালো করছে। ভিসা পেয়ে গেলে আগামী ১৩ জুলাই সে ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিবে।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১৫ জুলাই ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে হ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে কাউন্টি ক্রিকেটে অভিষেক হতে পারে মোস্তাফিজের। সেক্ষেত্রে কমপক্ষে চারটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেতে পারেন মোস্তাফিজ। এছাড়া রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপেও চারটি অথবা তার বেশি ম্যাচে দেখা যেতে পারে মোস্তাফিজকে। চলতি মাসের শুরুর দিকে কাউন্টি খেলতে ইংল্যান্ড যাওয়ার কথা ছিলো মোস্তাফিজুর রহমানের। কিন্তু ইনজুরিতে থাকায় তিনি যেতে পারেননি। বিসিবির অধীনে পুনর্বাসন কার্যক্রমের মধ্যে ছিলেন তিনি।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
২৭ বার পঠিত
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com