আজ বুধবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ২৮শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ বিকাল ৫:২৮ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

অকালেই থেমে গেলো এক সম্ভাবনাময় পেসারের জীবন!

স্বপ্ন দেখেছিলেন জাতীয় দলের হয়ে দীর্ঘদিন সেবা করবেন দেশকে। সেই স্বপ্নের অকালমৃত্যু হল। কিডনি নষ্ট হয়ে গিয়ে মারা গেলেন বাংলাদেশের উঠতি তারকা পেসার রবিউল আলম। ২০১৫ সালে কুমিল্লা জেলা প্রিমিয়ার লিগে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন তিনি। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ‘মানিগ্রাম পেসার হান্টে’ কুমিল্লা অঞ্চলের সেরা বোলারও নির্বাচিত হয়েছিলেন। গত বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসে খেলতে ট্রায়াল দিয়ে ভাল ফল করেছিলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত আগস্টে অনুশীলনের সময় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে। পরে জানা যায় রবিউলের দুটি কিডনিই নষ্ট! এমন তরতাজা সবসময় ফিট রবিউলের কিডনি নষ্ট হতে পারে এমনটা ভাবনায় ছিল না কারও!

শুরু হয় যমে-মানুষে টানাটানি।   দেশে চিকিৎসার পর গত ডিসেম্বরে ভারতে নেওয়া হয় রবিউলকে।  সেখান থেকে আবারও ফিরিয়ে নিয়ে আসা হয় দেশে।পরিবার থেকে একটি কিডনি প্রতিস্থাপনের ব্যবস্থা হলেও রবিউলের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়ায় টাকা। এ নিয়ে একটি জাতীয় দৈনিকে গত ২৪ ডিসেম্বর প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে অনেকে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন।  তখন বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম গুরুত্বসহকারে এই সংবাদ পরিবেশন করে।

ডাক্তারদের চেষ্টায় আর সবার সহযোগিতায় সেরেও উঠেছিলেন রবিউল। গত জুনে বাড়ি ফিরে যান। এর মধ্যে খেলার মাঠেও যেতে শুরু করেছিলেন।নিয়মিত খাওয়াদাওয়ায় দেহের সঠিক ওজন ফিরে পেয়েছিলেন।   কিন্তু নিয়তি আবারও তার নিষ্ঠুর খেলা শুরু করে।  ঈদুল আজহার সপ্তাহখানেক আগে আবারও গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন রবিউল।  ঢাকায় আনার পর জানা যায় তার রক্তে সংক্রমণ হয়েছে! অবশেষে সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান রবিউল।  অকালেই থেমে যায় এক সম্ভাবনাময় পেসারের জীবন!

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com