ঝিনাইদহে বিএনপির প্রতিনিধি সভায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, ভাংচুর, আহত-১৫

৬৫ বার পঠিত

ঝিনাইদহে বিএনপির প্রতিনিধি সভায় দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছে কমপক্ষে ১৫ জন। বুধবার সকালে ঝিনাইদহ শহরের পৌর কমিউনিটি সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বুধবার সকালে শহরের পৌর ডা: কে আহম্মদ পৌর কমিউনিটি সেন্টারে প্রতিনিধি সভা শুরু হয়। জেলা বিএনপির সভাপতি মসিউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা অধ্যাপক জয়নাল আবেদিন। এছাড়া বিএনপির কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শুরু হলে দাওয়াত না পাওয়া জেলা বিএনপির নতুন কমিটিতে অর্ন্তভুক্ত শৈলকুপার ১৭ জন ভেতরে ঢোকার চেষ্ঠা করে। তাদের গেটে বাঁধা দেওয়া হয়।

সমর্থকরা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে হট্টগোল শুরু করে। এক পর্যায়ে তারা ভিতরে ঢুকতে গেলে উভয় গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। এরপর ঢুকতে না পারা নেতাকর্মীরা কমিউনিটি সেন্টারে হামলা চালায়। তাদের ইটপাটকেলে কমিউনিটি সেন্টারের জানালার কাচ ভেঙ্গে ভেতরে ইট পড়তে থাকে। এসময় ভিতরে ইট ও কাচের আঘাতে অন্তত আহত হয় ১৫ জন। ৯ জনকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বাকিদের বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবারো সভা শুরু হয়।

ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেন, প্রতিনিধি সভায় ভেতরে প্রবেশ করাকে কেন্দ্র করে একটি ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে এ ব্যাপারে বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা অধ্যাপক জয়নাল আবেদিন সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের সভাকে বানচাল করার জন্য বহিরাগত সন্ত্রাসীরা এখাটে ইটপাটকেল ছুঁড়ে কাঁচ ভেঙ্গে বহু লোককে আহত করেছে। তারপরও আমরা মিটিং সফল ভাবে সম্পন্ন করেছি। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তারা বিএনপির কেউ না।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com