মমতার কাছে প্রধানমন্ত্রীর পরাজয় ভালো লাগে না : বি. চৌধুরী

এই সংবাদ ১৩০ বার পঠিত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর প্রসঙ্গে বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি প্রফেসর ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী দিল্লি থেকে ফিরে এসে রিসিপশনও নিলেন না এতে আমরা উনাকে ধন্যবাদ দিতে পারি। কিন্তু তিনি তো তিস্তার পানি নিয়ে আসতে পারলেন না। মোদি বড় না মমতা বড়। একটা রাজ্যের প্রধানের কাছে একটি দেশের প্রধানমন্ত্রী এভাবে পরাজিত হয়ে এলেন তা ভালো লাগে না।’

জাতীয় প্রেস ক্লাব কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘জাতীয় নির্বাচন : নির্বাচনকালীন সরকার গঠনে নাগরিক ভাবনা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় যোগ দিয়ে তিনি এ সব কথা বলেন। ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ‍উপলক্ষে নাগরিক আন্দোলন এ আলোচনার আয়োজন করে। বিগত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনকালীন সরকারের যে ফর্মূলা দিয়েছিলেন সেটা আবার রিভাইভ (পূনর্বিবেচনা) জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে এই নিয়ে শর্ত থাকলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকেও তা উত্থান করে আলোচনা করতে বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর দিকে ইঙ্গিত করে বদরুদ্দোজা চৌধুরী, ‘নির্বাচনকালীন সরকার বিষয়ে এর চেয়ে ভালো প্রস্তার আর হতে পারে না। ২০১৪ সালে  প্রধানমন্ত্রী যে প্রস্তাব দিয়েছেন সেটাই রিভাইভ (পুনর্বিবেচনা) করা হোক ।’ বিএনপি চেয়রাপারসনের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘আপনাদের যদি শর্ত থাকে। ওই শর্তের ভিত্তিতে আবার আলোচনা করেন। এই নির্বাচনই আমরা মেনে নেব। যদি সরকারের প্রশাসনেরযন্ত্রের কোনো কূটচাল না থাকে।’

তিনি বলেন, ‘৫ জানুয়ারি নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সংস্থাপন মন্ত্রণালয়সহ বিরোধীদলের নেত্রী যে মন্ত্রণালয় চাইবে সেই মন্ত্রণালয় দিতেপ্র স্তুত। কিন্তু সেদিন তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া না না বলেছিলেন। আজকে তার মাশুল জনগণকে গুনতে হচ্ছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এদেশের সবকিছুই ক্ষমতার ঊর্ধ্বেই চলে। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর শেষ কথাই হচ্ছে সবকথা। তিনি না চাইলে কোনো অবস্থাতেই কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না। আজ যে তত্ত্বাবধায়ক সরকার তিনি অস্বীকার করছেন আপনাদের নিশ্চয় মনে আছে এই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন করার জন্য তারা তখন জামায়াতকে সাথে নিয়ে রাজপথে আন্দোলন করেছিল। আজ তত্ত্বাবধায়ক সরকার তারা বোঝে না।’

নির্বাচন কমিশন গঠন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন কীভাবে গঠন করা হয়েছে এটা সবাই জানেন। বিএনপির সবার আগে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করেছেন। সংবিধান অনুযায়ী নাকি নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। এটা ঠিক নয়। এটা প্রধানমন্ত্রীর ওপর নির্ভর করে। এখানে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা অনেক বেশি। সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘নতুন নির্বাচন কমিশন ভদ্র। তারা ভদ্রই থেকে যাবে সেটা ঘরের ভেতরে।’

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে হেফাজতে ইসলামের নেতার বৈঠক সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘সরকারের নিজেদের পক্ষে ভোটারদের টানার জন্য প্রস্ততি শুরু করেছে। হেফাজতে ইসলামকে কাছ টানছে। জামায়াতে ইসলামকে নিয়ে সরকারের লোকেরা এত কথা বলছেন তবুও তাদের নিষিদ্ধ করছেন না। এটা কেন?’ গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘বিরোধীদলের নেতাকে(খালেদা জিয়া) অহমিকা ছাড়তে হবে। জনগণের ভাষা বুঝে আন্দোলনে সকলকে তিনি এক প্লাটফর্মে আসতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী ভারত থেকে আমাদের জন্য কি এনেছে এগুলো পরিষ্কার করতে হবে। দেশের মানুষের জন্য তার দরদ থাকলে দেশে গুম-খুন এভাবে চলতো না।’ আলোচনায় অংশ নিয়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘দেশের দুই নেত্রী তাদের নির্দেশ ছাড়া কেউ জোরে কাশিও দেন না। সেখানে আমাদের আস্ফালন হওয়ার কিছু নেই। আমি অনুষ্ঠানে আসার আগে বিষয়টি ফেসবুকে দিয়েছিলাম। সেখানে ৫ শত জন মন্তব্য দিয়েছে। কেউ বিশ্বাস করে না বর্তমান সরকারের অধীনে কোন সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে।’

তিনি বলেন, এদেশের মানুষ এখন যদি কোন নির্বাচন হয় আর সেই নির্বাচনে ভোট দিতে পারে তাহলে বর্তমান সরকার বা আওয়ামী লীগের অস্তিত্বই থাকবে না। আন্দোলনবিরোধী দলের নেতা কিভাবে করবেন সেটি তিনিই নির্ণয় করবেন। আজকাল আওয়ামী লীগ যখন বিএনপির কর্মসূচি নিয়ে কটাক্ষ করে কথা বলে বা দিকনির্দেশনা দিতে চায় তখন আর কি বলার আছে। ’

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসাননের সভাপতিত্বে  আরও বক্তব্য দেন সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি, নাগরিক ফোরামের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহিল মাসুদ, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য সিরাজুল ইসলাম, এনডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন- সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আল-আমিন। অনুষ্ঠান শেষে কেক কেটে ও ফুলের তোড়া উপহারের মধ্যে দিয়ে প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com