ফুটবলের সোনালি দিন কি ফিরবে ।। সফিউল্লাহ আনসারী

১২২ বার পঠিত
এক সময় বাংলাদেশে জমজমাট খেলার আসর মানেই ছিল ফুটবল। ক্রিকেটের দাপটে এখন সে অবস্থা আর তেমন চোখে পড়ে না। শুধু শহর নয় গ্রাম-গঞ্জের ছোট-বড় পাড়া-মহল্লায়ও আজ ক্রিকেট উন্মাদনা। তবে আমাদের গ্রামীণ আয়োজনে ফুটবল খেলায় এখনও দর্শকের বিপুল সমারোহ আর অংশগ্রহণ লক্ষ করা যায়। ফুটবলমোদীদের পদচারণায় ক্ষুদ্র আয়োজনও বাঁধ ভাঙে উল্লাসে। দর্শক খরায় ভুগছে ফুটবল টুর্নামেন্ট—এমনটি প্রায়ই শোনা যায়। তবে দর্শক মাঠে টানতে তেমন খেলোয়াড় খুব একটা চোখে পড়ে না! বাংলার দামাল ছেলেরা ফুটবলে খুব একটা নাম না করতে পারলেও ক্রিকেটে পেরেছে—এটা কম গর্বের নয়।
 
বর্ষা মৌসুম ছাড়া দেশে ফুটবল চর্চা নেই বললেই চলে। ইদানীং ফুটবল অনেকটা বাণিজ্যিক বা সরকারি উদ্যোগে শহরকেন্দ্রিক হয়ে যাচ্ছে। ব্যাপক চর্চা না থাকায় ফুটবলের মান নষ্ট হচ্ছে বাংলাদেশের ক্লাবগুলোতেও। এরকম কারণেও ফুটবল মাঠে দর্শক উপস্থিতি কম। শুধু ফুটবল কেন আমাদের জাতীয় খেলা হাডুডুসহ দেশীয় প্রায় খেলার আজ বেহাল দশা। কারণ সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা, স্থানীয় বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকেন্দ্রিক উত্সাহ ও আয়োজনে অনীহা, সামাজিক পরিবর্তন ইত্যাদি।
 
খেলাধূলা মানুষের শরীর ও মন দুটোকেই উজ্জীবিত রাখে, রাখে উত্ফুল্ল। কিন্তু বর্তমানে মাঠ নির্ভরতা কমে খেলা এখন গেম নামে মোবাইল, কমিপউটার আর ইন্টারনেটে বন্দি হয়ে যাচ্ছে। যদিও আশা জাগিয়ে রাখছে ক্রিকেট খেলা। শুধু দেশের মাঠ নয় বিদেশেও আমাদের টাইগাররা জয়ের ধারাবাহিকতায় বয়ে আনছে গর্ব করার মতো সুনাম। আমরা মনে করি, ক্রিকেটের পাশাপাশি সর্বসাধারণের প্রিয় খেলা, বিশ্বের জনপ্রিয় খেলা ফুটবলকেও বাঁচিয়ে রাখতে সরকারের পাশাপাশি সামাজিক ও ব্যক্তিগত উদ্যোগ গ্রহণ করা প্রয়োজন। শুধু বাফুফে নয় ফুটবলকে উজ্জীবিত রাখতে আমাদের স্কুল-কলেজে সেই আগের মতো আয়োজন অব্যাহত রাখা দরকার। ফুটবলের সোনালি দিন কি ফিরবে?
ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সফিউল্লাহ আনসারী নববার্তা ষ্টাফ রিপোর্টার

আজো চেনা হরোনা নিজেকেই ...! 01715-787772

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com