রোহিঙ্গা আশ্রয়ে বাংলাদেশের পক্ষে গোটা বিশ্ব : আবুল হাসান মাহমুদ

এই সংবাদ ৩৭ বার পঠিত

নিজ দেশ মিয়ানমারে ভয়াবহ নির্যাতনের শিকার হয়ে বিপুলসংখ্যক অসহায় রোহিঙ্গার স্রোত ধেয়ে আসছে বাংলাদেশের দিকে। বিপুল সংখ্যক শরণার্থীর বোঝা বহনের মতো মারাত্মক সংকটের সম্মুখীন হতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। তবে বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়ায় বিভিন্ন দেশ বাংলাদেশের প্রশংসা করেছে। মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করায় বাংলাদেশের পক্ষে গোটা বিশ্বেই মতামত তৈরি হয়েছে। রোহিঙ্গাদের নিয়ে চলমান সমস্যা সমাধানে কীভাবে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করা যায় তা নিয়েও চলছে আলোচনা। এ সমস্যা মোকাবিলায় বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। জাতি সংঘও বাংলাদেশকে নানাভাবে সাহায্য সহযোগিতা করার চেষ্টা করছে।

জাতিসংঘের দেয়া তথ্যমতে, গেল দুই সপ্তাহে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে ২ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা। বাংলাদেশের শরণার্থীশিবিরগুলোতে এসব রোহিঙ্গার থাকার মতো যথেষ্ট জায়গা হচ্ছে না। তাই শরণার্থীশিবিরের সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। রোববার (১০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কূটনীতিকদের ব্রিফিংয়ে বিভিন্ন সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী জানিয়েছেন, রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর যে সহিংসতা চলছে, তাতে এ পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার লোক প্রাণ হারিয়েছে। মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বিকেল চারটার দিকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের কূটনৈতিকদের ব্রিফ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। প্রথমে পাশ্চাত্যের দেশগুলোর কূটনীতিকদের সঙ্গে এবং পরে মুসলিম দেশের কূটনীতিকদের আলাদাভাবে ব্রিফ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এর আগে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানিয়েছেন, বর্তমানে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা ৭ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে গেল ১৫ দিনেই বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে অন্তত ৩ লাখ রোহিঙ্গা। রোববার দুপুর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুক) এ তথ্য প্রকাশ করে মন্ত্রী লেখেন, ‘মায়ানমার থেকে আসা মানুষের সংখ্যা সাত লাখ ছাড়িয়েছে। যার মধ্যে গত ১৫ দিনে এসেছে তিন লাখ। শেখ হাসিনার সরকার নতুনদের মানবিক সহায়তা দেবার যথাসাধ্য চেষ্টা করছে।’ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো লেখেন, ‘আর তাদের (রোহিঙ্গা) মায়ানমারে ফিরিয়ে নিয়ে যাবার জন্য অনেকদিন ধরেই কাজ করছে কিন্তু মায়ানমারের কারণে অগ্রগতি হয়নি। তবে প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে এবং তা আরও জোরদার করা হয়েছে।’

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com