গবেষণায় বিবার্তা স্বর্ণপদক পাচ্ছেন সানিয়া বিনতে মাহতাব

৮৫ বার পঠিত

শিল্পপতি বাবার সন্তান। তায় উচ্চশিক্ষিতা। অনায়াসেই প্রতিষ্ঠিত হতে পারতেন ব্যবসা-বাণিজ্যে। তবে প্রাচুর্যের চেয়েও যাঁরা মননশীলতাকে প্রাধান্য দেন, তাঁদের কথা ভিন্ন। তেমনি ভিন্ন চেতনার মানুষ সানিয়া বিনতে মাহতাব। ব্যবসা নয়, শিক্ষকতাকেই পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন তিনি। ‘গবেষণা’ ক্যাটাগরিতে বিবার্তা স্বর্ণপদক পাচ্ছেন এই গুণী নারী। আগামী ২ মে জাতীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে বিবার্তা গুণীজন সম্মাননা অনুষ্ঠান হবে। এতে ১০টি ক্যাটাগরিতে ১১ জন পাবেন বিবার্তা স্বর্ণপদক।

সানিয়া কানাডার বিশ্ববিখ্যাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটির সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ও অ্যাপ্লায়েড মেকানিং বিভাগে ভাদাজ ডক্টরাল ফেলো হিসেবে এবং বুয়েটে পানিসম্পদ প্রকৌশল বিভাগে প্রভাষক হিসেবে কর্মরত। দেশের জন্য নিবেদিতপ্রাণ এই শিক্ষাবিদ আগাগোড়াই সুস্থির লক্ষ্যের যাত্রী। তাঁর যাপিত জীবনের সাথে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িয়ে আছে ধ্যান ও আত্মমগ্ন হওয়ার অধ্যবসায়। বাবা কাজী মাহতাব উদ্দিন আহমদ ছিলেন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। মেডিটেশনে তাঁর গভীর আস্থার পেছনে রয়েছে বাবার বিশেষ প্রণোদনা।

বাবার মতই সানিয়া বিশ্বাস করেন, কাউকে কিছু টাকা দিলেই সামাজিক দায়িত্ব পালন হয়ে যায় না। একজন মানুষকে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্যে অনুপ্রাণিত করে তোলাটাই সত্যিকারের সামাজিক দায়িত্ব পালন। বরেণ্য শিল্পপতি মরহুম কাজী মাহতাব উদ্দিন আহমদের একমাত্র মেয়ে সানিয়া বিনতে মাহতাব দেশ-বিদেশের প্রকৌশল অঙ্গনে সানিয়া বি মাহতাব নামেই পরিচিত। তাঁর দুই ভাই বাবার গড়ে তোলা স্বনামধন্য শিল্প প্রতিষ্ঠান মৌসুমী ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড দেখভাল করলেও সানিয়া শিক্ষকতাকে ক্যারিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছেন। এ সিদ্ধান্ত যে সঠিক ও যথার্থ ছিল, তা তিনি ইতিমধ্যে প্রমাণ করতে পেরেছেন।

মেধার সাথে আত্মবিশ্বাসের অপূর্ব সমন্বয় ঘটিয়ে সানিয়া এখন কানাডার বিশ্ববিখ্যাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটির সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ও অ্যাপ্লায়েড মেকানিক্স বিভাগে ভাদাজ ডক্টরাল ফেলো হিসেবে এবং বুয়েটে পানিসম্পদ প্রকৌশল বিভাগে প্রভাষক হিসেবে কর্মরত আছেন। বিস্ময়কর হলেও সত্য, মাত্র ক্লাস সিক্সে পড়ার সময় তিনি মেডিটেশন কোর্স করেছেন। তখন থেকেই মেডিটেশন তাঁর নিত্যসঙ্গী। বুয়েটে বরাবরই ফার্স্ট ছিলেন। কিন্তু ডিপার্টমেন্টে পোস্ট খালি না থাকায় চার বছর ধরে শিক্ষক নিয়োগ বন্ধ ছিল।

তাঁর ক্লাসমেটরা মজা করে বলতো, ফার্স্ট হয়ে কী করবে? কিন্তু তিনি ছিলেন আশাবাদী। বিএসসি শেষ হলে এমএসসি-তে ভর্তি হওয়ার কয়েকদিনের মধ্যেই তাঁর এক স্যার তাঁকে ডেকে বললেন, উচ্চশিক্ষার জন্যে তিনি রিজাইন করছেন এবং সানিয়া যেন তার পোস্টে আবেদন করে। প্রসেসিং শেষ করে কিছুদিনের মধ্যে সানিয়া প্রভাষক হিসেবে বুয়েটে যোগ দেন।

বাবা কাজী মাহতাব উদ্দিন ১৯৮২ সালে মৌসুমী ইন্ডাস্ট্রিজ প্রতিষ্ঠা করেন। দেশে যাত্রা শুরু করে প্রসাধন সামগ্রীর নতুন ব্র্যান্ড কিউট। আশির দশকের গোড়ায় এদেশের বিপণন জগতে ব্র্যান্ডিংয়ের ব্যাপারে কোনো ধারণাই ছিল না। ব্যবসায়ী হিসেবে দূরদৃষ্টিসম্পন্ন ও ক্ষুরধার চিন্তার অধিকারী কাজী মাহ্তাব তখনই বুঝতে পেরেছিলেন ব্যবসাক্ষেত্রে ব্র্যান্ডিং খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিউটকে জনপ্রিয় করে তোলার লক্ষ্যে তাই অভিনব সব কৌশল বেছে নেন তিনি। বিশেষত ব্র্যান্ডিং, রিলেশনশিপ মার্কেটিংয়ের মতো আজকের আধুনিক বিপণননীতি ও ব্যবসায়িক ধারণাগুলো কাজী মাহ্তাব অত্যন্ত সফলভাবে প্রয়োগ করেছেন তিন দশক আগেই।

বাবার মতই কৃতী শিক্ষাবিদ সানিয়া বিশ্বাস করেন, কাউকে কিছু টাকা দিয়ে দিলেই সামাজিক দায়িত্ব পালন হয়ে যায় না। একজন মানুষকে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্যে অনুপ্রাণিত করে তোলাটাই সত্যিকারের সামাজিক দায়িত্ব পালন। সানিয়া বর্তমানেকানাডার ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটির পানিসম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রকৌশল নিয়ে পিএইচডি করছেন। তিনি ‘আওয়ারলি টেম্পারেচার মডেলিং ইন দি কনটেক্সট অব ক্লাইমেট চেঞ্জ’, ‘প্রসপেক্টস অব ক্লাইমেট মডেলিং অ্যান্ড ইভুলেটিং গ্লোবাল ক্লাইমেট চেঞ্জ উইথ ইডিজিসিএম (দি এডুকেশনাল গ্লোবাল ক্লাইমেট মডেল), ‘মরফলজিক্যাল অ্যানালাইসিস অব দি গেংজেজ রিভার’ বিষয়ে গবেষণা করে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন। তাঁর অ্যাওয়ার্ডস ও ফেলোশিপ অর্জনের তালিকাও বেশ লম্বা। তার মধ্যে রয়েছে লেস ভাদাজ ইঞ্জিনিয়ারিং ফেলোশিপ, তামিম সাজিদ গোল্ড মেডেল অন্যতম। রয়েছে বুয়েটের বেশ কটি অ্যাওয়ার্ডও।

সানিয়া বিনতে মাহতাব বিভিন্ন সময়ে যৌথভাবে গবেষণাকর্ম সম্পাদন করেছেন। যা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। এগুলোর অন্যতম হচ্ছে জুল হিটিং ইফেক্ট অন ম্যাগনেটোহাইড্রোডিনিক, ইফেক্টস অব গ্লোবাল ওয়ার্মিং ডিমিং ইন ডিফারেন্ট পার্টস অব বাংলাদেশ, ট্রেন্ড অ্যানালাইসিস অ্যান্ড অ্যাসেসমেন্ট অব নিউট্রিয়েন্ট ইন দি পেরিফেরাল রিভার্স অ্যারাউন্ড ঢাকা সিটি, ইনটেগ্রেটেড ওয়াটার রিসোর্সেস ম্যানেজমেন্ট অপশনস ফর ঢাকা সিটি, সাসটেইনেবল পোভার্টি ইরাডিকেশন মেজার্স: দি ইন্টারউয়িঙ্গড রিলেশনশিপ অব ইনকাম পোভার্টি অ্যান্ড ওয়াটার পোভার্টি। পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সেমিনার ও কর্মশালায় যোগ দিয়ে নিজের অভিজ্ঞতাকে ঋদ্ধ করেছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com