বিশ্ব মানবতার মঙ্গল কামনায় অাখেরি মোনাজাতে শেষ এবারের ইজতেমা

টঙ্গীর তুরাগ তীরে দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়েছে এবারের বিশ্ব ইজতেমা। রবিবার (২২ জানুয়ারি) ১১টা ১১ মিনিটে শুরু হয় মোনাজাত। চলে ১১টা ৪৩ মিনিট পর্যন্ত। ৩২ মিনিটের মোনাজাতে অংশ নেয় বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার সর্বস্তরের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। মোনাজাতে লাখো মুসল্লি আল্লাহর দরবারে হাত তুলে সব মুসলমানের হেদায়েত, হেফাজত, মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করেন। গুনাহ মাফ ও আত্মশুদ্ধির আশায় ‘আমিন, আল্লাহুম্মা আমিন’ ধ্বনিতে কান্নার রোল পড়ে যায় তুরাগ তীরে। অশ্রুসিক্ত নয়নে আল্লাহর নিকট আত্মসমর্পণ করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন তারা।

মোনাজাত পরিচালনা করেন ভারতের মাওলানা সাদ কান্ধলভী। মাওলানা সাদ কান্ধলভী গত দুই বছর ধরে বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করে আসছেন। এবারের ইজতেমার প্রথম পর্বেও তিনি আখেরি মোনাজাত করেছেন।

আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দলবেঁধে ছুটে আসেন মুসল্লিরা। মোনাজাতকে কেন্দ্র করে নেয়া হয় করা নিরাপত্তা ব্যবস্থা। যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণে থাকায় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা হেটেই পৌঁছায় ইজতেমা ময়দানে। এতে করে তুরাগের কাফেলায় যেন তিল ধারনের ঠাঁই নেই। সকাল ৯টার আগেই ইজতেমা মাঠ ও পার্শ্ববর্তী এলাকা কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। এরপর আশপাশের সড়ক, অলি-গলিতে অবস্থান নেন মুসল্লিরা। ইজতেমাস্থলে পৌঁছতে না পেরে কামারপাড়া সড়ক ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেন কয়েক লাখ মানুষ। 

এর আগে গত রবিববার (১৫ জানুয়ারি) হেদায়েতি বয়ান ও আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে এবারের বিশ্ব ইজতেমার তিন দিনের প্রথম পর্ব। গত ১৩ জানুয়ারি, শুক্রবার শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। ১৫ জানুয়ারি রবিবার আখেরি মোনাজাতে শেষ হয়। চার দিন বিরতি দিয়ে গত শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) ফজর নামাজের পর শুরু হয় ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। 

উল্লেখ্য ১৯৬৭ সাল থেকে বিশ্ব ইজতেমা নিয়মিত অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে ১৯৯৬ সালে একই বছর দুবার বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। স্থান সংকুলান না হওয়ায় এবং মুসল্লিদের চাপ ও দুর্ভোগ কমাতে ২০১১ সাল থেকে দুই পর্বে ইজতেমা আয়োজন করা হচ্ছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
২৮৮ বার পঠিত
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com