দেশে ফেরা পেছোলো প্রধানমন্ত্রীর

২৬ বার পঠিত

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগদান শেষে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরা পিছিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী প্রেসসচিব আবুল কালাম আজাদ এ তথ্য জানিয়েছেন। জাতিসংঘের অধিবেশন শেষে নিউইয়র্ক থেকে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর দেশে ফেরার কথা থাকলেও চার দিন পিছিয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাত সোয়া ৯টার দিকে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ২৬ সেপ্টেম্বর দেশে ফেরার কথা থাকলেও তা বাতিল করা হয়েছে। তিনি এ মাসের ৩০ তারিখে দেশে ফিরবেন।’ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে যে গণঅভ্যর্থনা দেয়ার কথা ছিল সেটাও ৩০ সেপ্টেম্বর আয়োজন করা হবে বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, এর আগে ১৮ সেপ্টেম্বর চারদিনের কানাডা সফর শেষে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের সাধারণ আলোচনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন এবং জাতিসংঘে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন প্রধানমন্ত্রীকে নিউইয়র্কের লা গার্ডিয়া বিমানবন্দরে স্বাগত জানান। প্রধানমন্ত্রী ২১ সেপ্টেম্বর বিকেলে জেনারেল অ্যাসেম্বলি হলে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের সাধারণ আলোচনায় বক্তব্য রাখেন। ১৯ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সদর দফতরে উদ্বাস্তু ও অভিবাসনের ওপর সাধারণ পরিষদের উচ্চ পযার্য়ের প্লেনারি বৈঠকে ভাষণ দেন শেখ হাসিনা। তিনি ‘গ্লোবাল কমপ্যাক্ট ফর সেফ, রেগুলার অ্যান্ড ওর্ডালি মাইগ্রেশন: টেকসই উন্নয়ন বিষয়ক এজেন্ডা-২০৩০ বাস্তবায়ন এবং অভিবাসীদের মানবাধিকারের প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা অর্জন বিষয়ক রাউন্ড টেবিল-৫-এ যৌথভাবে সভাপতিত্ব করেন।

২০ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের সাধারণ আলোচনার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। তিনি পরে হোটেল ম্যারিয়ট ইস্টসাইডে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে আয়োজিত কাউন্টার টেররিজমের ওপর এশিয়ান লিডার্স ফোরামের বৈঠকে যোগ দেন। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সদর দফতরের কনফারেন্স রুম-২-তে সাউথ সাউথ বিষয়ক জাতিসংঘ অফিসে বাংলাদেশ আয়োজিত পাবলিক সার্ভিস ডেলিভারিতে স্কেলিং আপ ইনোভেশনে সাউথ সাউথ অ্যান্ড ট্রিয়াঙ্গুলার কো-অপারেশন বিষয়ক এক বৈঠক করেন।

এবাদেও শেখ হাসিনা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা আয়োজিত উদ্বাস্তু বিষয়ক এক বৈঠকে যোগ দেন। এসময় তিনি বারাক ওবামা আয়োজিত এক সংবর্ধনায়ও অংশ নেন। ২১ সেপ্টেম্বর বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেনারেল অ্যাসেম্বেলি হলে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের সাধারণ আলোচনায় বক্তব্য রাখেন। এদিন সুইডিস প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন লো ফেভেন আয়োজিত ডিসেন্ট ওয়ার্ক অ্যান্ড ইনক্লুসিভ গ্রোথ বিষয়ক স্যোসাল ডায়ালগ সংক্রান্ত গ্লোবাল ডিলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এ ছাড়া তিনি জাতিসংঘ সদর দফতরের কনফারেন্স রুমে পানি বিষয়ক উচ্চ পযার্য়ের এক প্যানেল বৈঠকেও অংশ নেন।

এদিন (২১ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কের হোটেল গ্র্যান্ড হায়াতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেওয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন এবং ২২ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমারের স্ট্যাট কাউন্সিলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সান সুকি, সুইস প্রেসিডেন্ট জোহান চেনিডার আম্মান এবং কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া জ্যানেট স্কটল্যান্ড ও ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) নির্বাহী চেয়ারম্যান ক্লস শোয়াব ও বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিমসহ বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com