অনুদান ও পুরস্কৃতের বিধান রেখে যুবকল্যাণ তহবিল বিল পাস

সামরিক শাসন আমলে জারি করা ‘ইয়ুথ ওয়েলফেয়ার ফান্ড’ অধ্যাদেশ বাতিল করে ‘যুব কল্যাণ তহবিল-২০১৬’ নামে একটি বিল জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে সংসদের অদিবেশনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার বিলটি পাসের প্রস্তাব উত্থাপন করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। গত ২৩ ফেব্রুয়ারী প্রতিমন্ত্রী বিলটি সংসদে উত্থাপন করলে তা অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য সংশ্লিষ্ট স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

পাস হওয়া বিলে যুব কল্যাণ তহবিল গঠন, তহবিলের ব্যবহার, বোর্ড গঠন, বোর্ডের দায়িত্ব ও কার্যাবলী, বোর্ডের সভা, সিলেকশন কমিটি, অনুদান বা পুরস্কার প্রদানে বাধা নিষেধ, কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ, বাজেট, হিসাব রক্ষণ ও নিরীক্ষা এবং বিধি প্রণয়নের ক্ষমতাসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান রাখা হয়েছে। এছাড়া বিলে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রীকে চেয়ারম্যান করে ১৮ সদস্য বিশিষ্ট বোর্ড গঠনের বিধান রাখা হয়েছে।

জানা যায়, ৮৫’র অধ্যাদেশের ৮ অনুচ্ছেদের ‘ক’ তে বলা হয়েছে, যুব সংগঠন নির্বাচনের জন্য একটি সিলেকশন কমিটি থাকবে, যার চেয়ারম্যান হবেন  তহবিল পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান (মন্ত্রী) এবং সচিব হবেন কমিটির সচিব। কিন্তু সংশোধিত বিলে সিলেকশন কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সচিবকে। অথচ মূল কমিটির চেয়ারম্যান যথারীতি মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী/জনপ্রতিনিধিকে রাখা হয়েছে। আবার কমিটির সকল দায়বদ্ধতার জন্য সচিবকে দায়ী করার বিষয়টি বিলে পৃথকভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সরকারি দলের একাধিক সংসদ সদস্য বলেন, কোন বিলে এ জাতীয় সংশোধনী পরিবর্তন আনতে হলে নীতি নির্ধারণী সিদ্ধান্তের প্রয়োজন হয় এবং তা সংসদীয় কমিটির মাধ্যমে চূড়ান্ত করে সংসদে উত্থাপিত হতে হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে তার ব্যত্যয় ঘটেছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
২৯ বার পঠিত
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com