আজ বুধবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ২৮শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ সন্ধ্যা ৬:৩৫ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

মিতু হত্যার নির্দেশনা চট্টগ্রাম কারাগার থেকে!

চট্টগ্রামে পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার রহস্য উন্মোচনে নতুন ক্লু নিয়ে কাজ শুরু করেছে চট্টগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশ। চট্টগ্রাম কারাগারে থাকা ফুয়াদ ওরফে বুলবুল নামের এক জঙ্গি সদস্যের লেখা চিরকুট এখন মিতু হত্যার নতুন ক্লু। আর মঙ্গলবার বুলবুলকে অন্য একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে সাত দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। এদিকে হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন এবং ডিসি পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তাকে তদন্ত পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর তদন্ত কাজ নতুন করে গতি পেয়েছে।

পুলিশের ধারণা, মিতুকে হত্যা করার বিষয়ে ওই বিশেষ চিরকুটে কোনো নির্দেশনা থাকতে পারে। এই বিশেষ চিরকুটের লেখক বুলবুল গ্রেপ্তার হন বাবুল আক্তারের হাতে । বুলবুল এখন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি। তাই তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদের উদ্যোগ নিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ। মিতু হত্যার তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, তদন্ত কাজে গতি এসেছে। আমরা শিগগিরই বড় কোনো সাফল্য দেখাতে সক্ষম হব।

গোয়েন্দা কর্মকর্তারা জানান, গত মাসে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জঙ্গিদের কাছে পাঠানো একটি বিশেষ চিরকুট নিয়ে নতুন করে তদন্ত শুরু হয়েছে। এই চিরকুটে বুলবুল তাদের ওপর নির্যাতনের কাহিনী এবং জঙ্গি নেতা জাবেদকে গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটিয়ে হত্যা করার কথা বলে পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেওয়ার কথা উল্লেখ করেছেন। কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে চিরকুটটি বের হয়ে বিভিন্ন হাত ঘুরে এখন নগর গোয়েন্দা পুলিশের হাতে এসেছে।

প্রসঙ্গত, গত অক্টোবরে নগরীর খোয়াজ নগর এলাকা থেকে পাঁচ জঙ্গি সদস্যকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র, গ্রেনেড ও বিস্ফোরকসহ গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরা হলো জাবেদ (২৪), বুলবুল (২৬), সুজন ওরফে বাবু (২৫), মাহবুব (৩৫) ও সোহেল ওরফে কাজল (৩৫)।খোয়াজ নগরে পুলিশের অভিযানের সময় জঙ্গিরা গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বাবুল আক্তারকে হত্যার চেষ্টা করে। কিন্তু এদিন তিনি প্রাণে বেঁচে যান। গ্রেপ্তারকৃত পাঁচ জনের মধ্যে জাবেদ পরদিন ভোরে পুলিশের অস্ত্র ও গ্রেনেড উদ্ধার অভিযানে গ্রেনেড বিস্ফোরিত হয়ে নিহত হয়।

মিতু হত্যা মামলার নতুন তদন্ত কর্মকর্তা নগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার (দক্ষিণ) কামরুজ্জামান বলেন, ‘এই হত্যার রহস্য উন্মোচনে আমরা সম্ভাব্য সব দিক অনুসন্ধান করে দেখছি। এর মধ্যে কারাগারে বন্দি কোনো জঙ্গির নির্দেশনা বাইরের জঙ্গিরা বাস্তবায়ন করেছে কি না, বা এর সঙ্গে কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। চিরকুট বিষয়ে সরাসরি কোনো মন্তব্য না করলেও এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘কারাগারে বন্দি জঙ্গি সদস্য বুলবুলকে বাকলিয়া থানার একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়েছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com