রুদ্র আমিনের এক গুচ্ছ কবিতা

এই সংবাদ ৮১ বার পঠিত

প্রেসক্রিপশন
বিঃদ্রঃ সেদিন বন্ধুর লোনাজলে সিক্ত হওয়া হৃদয় নিংরিয়ে লেখা প্রেয়সীর প্রতি অভিমানী প্রেমপত্র পেলাম। তার দুু’টো চোখে ক্লান্তি আর সহস্র বর্ষ নির্ঘুম রজনী কাটানোর চিহ্ন পরিলক্ষিত হলো। সান্ত্বনার বাণী তো সবাই দেয়, তাই সরে এলাম সেই পথ থেকে। কানে জল বসত গড়লে আরেকটু জল ঢেলে দিয়ে ঝাকাতে হয় শুনেছি। এতে যদি একটু সস্তির নিশ্বাস ফেলা যায়, আজ বন্ধুটিকে সেই কুইনাইন প্রেসক্রিপশনটা যথাস্থানেই পৌছে দিয়েছি।

………প্রেসক্রিপশন……….

যা বলেছিস, বেশ ভালই বলেছিস……….
তবে অভিনয়টা আরও আগেই ইতি ঘটাতে পারতিস……
এ কেমন ভালবাসা তোর…….
একটি বারও প্রেয়সীর জন্য ভাল থাকার আশা কামনা করলি না………

সে বেশ করেছে, যেখানে বিনিময় নেই 
সেখানে ভালবাসা মরুভূমির উতপ্ত বালু হওয়াটাই স্বাভাবিক, 
আজও কি তোর বোধদয় হয়নি, 
তবে কেন তামাক সরিয়ে গাজার সেই অর্ধ ভেজাপাতা পুরে দিস শূন্যস্থানে? 
ভালবাসার জন্য ভালবাসা বিসর্জন দিতে হয়
মনে রাখিস, জোর করে ভালবাসা হয় না।

তুই কেন বুঝতে পারছিস না, তোর সেদিনের প্রেয়সীর হৃদ মন্দিরে 
তোর নাম ক্ষত করে লিখতে পারেনি, 
যেমনটি তুই নিজেও পারিসনি তোর হৃদয়ে…..
আসলে তোর ভালবাসা মাদকতার উত্তাল সমুদ্রে নিমজ্জিত
ককসীটের সেই ধবধবে এক টুকরো হৃদয়; যা
জলের স্রোতে, দস্যু মাছের ঠোকরে একদিন বিলীন হয়ে যায়।

মঙ্গবার, ১৩১০২০১৫, বিকেল:৪:০০, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০

 

পূর্ণিমা নয় আঁধারকে ভালবাসি

পূর্ণিমার চাঁদকে নয় আঁধারকে নিজের করে নিয়েছি
প্রতিটি মুহুর্ত প্রতিটি নিশ্বাস প্রতিটি রক্ত কণিকার রক্ত সঞ্চালন
পূর্ণিমার চাঁদ তুমি তো জানো না আঁধারের মাঝেই প্রদীপ, 
পূর্ণিমা তুমি নও, আঁধারকেই আপন করে পেতে চাই, 
ক্ষণিকের সঙ্গতা চাইলেই পেতে পারি, ক্ষণিকের ভালবাসা ভালো নয় ;
সে তো আপনার আপন নয়, পূর্ণিমা মানে হঠাৎ জেগে ওঠা, আর
দিবার মাঝেও যে আঁধারের বসবাস, সে স্থায়ী, তুমি জানো না ;
আঁধারকে আজ নিজের আপন মনে হয়
পূর্ণিমার চাঁদকে নয় আঁধারকেই ভালবেসে ফেলেছি
আঁধারের মাঝেই যে পূর্ণিমার বেঁচে থাকা প্রদীপ।

ফুলহারা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ, ০৭ : ৪২, ২৭০৯২০১৫।

স্বার্থের লোনাজল

শুকনো নদীর বুক চিরে যদি বান নাই আসে 
তবে তাকে কি করে নদী বলি বলো,
বৃক্ষের সবুজ পাতা শুকিয়ে যদি ঝরে নাই পরে
কি করে বুঝবো বসন্ত আসলো বুঝি;

 

এ হৃদয়ের মধ্যখানে ছোট্ট একটা নদী আছে,
আছে নদীর মাঝে বেড়ে ওঠা একটা বৃক্ষ,
বান আসে পাতা ঝরে আশা বেড়ে বেড়ে একদিন 
হিমালয় পাড়ি দিয়ে সাত আসমান স্পর্শ করে ফেলে;

কই, কেউ তো এলো না; উপমার পর উপমার কথা তো সবাই বলে
আজ বুঝে গেছি, সংসার মানে বন্ধন নয় আর
ভালবাসা মানেই বসন্তের স্পর্শ নয়
শুকনো নদী শুকনো পাতা সে শুধু স্বার্থের লোনাজল।

উত্তরা, ঢাকা, রাত: ১২:০০,১২১০২০১৫।

 

বিজ্ঞপন

বিক্রি হবো
নাম মাত্র মূল্যে 
সহজ কিস্তি বা এককালীন পরিশোধ যোগ্য;

বিবরণ বলতে তেমন কিছুই নেই
জং ধরা ইঞ্জিন
৩৩ বসন্ত রোদ বৃষ্টির স্পর্শে 
মচমচে পাপর ভাজা।

 

সিরিজ কাগজের ব্যবহার হয়নি 
সেটা মানা করবো না
তবে সেটা মরিচিকা মুঁছতে নয় বরং
নষ্ট বীজ বপণ করতে এসেছিল সবাই ;

 

আজ প্রায় অকেজো
পরিচালকের বয়স হয়েছে বেশ
এখন সে নিজেই নিজেকে চিনতে পারে না
সেখানে উচ্ছিষ্ট ইঞ্জিনের বোঝা বয়ে কি লাভ!!!

 

আজ নিলাম ডেকেছে বৃদ্ধ পরিচালক
বিনিময়ে যে ক’টা দিন শ্বাস প্রশ্বাস থাকে 
ঠিক ততদিন বৃদ্ধের পরিচালক প্রয়োজন
কিস্তি কিংবা এককালীন।

বাসযাত্রা, হাতিরপুল টু উত্তরা, ১১১০২০১৫, ২:৪০

ভালবাসা কাকে বলে

প্রতিদিন সূর্য দেখি
অনুভব করি সূর্যের ভালবাসা
যেখানে গ্রীষ্মের কোমলতা
মাঘের উত্তাপে চৌচির হয়ে যাওয়া মরুভূমি
সবটুকুই তোমার একান্ত ভালবাসা 
আমার অনুভূতি তোমার অনুভবে
একটু স্পর্শ করে দেখো
বুঝবে ভালবাসা কাকে বলে।

অজানা গন্তব্যের মাঝে যখন মুষলধারায় বৃষ্টি ঝরে
অসহ্য যন্ত্রণা তখন কুড়েকুড়ে খায় 
এ যন্ত্রণা যন্ত্রণা নয় যখন তোমার স্পর্শ
রক্তের কণিকাকে সহস্র গতিতে ধাবিত করে
সকল ক্লান্তি, যন্ত্রণা মুঁছে দিয়ে এ হৃদয় বলে
দেখো ভালবাসা কাকে বলে।

***************

ঝড়ে ঝরে ঝর্ণাবালু
শান্ত শামুকের দেশে
রক্তে রক্তে মৃত্তিকা
সার ছেটানোর ক্ষেতে
চুনকাম হারিয়ে দু ‘চোখ
সন্ন্যাসী মানবরসে বশে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com