ঘামের দুর্গন্ধ থেকে বাঁচার সহজ উপায়!

১১৫ বার পঠিত

গরমকালে শরীর ঘামবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এই ঘাম থেকে যদি দুর্গন্ধ বের হয় তাহলে নিজের কাছে বিরক্তিকর তো বটেই আবার পাশের মানুষটির জন্যই অস্বস্তিকর। এতে নিজের কাছে যেমন খারাপ লাগে তেমনি লজ্জার কারণ হয়েও দাঁড়ায়। রাস্তা-ঘাট, ট্রেন, বাস, বাড়িতেও ঘামের দুর্গন্ধে বিরক্ত হয়ে যান চেনা পরিচিত, অপরিচিত থেকে কাছের মানুষ প্রত্যেকে। কিন্তু এর থেকে মুক্তির উপায় কোথায়? জেনে নিন ঘামের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তির সহজ কিছু উপায়-

* দিনের দু-বার ভালো ভাবে গোসল করলে ঘাম এবং ঘামের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। গরমকালে দিনে দুবার গোসল আপনার শরীরকে ঠাণ্ডাও রাখে আবার ঘামের দুর্গন্ধ থেকেও মুক্তি দেয়।

* গোসল করে পোশাক পরার আগে শরীরটাকে ভালো করে হাওয়ায় শুকিয়ে নিন। ভেজা শরীরে কখনওই পোশাক পরবেন না। ভেজা শরীরে পোশাক পরলে, বেশি ঘাম হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

* আপনি স্লিভলেস পোশাক পরুন অথবা না পরুন, অবশ্যই শরীরের অবাঞ্ছিত লোমগুলি নির্মূল করুন। শরীরে অবাঞ্ছিত লোম ঘামের জন্ম দেয় এবং তা থেকেই দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়।

* গোসলের সময়ে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার করুন। অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল সাবান শরীর থেকে ব্যাকটেরিয়া দূর করে। যদি আপনার ত্বকে অ্যালার্জি কিংবা ইনফেকশনের ঝুঁকি থাকে, তাহলে সাবান পছন্দের সময়ে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

* শরীর থেকে ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে ল্যাভেন্ডার, পিপারমেন্ট, পাইন প্রভৃতির এসেন্সিয়াল ওয়েল ব্যবহার করুন। কিংবা একেবারে ঘরোয়া পদ্ধতিতে গোসলের জনে একটি পাতিলেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন।

* অনেক সময়ে আমাদের খাদ্যাভাসের কারণেও ঘামের দুর্গন্ধ দেখা দিতে পারে। তেল-ভাজা-মশলা দেয়া খাবার শরীরে ঘাম উৎপাদন করে। ঘামের হাত থেকে রক্ষা পেতে এধরণের খাবার যতটা পারেন এড়িয়ে চলুন।

* নাইলন কিংবা সিন্থেটিকের পোশাক একেবারেই পরবেন না। এতে ঘাম আটকে থাকে। সুতির হালকা পোশাক পরুন। সুতির পোশাক ঘাম টেনে নিয়ে শরীরকে শুকনো রাখে। জুতো পরার সময়েও সুতির মোজা পরুন।

* শুধু ডিওডোরেন্ট ব্যবহারেই ঘামের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি দেয় না। তার সঙ্গে অ্যান্টিপার্সপিরেন্ট ব্যবহার করুন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ মিনহাজুর রহমান, লাইফ স্টাইল #

লাইফ স্টাইল

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com