বৈশাখের কেনাকাটার ধুম

১৩৭ বার পঠিত

এক সপ্তাহ পর বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। তাই সাপ্তাহিক ছুটির দিনে রাজধানীর নিউমার্কেটে এলাকায় ছিলো উপচেপড়া ভিড়।

তীব্র রোদে সব বয়সী নারীরা নিজের পছন্দমতো পোশাক কিনতে নিউমার্কেট, গাউছিয়া ও চাঁদনী চক মার্কেট ভিড় জমান। নববর্ষের সাজে বাঙালির চিরায়ত সাজ থাকলেও প্রতি বছর স্টাইলে খানিকটা পরিবর্তন আসে। আর এই সুযোগে ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে বাহারি ডিজাইনের বৈশাখী পণ্যে সাজিয়ে রেখেছেন ব্যবসায়ীরাও।

শুক্রবার (০৭ এপ্রিল) রাজধানীর নিউমার্কেট, গাউছিয়া ও চাঁদনী চক মার্কেট ঘুরে বৈশাখের জমজমাট কেনাকাটার চিত্র দেখা যায়।মার্কেটগুলোর প্রতিটি দোকানে ক্রেতার উপস্থিতি দেখা যায়। বিক্রেতারা ক্রেতাদের পছন্দ ও চাহিদামতো পণ্য দেখাতে হিমশিম খাচ্ছেন।

মার্কেট ঘুরে দেখা গেলো, শাড়ি, থ্রি-পিস, অলঙ্কারে বৈশাখের রঙ লাল-সাদার প্রাধান্য বেশি দোকানগুলোতে। সেই সঙ্গে রয়েছে লোকজ ঐহিত্যের ছাপ। তবে অন্য রঙের পণ্যও দেখা গেলো।

 

ব্যবসায়ীরা জানান, পহেলা বৈশাখে লাল-সাদার কদর বরাবর বেশি থাকে। তবে ফ্যাশনের পরিবর্তন ও ভিন্ন দেখার চিন্তা ভাবনা থেকে তরুণীরা যেকোনো রঙিন পোশাককেও গুরুত্ব দিচ্ছেন। যারা নিউমার্কেট এলাকায় কেনাকাটা করেন তাদের কাছে শাড়ির জন্য জনপ্রিয় মার্কেট হচ্ছে ধানমন্ডি হর্কাস।পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ব্যবসায়ীরা লাল-সাদার কম্বিনেশনে বিভিন্ন ডিজাইনের শাড়ি নিয়ে এসেছেন। এখানে কাতান, তাঁত, টাঙ্গাইল ও বুটিকস, সিল্ক, জামদানি, কোটাসহ নানা ধরনের বৈশাখের শাড়ি পাওয়া যাচ্ছে। শাড়িগুলো মিলবে পাঁচশো টাকা থেকে ১০ হাজার টাকার মধ্যে।

কল্যাণপুর থেকে বান্ধবীর সঙ্গে বৈশাখের কেনাকাটা করতে এসেছেন মৌসুমী। তিনি বলেন, পহেলা বৈশাখে শাড়ি পরাটা আমি প্রেফার করি। তাও ঐতিহ্যবাহী লাল-সাদা শাড়ি ও কাচের চুড়ি। সেজেগুজে শাড়ি পরে বান্ধবীর সঙ্গে ঘুরবো, এটা আমার কাছে খুব আনন্দের। ঈদেও এতোটা মজা করতে পারি না।

বস্ত্রবিতান শাড়ির দোকানের বিক্রেতা ফাহিম বলেন, এপ্রিলের প্রথম থেকে বৈশাখের কেনাকাটা শুরু হয়েছে। বেচা-কেনা খারাপ না। শাড়ি তো শেষ মুহূর্ত পযর্ন্ত বিক্রি চলবে। এবার পোশাকে লাল-সাদার পাশাপাশি সবুজ, নীল, মেরুন, মোট কথা কালারফুল শাড়ি নারীরা কিনছে।পান্থপথ থেকে নাছরিন আক্তার ছেলে-মেয়েদের নিয়ে গাউছিয়ায় কেনাকাটা করতে এসেছেন।

 

তিনি বলেন, আজকে প্রচণ্ড রোদ ও গরম। এরপরও ছুটির দিন বলে বেরিয়েছি। আমার কাছে বৈশাখ মানেই সাদা-লালের সমাহার। এবারও পহেলা বৈশাখের দিন প্রচণ্ড গরম হবে মনে হচ্ছে, এ কারণে মেয়ের জন্য থ্রি-পিস কিনেছি। ঘুরে বেড়াতে কমফোর্ট ফিল করবে।

শাড়ি থ্রি-পিস কেনা শেষে তরুণী ও রমণীদের ম্যাচিং করে চুড়ি, মালা, কানের দুল ও টিপসহ বিভিন্ন গহনা কেনাকাটা করতে দেখা যায়। গহনার দোকানেও উপচে পড়া ভিড় দেখা গেলো।

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে নিউমার্কেট, গাউছিয়া ও চাঁদনী চকের ফুটপাতগুলোতেও বেচা-কেনায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের হিমশিম খেতে দেখা গেলো।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার

Bogra Offce

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com