সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে বললেন চীনের প্রেসিডেন্ট

৮৬ বার পঠিত

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং দেশটির সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে দক্ষিণ চীন সাগরের মালিকানা নিয়ে বিতর্ক ও উত্তেজনার মধ্যেই তিনি যৌথ যুদ্ধ কমান্ড সিস্টেম ত্বরান্বিত করা ও যুদ্ধ প্রস্তুতির প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেছেন। এমন এক সময় চীনের এ প্রেসিডেন্ট সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে বললেন, যখন প্রতিবেশী উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের পারমাণবিক উত্তেজনা চলছে।

দেশটির ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল কমিউনিস্ট পার্টির জেনারেল সেক্রেটারি ও সেন্ট্রাল মিলিটারি কমিশনের চেয়ারম্যান শি জিনপিং পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) সাউদার্ন থিয়েটার কমান্ড পরিদর্শনের সময় শি জিনপিং সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে বললেন। এ সময় তিনি শক্তিশালী সেনাবাহিনী গড়ে তোলা ও সেনাবাহিনীকে দুর্নীতি এড়িয়ে চলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। ৬৩ বছর বয়সী চীনের এই প্রেসিডেন্ট কমিউনিস্ট পার্টি, সেনাবাহিনী ও দেশটির সরকারের নেতৃত্বে রয়েছেন। চলতি বছরই তার সরকারের মেয়াদের পাঁচ বছর পূর্ণ হবে।

এ বছরের শেষ দিকে দলটির ১৯তম কংগ্রেসে পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্য তিনি পুনর্নির্বাচিত হতে পারেন বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। বিশ্বের সর্ববৃহৎ সেনাবাহিনী পিএলএ’র (২৩ লাখ সেনা) সদস্য ও কর্মকর্তাদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই ও ‘সেন্স অব গেইন’ বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়েছেন শি জিনপিং। যুদ্ধের প্রস্তুতির জন্য সেনাবাহিনীর সচেতনতা বৃদ্ধি, পরিবর্তনশীল পরিস্থিতি মোকাবেলা ও যুদ্ধ দক্ষতা বাড়ানোর জন্য অবিরাম প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে সামরিক কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

শি জিনপিং এমন এক সময় সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের প্রস্তুতির জন্য নির্দেশ দিলেন যখন প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে চীনের সামুদ্রিক বিবাদ বাড়ছে। চীনের মূল ভূখণ্ড থেকে ৮০০ মাইলেরও বেশি আয়তনের দ্বীপ ও দক্ষিণ চীন সাগরের পুরো মালিকানা দাবি করে আসছে চীন। তবে এতে আপত্তি জানিয়ে সাগর ও দ্বীপের মালিকানা দাবি করছে ফিলিপাইন, মালয়েশিয়া, ব্রুনাই ও ভিয়েতনাম। ওই এলাকায় কৃত্রিম দ্বীপ তৈরি করে সামরিক সরঞ্জাম ও সেনাবাহিনী মোতায়েন রেখেছে চীন। এ অঞ্চলের চলমান উত্তেজনা এবং ক্রোধের অন্যতম উৎস দক্ষিণ চীন সাগর সংকট।

এদিকে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জেরে কোরীয় উপদ্বীপে মার্কিন রণতরী মোতায়েন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ব্যাপক উত্তেজনা চলছে। পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে মার্কিন রণতরীর বহরের সঙ্গে জাপানের নৌ-বাহিনীর দুটি জাহাজ যৌথ মহড়ায় অংশ নিয়েছে। এর জেরে রোববার উত্তর কোরিয়া সামরিক শক্তি প্রদর্শন করতে হামলা চালিয়ে মার্কিন রণতরী ডুবিয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার হুমকি থেমে নেই এখানেই। যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম মিত্র অস্ট্রেলিয়ায়ও পারমাণবিক হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছে পিয়ংইয়ং। উত্তর কোরিয়া বলছে, ক্যানবেরা যদি অন্ধভাবে এবং প্রবল আগ্রহ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পদাঙ্ক অনুসরণ করে তাহলে দেশটিতে হামলা চালানো হবে। চীনের এই প্রেসিডেন্ট তার বক্তব্যে, কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির কর্তৃত্বকে দৃঢ়ভাবে সুরক্ষিত রাখতে সামরিক কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। একই সঙ্গে দলীয় নেতৃত্ব অনুসরণ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়েরও আহ্বান জানান তিনি। ২০১৭ সালকে পার্টি ও দেশের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে উল্লেখ করেছেন শি জিনপিং।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com