আজ শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ১লা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ সন্ধ্যা ৭:৪৮ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

মেয়েদের নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য: সরে দাঁড়ানোর চাপে ট্রাম্প

নারীদের নিয়ে অশালীন মন্তব্য করায় দল এবং দলের বাইরে তীব্র সমালোচনার সম্মুখীন মার্কিন নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইতিমধ্যে নির্বাচনী প্রতিযোগিতা থেকে তার সরে দাঁড়ানোর দাবি উঠেছে বিভিন্ন মহল থেকে। ট্রাম্পের ওই বেফাঁস মন্তব্য ফাঁস হওয়ার পর তার সমালোচনা করেছেন নিজ দল রিপাবলিকানের সিনিয়র সদস্যরাও।

২০০৫ সালের ওই ভিডিও টেপে ট্রাম্প সগর্বে এক বিবাহিত নারীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টার বর্ণনা দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘তারকা হলে তুমি নারীদের সঙ্গে যেকোনো কিছু করতে পারো।’ সুন্দরী নারী দেখলেই তিনি চুমু খাওয়ার চেষ্টা করেন বলেও জানিয়েছেন। নারী নিয়ে ট্রাম্পের এমন বেফাঁস মন্তব্য শুক্রবার প্রথম ফাঁস করে মার্কিন গণমাধ্যম দেয় ওয়াশিংটন পোস্ট।

নতুন যারা ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন তুলে নিয়েছেন তাদের মধ্যে আছেন সাবেক রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জন ম্যাককেইন এবং সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী কন্ডোলিজা রাইস। ম্যাককেইন বলেন, ‘ট্রাম্পের মন্তব্যের কারণে তার প্রতি শর্তসাপেক্ষে সমর্থন দেয়াও অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে।’ এদিকে কন্ডোলিজা রাইস বলেন, ‘যথেষ্ট! ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়া উচিত নয়। তার সরে দাঁড়ানো উচিত।’ এছাড়া বেশ কয়েকজন রিপাবলিকান নেতা বলেছেন যে তারা ট্রাম্পের পরিবর্তে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী মাইক পেন্সকে ভোট দিতে চান। মিট রমনি, জন কেসিক, জেব বুশ, লিন্ডসে গ্রাহামসহ অনেক সিনিয়র রিপাবলিকান নেতা ট্রাম্পকে ভোট দেবেন না বলে জানিয়েছেন।

এর আগে ট্রাম্পের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তার বাড়িতে রিপাবলিকানের শরৎকালীন উৎসবের আমন্ত্রণ বাতিল করেছেন হাউজ স্পিকার পল রায়ান। ট্রাম্পের ওই বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন আরেক সিনিয়র রিপাবলিকান মিচ ম্যাককনেল। ট্রাম্পের বক্তব্যকে ‘বেমানান’ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, ‘সরাসরি নারী এবং মেয়েদের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিৎ ট্রাম্পের।’

এছাড়া ওই বক্তব্যের সমালোচনা করে বিবৃতি দিয়েছেন জন ম্যাককেইনও। তিনি বলেন, ‘ট্রাম্পের এ ধরনের অপরাধ ও বাজে বক্তব্যের কোনো ক্ষমা নেই।’ এদিকে ট্রাম্পের ওই বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন তার স্ত্রী ম্যানিলা ট্রাম্পও। তিনি বলেন, ‘আমার স্বামী যেসব কথাবার্তা বলেছেন তা আমার কাছে অগ্রহণযোগ্য এবং অপরাধমূলক। আমি মনে করি জনগণ তাকে ক্ষমা করে দেবে।’

নিজের বক্তব্যের জন্য অবশ্য ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন ট্রাম্প। বক্তব্য স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমি এটা বলেছিলাম। আমি ভুল বলেছিলাম, এজন্য ক্ষমা চাচ্ছি। আমি আরো ভাল একজন মানুষ হওয়ার অঙ্গিকার করছি।’ তবে এই বক্তব্যের কারণে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন ট্রাম্প। মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে তিনি বলেন, নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সুযোগ শূন্য। প্রচারণায় অবিশ্বাস্য সমর্থন পাচ্ছেন বলেও জানান ট্রাম্প।

রবিবার নতুন করে আবারো তোপের মুখে পড়েছেন ট্রাম্প। একটি নিজের মেয়েকে নিয়ে অশালীন মন্তব্য করা এক অডিও টেপ ফাঁস করেছে মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট। প্রায় দুই দশক আগে রেডিও উপস্থাপক হাওয়ার্ড স্টার্নের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে ইভাঙ্কার দেহ নিয়ে বারবার অশালীন মন্তব্য করছিলেন ট্রাম্প। ওই সাক্ষাৎকারের কিছু অংশ সিএনএনে প্রকাশিত হয়েছিল।

সাক্ষাৎকার ছাড়া আরও কিছু সাক্ষাৎকারেও মেয়ে ইভাঙ্কাকে নিয়ে যৌনতাপূর্ণ মন্তব্য করেছেন ট্রাম্প। ২০০৬ সালের অক্টোবরে স্টার্নকে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের মেয়ে সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘সে আসলে খুবই আবেদনময়ী। সে লম্বা। ছয় ফিট। অসাধারণ সুন্দরী।’ এর দুই বছর পর আরেক সাক্ষাৎকারে তখন ২৩ বছর বয়সী ইভাঙ্কাকে ‘নিতম্বের টুকরা’ বলে মন্তব্য করেছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com