জাকির নায়িকের বয়ান তদন্ত করবে ভারত

২৫ বার পঠিত

মুম্বাই-ভিত্তিক ইসলাম ধর্ম প্রচারক জাকির নায়িকের টিভি বয়ানে বিদ্বেষ ছড়ানো হচ্ছে কিনা ভারত তা খতিয়ে দেখবে।

পহেলা জুলাই শুক্রবার ঢাকার সন্ত্রাসী হামলায় অংশ নেয়া অন্তত দুজন তার ভক্ত- এ রকম খবরের পরিপ্রেক্ষিতে ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু এ কথা বলেন।

ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেছেন, “জাকির নাইকের বক্তৃতা আমাদের কাছে একটা উদ্বেগের বিষয়। আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাগুলো বিষয়টি পর্যালোচনা করছে।”

মি নাইকের কী ধরণের বক্তব্য হেট-স্পিচের আওতায় পড়তে পারে বা প্রমাণ পাওয়া গেলে কী ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে – মন্ত্রী তা পরিষ্কার করেননি।

“আমি পার্লামেন্টের বাইরে এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করব না”।

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই অভিযোগ উঠেছে যে ঢাকায় গুলশানের হামলাকারীদের মধ্যে অন্তত একজন, রোহান ইমতিয়াজ ফেসবুকে জাকির নাইককে ‘ফলো’ করত এবং তার কিছু বিতর্কিত পোস্ট সে নিজের ওয়ালে শেয়ারও করেছিল।

এমনই একটি পোস্টে সে জাকির নাইককে উদ্ধৃত করে লিখেছিল যে “প্রত্যেক মুসলিমেরই সন্ত্রাসবাদী হয়ে ওঠা উচিত”।

এই পটভূমিতে গুলশানের হামলাকারীরা তার বক্তৃতায় অনুপ্রাণিত হয়েছিল কি না সেটা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এদিন নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজুও বলেছেন, “সন্ত্রাসবাদ রোখা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য আমরা বরাবরই বাংলাদেশের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করছি। এ ব্যাপারে দুই দেশের বোঝাপড়া ও সুসম্পর্কও দারুণ।”

তিনি এমন কথাও বলেন, বাংলাদেশ সরকার চাইলে ভারত সে দেশে জাকির নাইকের পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করার কথা বিবেচনা করতে পারে। তবে এখনও বাংলাদেশের কাছ থেকে সে রকম কোনও অনুরোধ আসেনি।

মুম্বাইয়ের বাসিন্দা জাকির নাইকের পিস টিভি বিশ্বের বহু দেশে সম্প্রচারিত হয়। বাংলাদেশের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় বাংলাতেও অনুষ্ঠান করা হয়। বাংলাদেশে তার ভাষণের লক্ষ লক্ষ দর্শক আছে।

তবে বিতর্কিত বক্তব্য প্রচারের অভিযোগে যুক্তরাজ্য, কানাডা বা মালয়েশিয়ার মতো বহু দেশেই তার প্রবেশ নিষিদ্ধ।

বছরকয়েক আগে আল কায়দা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে সন্ত্রাসবাদী বলতে অস্বীকার করে তুমুল বিতর্ক সৃষ্টি করেছিলেন জাকির নাইক।

এদিকে জাকির নাইক নিজে এখন উমরাহ করতে সৌদি আরবে রয়েছেন। সেখান থেকে ভারতের ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি অবশ্য ঢাকার জঙ্গী হামলার নিন্দা করেছেন।

সেই সঙ্গেই তিনি বলেছেন, “বাংলাদেশে নব্বই শতাংশ লোকই আমাকে চেনে, সে দেশের অর্ধেক লোকই আমার ফ্যান। ফলে ওই হামলাকারীরাও যদি আমায় চিনত, তাতে আমি অবাক হব না!”

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুব্রত দেব নাথ

সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com