বিসর্গ টিমের শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত

১৬৪ বার পঠিত

ইয়াসিন মাহমুদ আরাফাত # গতকাল ২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন-বিসর্গ টিমের উদ্দ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠান। সংগঠনটি শীতপ্রধান অঞ্চল লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নে প্রথম পর্যায়ে প্রায় ৩০০ শতাধিক সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করে। পর্যায়ক্রমে ঢাকার সুবিধাবঞ্চিতদের শীতবস্ত্র বিতরন করা হবে শীঘ্রই।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিসর্গ প্রধান- মহিউদ্দিন শ্রাবন, টিম মেম্বার- মিনহাজ আহমেদ অনিক, দিল মোহাম্মদ, আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অত্র ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান, বাবু ধরনী কান্ত বর্মন, বোডের হাট উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি, আব্দুল ওয়াহাব আহমেদ, প্রধান শিক্ষক, মোঃ মজিবর রহমান সহ প্রতিটি ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যবৃন্দ এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ।

কম্বল বিতরনের পূর্ব মুহূর্তে বক্তারা বলেন, এ উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। যেখানে যুব সমাজ নিজের কর্ম নিয়ে ব্যস্ত, সেখানে বিসর্গ টিম মানবতার সেবায় নিয়োজিত। প্রতিটি ভালো কাজে যদি আমাদের যুব সমাজ এগিয়ে আসে, আমাদের সোনার বাংলাদেশ গড়া কষ্টসাধ্য হবেনা এবং সমাজে সকল প্রকার অসংগতি দূর হয়ে যাবে। জনপ্রতিনিধি হিসাবে যেটা আমরা করতে পারিনি সেই কঠিন কাজটা ওরা করে যাচ্ছে। মানুষকে ভালোবাসার মত ওদের বিতর-বাহিরে যে অনুভূতি জাগ্রত হয়েছে তা যেন সকল ক্ষেত্রে অটুট থাকে। বিসর্গ টিম সুদূর ঢাকা থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলে অসহায় মানুষদের কষ্ট উপলব্ধি করে তাদের এই উপহার পৌছে দিয়েছে। আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ, তাদের ভালোবাসায় আপ্লুত। ভবিষ্যতেও যেন তাদের এই ধারা অব্যহত থাকে। বিসর্গের অবিরাম পথচলা সুন্দর ও সাফল্যময় হবে এটাই নিরন্তর প্রত্যাশা।

বিসর্গ প্রধান বলেন, যখন দেখি সুবিধাবঞ্চিত মানুষগুলি অর্থের অভাবে কষ্ট পাচ্ছে, শীতবস্ত্রের অভাবে ঘুমাতে পারছেনা, তখন নিজেকে প্রশ্ন করি- ওরাও তো আমাদের মত মানুষ! কেন তারা বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত? তাই সম্মিলিত উদ্দ্যোগে একঝাঁক তরুণ-তরুণী নিয়ে এই সংগঠন যাত্রা শুরু হয় আমরা বিভিন্ন বিষয় সামনে রেখে এগিয়ে যাচ্ছি, নিয়মিত রক্তের ক্যাম্পেইন, পথশিশুদের খাবার বিতরন, শিক্ষ্যার ব্যাবস্থা করার চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমরা মনে করি সবাই যদি এগিয়ে আসে তাহলে কোন ব্যক্তি শীতবস্ত্রের জন্য কষ্ট করতে হবেনা, একটি কম্বল দ্বারা যদি কিছুটা হলেও শীতের কষ্ট লাগব হয়; তাহলেই আমরা স্বার্থক। সমাজের বিত্তবানরা যদি এগিয়ে আসে তাহলে আমরা ইভেন্টগুলি সফল করতে আরো বেশি সাহস পাবো।

শীত প্রধান অঞ্চল ভিত্তিক সাধারন জনগণের সাথে কথা বলে জানতে পারি, তারা অপেক্ষায় থাকে কখন সূর্য উঠবে! কিন্তু সূর্যের দেখা পাওয়া যায়না। প্রচন্ড শীত এবং শ্বৈতপ্রবাহে কর্মব্যস্ততা হ্রাস পায়। বিকাল থেকেই কুয়াশা আচ্ছন্ন করে রাখে, উত্তরের ঠান্ডা বাতাস প্রবাহিত হয়। রাতে প্রচুর শীত পড়ে, সহ্য করতে না পেরে আগুন জ্বালিয়ে তাপ নেয়। টাকার অভাবে পর্যাপ্ত পরিমাণ শীতবস্থ কিনতে পারেনা। তাই অপেক্ষার প্রহরগুনে কখন কোন সংগঠন শীতবস্থ নিয়ে হাজির হয়। তবেই তো শীত নিবারণের বস্ত্র পাওয়া সম্ভব। বিসর্গ টিমকে দেখে খোলামেলা কথা বলেন, তাদের জন্য দোয়া করেন, আনন্দিত হয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, অসহায় সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর স্বপ্ন নিয়ে সেচ্ছাসেবী সংগঠন বিসর্গ টিমের যাত্রা শুরু হয় ১৪ জুলাই ২০১৬, প্রতিষ্ঠার পর থেকেই পথশিশুদের শিক্ষার নিশ্চয়তা, রক্তদান, বিদ্যাশ্রমে সাহায্য, শীতবস্থ বিতরণ সহ বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ করে যাচ্ছে নিয়মিত।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com