ঘর পরিষ্কারের জন্য ব্যবহৃত তরলই ডেকে আনে ভয়ঙ্কর বিপদ!

৪৮ বার পঠিত

সব সময় সাফসুতরো থাকতে চান? হরেক রকমের জিনিস ব্যবহার করে জীবাণুমুক্ত রাখেন আপনার ঘরদোর? কিন্তু ওই সব রাসায়নিক বারোটা বাজাচ্ছে আপনার ফুসফুসের। ক্ষতি করছে শিশুদেরও। ডেকে আনছে হৃদরোগ, শ্বাসকষ্টের সমস্যা।ঘর হোক বা দোর, কিচেন হোক বা ড্রয়িং, বেডরুম হোক বা বাথরুম, ঝকঝকে তকতকে রাখাটাই দস্তুর। আর তা করতে গিয়ে ব্যবহার করতে হয় নানা ডিটারজেন্ট, সারফেস ক্লিনার। এ পর্যন্ত ঠিকই আছে। কিন্তু বিপদের শুরুটা ঠিক এখান থেকেই।

ময়লা, আবর্জনা, জীবাণু দূর করে আমরা শুধু নিজেদেরই নয়, গোটা পরিবারের স্বাস্থ্যই সুনিশ্চিত করতে চাই। কিন্তু ঘর পরিষ্কারের জন্য ব্যবহৃত তরলই ডেকে আনে ভয়ঙ্কর বিপদ। কারণ, এই সব তরল তৈরি হয় নানা ধরনের শক্তিশালী রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে। নরওয়ের সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষার রিপোর্টে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। শুধু বাড়িই নয়, কর্মস্থলেও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জন্য যে তরল ব্যবহার করা হয়, তাতে রয়েছে ফরমালিন। ডিসওয়াশিং লিকুইড, জীবাণুনাশক, রূপচর্চার প্রসাধনী, শ্যাম্পু এবং টুথপেস্টেও এই ফরমালিন ব্যবহার করা হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অতিমাত্রায় ফরমালিন শরীরে প্রবেশ করলে তা হতে পারে ক্যানসারের কারণ। কাপড় ধোয়ার ডিটারজেন্ট পাউডারে থাকে সোডিয়াম লরেল সালফেট। এই রাসায়নিকটি শরীরে প্রবেশ করলে ডেকে আনে অন্ধত্ব, হতে পারে চোখে ছানি পড়ার কারণ।

গবেষকরা জানাচ্ছেন, যে মহিলারা নিয়মিত কাপড় কাচা, ঘরদোর পরিষ্কার করতে ডিটারজেন্ট বা সারফেস ক্লিনার ব্যবহার করেন, ক্রনিক ব্রঙ্কাইটিস এবং হাঁপানি হওয়ার সম্ভাবনা তাঁদের সবচেয়ে বেশি। একটু একটু করে ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে তাঁদের ফুসফুস। আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অফ পয়জন কন্ট্রোল সেন্টারের সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় আরও বড় বিপদের কথা বলেছেন গবেষকরা। এই সব ডিটারজেন্ট বা সারফেস ক্লিনার শিশুদের শরীরে পক্ষে মারাত্মক। এই সব তরলের রাসায়নিক শিশুর শরীরে প্রবেশ করলে ধীরে ধীরে তাদের শরীরকে কমজোরি করতে থাকে। শ্বাসকষ্ট, হার্টের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com