বাংলাদেশ বনাম ইংল্যান্ড এর ২য় টেস্টের প্রথম দিন নিয়ে সরব ছিলেন জাককানইবি উপাচার্য !

৪৪ বার পঠিত

মেহেদী জামান লিজন # শুক্রবার বাংলাদেশ বনাম ইংল্যান্ড এর মধ্যকার ২য় টেস্টের প্রথম দিনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে সরব ছিলেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মোহীত উল আলম (Mohit Ul Alam)। ক্রিয়াপ্রেমী এই উপাচার্য তার ফেইসবুক আইডি থেকে মিরপুর টেস্ট এর প্রথম দিনে ১৪ টি স্ট্যাটাস দেন।

তিনি শুক্রবার সকালে যখন বাংলাদেশ টসে জিতে ব্যাটিং এ তখন ” BD to lead, England to chase. Not a bad morning!” এই স্ট্যাটাস দিয়ে শুরু করেন। তিনি আশা করেছেন বাংলাদেশ লীড নিবে আর সেই লীড মোকাবেলা করবে ইংলিশরা, ঠিক তেমনি হয়েছিল তামিম – মুমিনুলের সকালটা । যখন তামিম- মুমিনুল টেস্ট খেলছিল তখন উপাচার্য ” What do you say about this prediction? BD 316+201 ENG 293+193″ এই স্ট্যাটাস দিয়ে টাইগারদের এগিয়ে রাখে, যদিও তার অনুমানটা টাইগারটা পূরণ করতে পারেননি, কিন্তু উপাচার্যের সাথে কমেন্টে অনেকে সহমত করেছেন।

mohit-ul-alamতিনি ইংলিশ বোলার ফিনের আগ্রাসী রুপ নিয়েও একটা স্ট্যাটাস দেন, তিনি লেখেন ” I’m scared of Finn. He can be devastating!” মেঘাচ্ছন্ন আকাশে মিরপুরে সকালের আবহাওয়ার মত ছিল ইংলিশ বোলাদের বোলিং , সবাই তামিম – মুমিনুলের কাছে ছিল উত্তাপবিহীন তাই তু উপাচার্য বলেন ” The English weather is actually prevailing: cool and sunless.”

দলীয় এক রানের সময় ইমরুল কায়েস একটি বাজে বলে আউট হন, তাই উপাচার্য মোহীত উল আলম সমালোচনা করে বলেন ” Imrul succumbed foolishly to an uppish ball. Hell is gaping wide.” মুমিনুলের ৬৬ রানের মাঝে ছিল অসাধারন কিছু বাউন্ডারী তেমন একটি বাউন্ডারী বর্ণনা দিতে উপাচার্য বলেন ” Mominul’s brilliant boundary through the third man. “

শতক হাঁকানো তামিম তার আগ্রাসী ব্যাটিং এর আগে ছিল কিছুটা স্নায়ুচাপে, আর এই ভাবেই নেন প্রথম রান, আর উপাচার্য তার ধারাভাষ্য বর্ণনা করেন ” Tamim’s first run after a nervy waiting.” ” Tamim, with this 3, is he opening up!” টাইগাররা এক পেসার নিয়ে মাঠে নামার সমালোচনাও করেন উপাচার্য ” Big foolish decision for BD to play with only one pacer. .”

তামিমের অর্ধশতকে শুভেচ্ছা জানান উপাচার্য, আর বাকি ৫০ করতে পরামর্শ দেন আর আশা ব্যক্ত করেন বাঝে শট না খেলার, ঠিক তেমনি করে তামিম ও তুলে নেন তার রাজকীয় শতক, আর উপাচার্য এর দিকনির্দেশনা ছিল এমন ” Congratulations Tamim: 50 in 60 balls. My boy from the same area as me–Kazir Dewry, Chittagong. But don’t play any rash shots, which you did after your 50.”

তিনি ধারাভাষ্য নিয়েও একটি মতবাদ দিয়েছেন ” জাফর সাহেবতো দেখতে পুরোই ইংরেজ! আরেক নাসির হোসেন নাকি?” তামিমের একটি নট আউট দেখে তিনি প্রশংসা করে বলেন ” Great decision, Tamim! NOt out! ” তামিম কে নিয়ে তিনি আরেকটি স্ট্যাটাস দিয়ে বলেন ” OMG Tamim looks hurt! “

তামিম – মুমিনুলের বিদায়ের পর পথ হারায় বাংলাদেশ, একের পর এক উইকেট চলে যাওয়ায় উপাচার্য মনোনিবেশ করেন সাহিত্যে । আর তিনি তার হতাশা তুলে ধরেন এই ভাবে ” আর কী করতাম! যাই, সাহিত্য পড়ি। ” খেলাপ্রেমী এই উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ক্রিকেট প্রীতি ম্যাচ এ প্রধান অতিথি থাকার পাশাপাশি ধারাভাষ্যকারের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া বাংলাদেশ – ইংল্যান্ড এর প্রথম টেস্ট নিয়েও ডেলি সানে উপাচার্য ড. মোহীত উল আলমের একটি আর্টিকেল প্রকাশ হয়।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com