মেন্টাল নই, স্বামীর চাপে নিজেকে ‘মেন্টাল’ বলেছি : রুবি (ভিডিও)

৩১ বার পঠিত

সম্প্রতি একটি ভিডিও বার্তার মাধ্যমে একুশ বছর আগের সালমান মৃত্যরহস্যটি জাগিয়ে তুলেন রাবেয়া সুলতানা রুবি নামের একজন নারী। যুক্তরাষ্ট্র থেকে সোশাল সাইটে একটি ভিডিও বার্তা পাঠিয়ে কালজয়ী চিত্রনায়ক সালমান মৃত্যুরহস্যটিকে তিনি ‘হত্যাকাণ্ড’ বলে মন্তব্য করেন। এবং এই খুনের সমস্ত কিছুই তিনি জানেন বলেও বলেছিলেন।  কিন্তু এমন বক্তব্যের দিন দুয়েকের ব্যবধানেই নিজের এই অবস্থান থেকে সরে যান রুবি। পরবর্তী আরেকটি ভিডিওতে নিজেকে ‘মেন্টাল’ বলেও উল্লেখ করেন তিনি। আসলেই কি তিনি ‘মেন্টাল’? নাকি কারো চাপ ছিলো পূর্বের অবস্থান থেকে সরে আসতে?

সদ্য আমেরিকায় একটি বাংলা চ্যানেলের লাইভ অনুষ্ঠানে এসে তারই উত্তর দিলেন রুবি। ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা দিয়ে ‘টাইম টেলিভিশন’-এর সি ই ও আবু তাহের এবং সিনিয়র রিপোর্টার সুলতানা রহমানের সঙ্গে খোলাখুলি কথা বলেন ‍রুবি। বলেন, তিনি আসলে মেন্টাল নয়, বরং চাইনিজ স্বামীর চাপেই পরবর্তীতে ফেসবুক ভিডিও লাইভে নিজেকে মেন্টাল বলে দাবী করেছিলেন!

গেল ৭ আগস্ট ফেসবুকে এসে রুবি সুলতানা দাবী করেন, সালমান আত্মহত্যা করেনি। তাকে খুন করা হয়েছে। আর এই খুনের সঙ্গে সামিরা চৌধুরী ও তার পরিবার এবং রুবির চাইনিজ স্বামী ও নিজের ছোট ভাই রুমি সালমানকে খুন করে। তার এমন বক্তব্যের পর ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’তে পরিণত হয় সালমান মুত্যুরহস্যটি। আর এমন বক্তব্যের দুই দিনের মাথায় নিজের অবস্থান থেকে সরে আসেন রুবি। এবং নিজেকে মানসিক ভারসাম্যহীন দাবী করে তিনি বলেন, আমি স্বীকার করছি, গত কয়েকদিন ধরে যে ভিডিওগুলো সালমান শাহকে নিয়ে আমি পোস্ট করে যাচ্ছি সেগুলো আমার মনগড়া কাহিনী ছিলো। নিউইয়র্কে একা একা বসে বসে আমি এগুলো কাহিনী বানিয়েছি। আমি মানসিকভাবে অসুস্থ, আমার চিকিৎসা দরকার। এবং চিকিৎসা নিচ্ছিও। আর এটা আমেরিকার মতো জায়গায় দোষের কিছু না। মানসিক ভারসাম্যহীনতা বা মেন্টাল আনস্ট্যাবেলিটি যে কারোরই থাকতে পারে। এটা দোষ বা লজ্জারও কিছু না।

এবার নিজেকে সুস্থ স্বাভাবিক একজন মানুষ দাবী করে নিজেকে কেনো ‘মেন্টাল’ বলেছিলেন তাও প্রকাশ করলেন এই নারী। টিভি লাইভে রুবি জানান, আসলে ওইদিন নিজেকে মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন বলেছিলেন স্বামীর চাপে। এ প্রসঙ্গে এই নারী বলেন, স্বামী বলেছে অতীতে যা হইছে এগুলো ভুলে যা। এখন থেকে ফেসবুকে একটু বলে দে যে, তোর একটু মেন্টাল প্রবলেম আছে। তাহলে সবকিছু সমাধান হয়ে যাবে।

এরআগে সালমানের ভক্ত অনুরাগীরাও এমন সন্দেহ করেছিলেন যে, প্রথমে সালমানকে খুন করা হয়েছে দাবী করে বক্তব্য দেয়ার পর নিজেকে ‘ভারসাম্যহীন’ বলার পেছনে অদৃশ্য কারো হাত আছে! অনেকে রুবির অবস্থান পরিবর্তন করায় এমন ঘোরতোর সন্দেহ করেছিলেন। তাই এখনো অনেকে বিশ্বাস করেন,  রুবির কাছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পৌঁছাতে পারলেই সালমান শাহ্’র মৃত্যুরহস্য উদঘাটন হবে। অন্যথায় আরো একুশ বছর চলে গেলেও সালমান রহস্যের কোনো সুরাহা হবে না।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com