মাপকাটিতে তৃণমূল সমর্থিত

পটুয়াখালী-৩ : জাতীয় পার্টির জনপ্রিয়তায় মিলটন এগিয়ে

ফারুক আহমেদ, অনুসন্ধানী প্রতিবেদক :

জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতাদের মধ্যে আগামী নির্বাচনে কে হচ্ছেন দলীয় প্রার্থী, এনিয়ে এখন থেকেই নির্বাচনী এলাকায় দলীয় নেতাকর্মী ও জনসাধারনের মাঝে চলছে নানান জল্পনা-কল্পনা। গ্রহণযোগ্যতার মাপকাটিতে তৃণমূল সমর্থিত ও জনপ্রিয় নেতাকেই দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হবে বলে জানালেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক খান। পার্টির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এককভাবে অংশ গ্রহন করবেন জানিয়ে আব্দুর রাজ্জাক খান বলেন, দেশের মানুষ এখন জাতীয় পার্টির পতাকাতলে। পল­ীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ স্যার এর নেতৃত্বে জনগনের প্রত্যক্ষ ভোটেই আগামী নির্বাচনে সরকার গঠন করবে জাপা। এজন্য দেশের প্রতিটি আসনে যোগ্য ও তৃনমূল সমর্থিত ব্যক্তিকেই মনোনীত করবে জাতীয় পার্টি।

অনুসন্ধানে আমাদের প্রতিনিধিরা নির্বাচনী এলাকা ফিরে জানিয়েছেন, পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) নির্বাচনী আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতাদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনায় জনপ্রিয়তায় এগিয়ে রয়েছেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও গলাচিপা উপজেলা জাতীয় পার্টির সহ সভাপতি হাওলাদার মিলটন আহমেদ মিলন।
দলীয় মনোনয়নে আশাবাদী রয়েছেন আরও দুজন নেতা। তারা হলেন, গলাচিপা উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ মাহবুব আলম ও জেলা শ্রমিক পার্টির সভাপতি আব্দুস সালাম মোল­া। তবে এদের তেমন একটা জনপ্রিয়তা নেই।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, পটুয়াখালী-৩ নির্বাচনী এলাকার আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির কে হচ্ছেন দলীয় প্রার্থী, এনিয়ে এখন থেকেই নির্বাচনী এলাকায় দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে জল্পনা-কল্পনা। জাপার কেন্দ্রীয় সদস্য হাওলাদার মিলটন আহমেদ মিলন প্রবাসে থাকলেও এলাকায় জনপ্রিয়তার দৌড়ে তিনি এগিয়ে রয়েছেন। প্রবাস থেকেই সক্রিয় নেতৃত্ব ও সকল কর্মসূচিতে সহযোগীতা করে আসছেন এবং তার নেতৃত্বেই দুই উপজেলা জাপার সাংগঠনিক কর্মকান্ড পূর্বের চেয়ে তিনগুন শক্তিশালী হয়েছে বলে জানিয়েছেন গলাচিপা উপজেলা সভাপতি জাকির হোসেন ও উপজেলা ছাত্র সমাজের সহ সভাপতি খলিলুর রহমান।

সুত্রমতে, পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) নির্বাচনী এলাকা দুটি উপজেলা, দুটি পৌরসভা ও ১৭ ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। এআসনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের লক্ষ্যে দলীয় মনোনয়নের আশায় আগাম মাঠে নেমেছেন জাতীয় পার্টির তিনজন নেতা হাওলাদার মিলটন আহমেদ মিলন, অধ্যক্ষ মাহবুব আলম ও আব্দুস সালাম মোল­া।
অন্যান্য নেতার চেয়ে জনপ্রিয়তায় জাপার কেন্দ্রীয় সদস্য হাওলাদার মিলটনের গ্রহণযোগ্যতা অনেক বেশি। কারণ হিসেবে অভিমত ব্যক্ত করেছেন দশমিনা উপজেলা জাপানেতা ইখলাস, রবিউল আলম, মোস্তাফিজুর রহমান ও আব্দুর রশিদ। তারা বলেন, হাওলাদার মিলটনের সহযোগীতায় পার্টির বিভিন্ন কর্মসূচি ও জাতীয় কর্মসূচি পালিত হয়ে আসছে। নেতাকর্মীদের সুখ-দুখে তিনি সবসময় পাশে থেকেছেন। প্রবাস থেকে হলেও সাধারন মানুষের সাথে তার যোগাযোগ রনয়েছে সরাসরি। দুস্থ্য মানুষর মাঝে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন দীর্ঘদিন আগে থেকেই। পার্টির টানে ও তৃনমূল কর্মীদের টানে মাঝেমধ্যেই দেশে আসেন হাওলাদার মিলটন। এবারও তিনি প্রবাস থেকে দলীয় সাংগঠনিক কাজে এলাকায় ফিরছেন। তিনি পরিক্ষিত নেতা। তিনি স্থানীয় অনেক সামাজিক সংগঠনের মধ্যে সম্পৃক্ত রয়েছেন। হাওলাদার মিলটনকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হলে পটুয়াখালী-৩ আসন জাতীয় পার্টির দখলে থাকবে বলেও নেতাকর্মীরা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।

মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতা আব্দুস সালাম মোল­ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমিও দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। তবে হাওলাদার মিলটন জনপ্রিয়তায় এগিয়ে রয়েছেন বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
১৪৫ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার

Bogra Offce

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com