ইউরোপে অত্যাধুনিক স্পাই ক্যামের মাধ্যমে তৈরি হচ্ছে পর্ন ক্লিপ

২৩ বার পঠিত

প্রযুক্তি যত উন্নত হচ্ছে, ততই বাড়ছে আশঙ্কা। এই যেমন ক্যামেরা। ক্যামেরা ছোট হতে হতে এমন একটা জায়গায় গিয়েছে, যেখানে কুচক্রীদের মুখের হাসি চওড়া হচ্ছে। বেশ কয়েক মাসের মধ্যে আমাদের শহর, দেশে মহিলাদের ট্রায়াল রুমে গোপন ক্যামেরা রাখার ঘটনায় তোলপাড় পড়ে যায়। গোয়ার এক নামি কোম্পানির আউটলেটে গিয়ে ট্রায়াল রুমে গোপন ক্যামেরার  বিষয়টি নজরে পড়ে খোদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির। তখনই সবার টনক নাড়ে।এভাবেই ইউরোপে অত্যাধুনিক স্পাই ক্যামের মাধ্যমে তৈরি হচ্ছে পর্ন ক্লিপমন্ত্রীদের হস্তক্ষেপে, পুলিসি তত্‍পরতায় এই ধরনের ঘটনা বন্ধের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে আমাদের দেশে। কিন্তু ইউরোপে এই সমস্যাটা একেবারে মারাত্মক জায়গায় গিয়েছে। হোটেলের ডোর হ্যান্ডেলে রেখে দেওয়া হচ্ছে ছোট্ট ক্যামেরা (ছবিতে)। টেরও পাওয়া যাচ্ছে না। দরজা খুলতেই ক্যামেরার কারসাজি শুরু হয়ে যাচ্ছে। এরপর ঘরে আপনি যা করছেন, তা রেকর্ড করে রাখছে ক্যামেরা।

পরে তা হোটেল কর্মীদের মাধ্যমে পৌঁছে যাচ্ছে অসাধু ব্যবসায়ীদের কাছে। যারা এই ভিডিও একেবারে জীবন্ত পর্ন নাম দিয়ে মোটা টাকায় নীল দুনিয়ায় বিক্রি করছে। আর নীল ছবির দুনিয়ায় এই ধরনের ভিডিও-র চাহিদা আকাশছোঁয়া। সম্প্রতি পূর্ব ইউরোপের এক দেশের হোটেলে তল্লাসির পর মেলে ক্যামেরা। তারপর তদন্তের পর উঠে এসেছে এই চাঞ্চল্যকর খবর। শুধু দরজার লকে নয়, হ্যাঙ্গারের মধ্যেও থাকছে ক্যামেরা।
 সাবধান…গোপন ক্যামেরা হয়তো আপনাকে দেখছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com