মায়ের রক্তেই মায়ের ঘরটা ভেসে গেল

এই সংবাদ ৩১ বার পঠিত

‘কেমন করে বিশ্বাস করব মা নেই। মায়ের ঘরটা ভেসে গেল মায়েরই রক্তে।’

কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার কাছে বৃহস্পতিবার ঈদের দিনে দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত ঝর্ণা রানী ভৌমিকের বড় ছেলে বাসুদেব ভৌমিক কাঁদতে কাঁদতে কথাগুলো বলছিলেন।

মুসলমানদের ঘরে ঈদের খাবার। আর এ কারণেই ভৌমিক বাড়ির কর্ত্রী ঝর্ণা রানী ভৌমিকও সেমাই এদিন রেঁধেছেন। রুটি বানানোর জন্য ময়দা মাখাচ্ছিলেন। এমন সময় চারদিকে গোলাগুলি। তখনই একটা প্রয়োজনে রান্নাঘর থেকে শোয়ার ঘরে যান ঝর্ণা।

এ সময়ই জানালা দিয়ে একটা গুলি এসে ঠিক মাথায় লাগে তার। ঘরের ভেতরেই পড়ে যান তিনি। মেঝে ভেসে যায় রক্তে। পরিবারের সদস্যদের তাকিয়ে তাকিয়ে তার চলে যাওয়া দেখা ছাড়া আর কিছুই করার ছিল না।

ঝর্ণার বড় ছেলে বাসুদেব ভৌমিক ঢাকার একটি কলেজে শিক্ষকতা করেন। ছুটিতে বাড়ি এসেছেন। রান্নাঘরে মায়ের রান্না করা সেমাই আর ময়দার গোলা দেখিয়ে বাসুদেব বলছিলেন, ‘আমরা তো কারে সাতে-পাঁচে ছিলাম না। তবুও কেন আমার মাকে এভাবে মরতে হলো।’

ঝর্ণার স্বামীর নাম গৌরাঙ্গ ভৌমিক। গৌরাঙ্গর ভাই উপেন্দ্র ভৌমিক কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘রুটি বেলবে বলে আটা মাখছে। পোলায় লুঙ্গি চাইছিল। ঝর্ণা রান্নাঘর থেকে সেটা দিতে ঘরে যাওয়া মাত্রই জানালা দিয়া গুলি আইলো। আমরা সবাই তখন মেঝেতে শুইয়া আছিলাম। ক্যামনে কী হইয়া গেল।’

ঝর্ণার ছেলে বাসুদেব বলেন, ‘কেমন করে বিশ্বাস করব মা নেই। মায়ের ঘরটা ভেসে গেল মায়েরই রক্তে।’ বাসুদেব চোখ মোছেন আর একে-ওকে মায়ের হাতে গড়া শেষ খাবারটা দেখান।

কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া মাঠের অনতিদূরে সবুজবাগ মহল্লায় বাসুদেবদের বাড়ি। মায়ের মৃত্যুর পর সেই জানালা বন্ধ করে দিয়েছেন বাসুদেব। অন্ধকার করে তাঁর মায়ের কালচে রক্তের দিকে চেয়ে কাকে যেন সমানে দুষেই চলেছেন এই তরুণ কলেজশিক্ষক। বাড়িতে চলছে মাতম আর আহাজারি। পুলিশ লাশ নিয়ে গেছে ময়নাতদন্তের জন্য।

বৃহস্পতিবার ঈদের দিন কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের আধা কিলোমিটারের মধ্যে বোমা হামলায় দুই পুলিশ সদস্যসহ চারজন নিহত এবং কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে একজন নারী রয়েছেন, তার নাম ঝর্ণা রানি ভৌমিক। তিনি গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন। নিহত আরেকজন হামলাকারী বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুব্রত দেব নাথ

সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com