শিক্ষক হত্যার প্রতিবাদে রাবিতে মহাসমাবেশ

এই সংবাদ ৩১ বার পঠিত

জি.এ.মিল্টন, রাবি প্রতিনিধি # রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যার বিচার দাবিতে তিনদিন ব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাবিতে দুইঘন্টাব্যাপি মহাসমাবেশ পালন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে এ কর্মসূচি পালন করে তারা। এতে সংহতি প্রকাশ করেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন।

সমাবেশে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অনেকেই সন্দেহ পোষণ করেছেন যে, আমরা সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে পেরে উঠতে পারবো না। কিন্তু আমরা সবাই মিলে যৌক্তিক পরিণতি না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবো, এতে কোন সন্দেহ নেই। আমরা হত্যা, খুন, গুমের বিচর করতে পারছি না এটা আমাদের ব্যর্থতা। বিচার না করার জন্য তারা আস্কারা পেয়ে যাচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, তখন স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিগুলো, সাম্প্রাদয়িক শক্তিগুলো আমাদের পেছনে টেনে ধরার চেষ্টা করছে। বাংলাদেশ মৌলবাদী রাষ্ট্র নয়, কিন্তু তারপরেও কেন এসব শিক্ষকদের প্রাণ দিতে হচ্ছে?’

শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের মহাসচীব অধ্যাপক মাকসুদ কামাল পরিবারে প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে বলেন, ‘আজকে যারা রেজাউলের নামে কুৎসা করছে তারা পুরো বাংলাদেশের নামে কুৎসা করছে। তারা সেই সম্প্রদায়; যারা বর্বর, যারা সংস্কৃতি জানে না, মুক্তবুদ্ধি জানে না, ইতিহাস জানে না, শুধু সবকিছু স্তব্ধ করে দিতে জানে। আমাদের এদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বলেন, ‘অধ্যাপক রেজাউলকে হত্যা করে বিশ্ববিদ্যালয়কে হত্যা করা হয়েছে। কারণ বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তিবুদ্ধির জায়গা, আর রেজাউল মুক্তবুদ্ধির চর্চা করতেন। বিশ্ববিদ্যালয়কে বাচাঁতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে একসাথে আন্দোলনকে বেগবান করতে হবে।’

সমাবেশে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাহ্ আজমের সঞ্চলনায় আরও বক্তব্য দেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা,অধ্যাপক রেজাউলের স্ত্রী হোসনে আরা, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক তাবিউরর রহমান, বাংলাদেশ উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মোকাদ্দাম হোসেন, রুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি নীরেন্দ্র নাথ মোস্তাফী, রাবি শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধরণ সম্পাদক অধ্যাপক রেজাউল করিম, রাবির সাবেক ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ছাদেকুল আরেফিন প্রমুখ।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ, সমাজকর্ম বিভাগ, মার্কেটিং বিভাগ, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ, নৃবিজ্ঞান বিভাগ, প্রাণিবিদ্যা বিভাগ, ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগ, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগ, নাট্যকলা বিভাগ, কৃষি অনুষদ, ইনফরমেশন সায়েন্স অ্যান্ড লাইব্রেরি বিভাগ, ফলিত রসায়ন বিভাগ, হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগ, জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা পৃথক পৃথক ব্যানারে সিনেট ভবনের সামনে মহাসমাবেশে এসে যোগ দেয়।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ এপ্রিল রাজশাহীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে একটু দূরে অধ্যাপক রেজাউলকে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এরপর থেকে বিচার দাবিতে আন্দোলন করে আসছে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com