বিচারহীনতার কারণেই প্রতিনিয়ত ধর্ষক বৃদ্ধি পাচ্ছে

জি.এ.মিল্টন, রাবি প্রতিনিধি : একজন ধর্ষক যখন কাউকে ধর্ষণ করছে তখন সে জেনেই করছে যে তার পেছনে একটা বড় কোন শক্তি রয়েছে। এজন্য এমন জঘন্য কাজ করার পরও সে পুলিশের কাছে যাবে না বা গেলেও বিচার হবে না এটা সে ধরেই নিয়েছে। ফলে একজন ধর্ষকের সত্যিকার অর্থে বিচার করা হচ্ছে না। বিচারহীনতার কারনেই সমাজে প্রতিনিয়ত ধর্ষক বৃদ্ধি পাচ্ছে।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে রাজধানীর বনানীতে দুই তরুণীসহ সারাদেশে অব্যাহত ধর্ষণের প্রতিবাদ ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন।

মাবনবন্ধনে বক্তারা বলেন, বিজ্ঞাপন, নাটক, সিনেমাসহ সর্বত্র নারীকে পণ্যের স্তরে নামিয়ে রাখা হয়েছে। সমাজে পণ্যগ্রাফী বিস্তারের ফলে নারীকে ভোগ্যপণ্য স্তরে নামিয়ে ফেলা হয়েছে। ধর্ষণে পোশাক কোনো বিষয় নয়। তার প্রমাণ ওই তিন বছরের শিশু থেকে ষাট বছরের বৃদ্ধাও ধর্ষিত হচ্ছে। যারা এই জঘন্য অপরাধ করেছে এবং যারা অপরাধীদের সাহায্য করেছে তাদের বিচারের আওতায় নিয়ে এসে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নিশ্চিত করার দাবি জানান বক্তারা।

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তজার্তিক সম্পর্ক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মাহমুদা মিতুল ইভার সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আব্দুল মজিদ অন্তর, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী কনি ইসলাম, অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রাশেদ রিমন প্রমুখ।

মানববন্ধনে একাত্বতা ঘোষণা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্র ফেডারেশন ও কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোট। এসময় প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
১০৪ বার পঠিত

জি.এ.মিল্টন, রাবি প্রতিনিধি #

গাউছুল আজম মিল্টন শহীদ হবিবুর রহমান হল, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী - ৬২০৫ ০১৭৬৩-২৩৭৭৭৬

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com