স্বাধীনতা পরবর্তী সর্বশ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

৩৭৫ বার পঠিত

দেলোয়ার হোসেন, সাস্ট প্রতিনিধি # গত বৃহস্পতিবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সাস্ট) এর মিনি অডিটরিয়ামে ‘সাস্ট রিসার্চ সেন্টার’-এর আয়োজনে ‘ফোর্থ এ্যানোয়্যাল কনফারেন্স অন রিসার্চ ফাইন্ডিংস-২০১৬’ শীর্ষক দুইদিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এম.পি। মাননীয় মন্ত্রীমহোদয় কে স্বাগত জানাতে বঙ্গবন্ধু চত্বরে উপস্থিত ছিলেন শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের তরুণ মেধাবী ছাত্রনেতা- সাইমন, কাউছার, মামুন, রফিক, মিশু, শোয়েব, রিয়াদ, সাব্বির, আদনান, হাফিজ, রাজীব, দেলোয়ার, হৃদয় এবং অন্যান্যরা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গবেষণা ছাড়া দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। আর জ্ঞান সৃষ্টি, চর্চা ও অনুসন্ধান ব্যতিত বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন গুরুত্ব থাকতে পারে না। আমাদের বুঝতে হবে, আমরা এখনো বেশীরভাগ ক্ষেত্রে প্রযুক্তি আমদানী করে থাকি। তাই আমরা যদি যথাযথ গবেষণা করতে পারি তাহলেই কেবল নিজস্ব চাহিদা মিটিয়েও প্রযুক্তি রপ্তানী করতে পারবো। তবে প্রথমবারের মতো আমরা কিছুকিছু ক্ষেত্রে যেমন-কৃষি ও খাদ্য উৎপাদনে ইতোমধ্যে স্বয়ংসম্পর্ণ হয়েছি এবং জনবহুল এ দেশের খাদ্য চাহিদা মিটিয়েও সম্প্রতি খাদ্যসামগ্রী রপ্তানী করতে পারছি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে  সর্বশ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১১ সালে চালু হওয়া ‘সাস্ট রিসার্স সেন্টার’ গবেষণার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। ইতোমধ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার অনুসন্ধানে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে প্রথম গবেষণা প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি পেয়েছে। এ অর্জন আমাদের সকলের। তিনি তার বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়কে নতুন জ্ঞান সৃষ্টির স্থান আখ্যা দিয়ে নতুন জ্ঞান সৃষ্টির জন্য গবেষণা চালিয়ে যাওয়ার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com