,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

চৌধুরী ফাহাদ এর কবিতা

লাইক এবং শেয়ার করুন

অসম

প্রয়োজনে পথে হাঁটিনি পথ
তুমিও যেমন;
এপাড়-ওপাড় ছিল না প্রয়োজন
মাঝখানে কিছু অনিকেত ভালোবাসা
ছিল তুমি-আমি, আমাদের-
হৃদয়ের আয়োজন,
প্রয়োজনে হাঁটিনি পথ, তুমিও যেমন
পথের ধারে ছিল না কোন প্রয়োজনের নিমন্ত্রণ।

প্রয়োজনে বাঁধিনি রথ, তুমি-আমি
বুকের মত অণু-প্রাচীরের ছায়ায়
আমাদের ছিল সব
ভিন্নতা যদি হয় ভেতরের গান
শক্তি কার বেঁধে রাখে শব্দের কলরব!

হৃদয়ের মিছিলে কোন প্রয়োজন থাকে না-
ভেঙ্গে যাবে পাড়;
বুকের আলিঙ্গনে কোন ভেদ থাকে না-
ঢেকে দেবে আঁধার!

যদি নিভে যায় আলো
যদি মাথা তুলে চায় অন্ধকার
প্রয়োজনহীন হৃদয়ের পথে দোষ দেবো কার?
আমি-তুমি তখনো ছিলাম, এখনো যেমন
আমাদের করে যদি না থাকে আমরা
অহং বাতাসে উড়ে উড়ে সুখ,
নিয়ত নিয়তি-
গিঁটহীন বাঁধনে বাঁধা পাখীদের উৎসব।

প্রয়োজনে পথে হাঁটিনি পথ, তুমিও যেমন-
আমরাই হল না আমাদের, হয় কি করে মন!

হঠাৎ একদিন

এই সব বিকেলের পর একদিন
হঠাৎ একদিন
আর কোন সন্ধ্যা হবে না পৃথিবীর
আর কোন রাত
সেই সব অন্ধকারের পর গোধূলির মত তুমি থাকবে কোথাও
যেখানে রঙ, যেখানে ছায়া, যেখানে আপন
সে আলোয় আমি নাই, আমি নাই
এই সব সন্ধ্যার পরে আর কোন গান, আমি নাম
থাকবে না পৃথিবীর, পৃথিবী না
সেই সব রাতের পরে জোছনার মত তুমি থাকবে কোথাও
যেখানে স্মৃতি, যেখানে বাহাস, জলের নাম
সে বর্ষায় আমি নাই, আমি নাই
এই সব প্রিয়তার পরে তুমিই চোখ, সুখ-অসুখ
সেই সব ইতিহাসে তোমাকে নিয়ে ঘুম
পৃথিবীর পৃথিবী নাই, কোথাও নাই

নিজস্বতা

মাঘীপূর্নিমার রাতে আলো জ্বলেই-
ঝরবেই জোছনা
পৃথিবীর কোন দায় নেই এখানে

ক্ষুধা এক জিঘাংসার আদরে প্রাণ
পৃথিবী ভুলে চাঁদকে করে তোলে মহান
নির্লজ্জতায় জোছনা-
মুগ্ধ চোখের চেয়েও এগিয়ে বহুক্রোশ
এখনে চাঁদের কোন দায় নেই
পৃথিবী আর সুর্যের দ্বৈরথই জোছনাকে দিয়েছে প্রাণ

মানুষের চোখে আলোই উত্তম
জোছনাই হৃদয়ের খোরাক
জহুরীর মনিতে অন্ধকার উজ্জ্বলতায় আলোর অধিক
কেউ কেউ এভাবে দেখে আলোর অধিক অন্ধকারের প্রাণ
গৃহত্যাগী ভাবনাও দেখে ছায়ার নিচে একরঙের আলো-আঁধার

কোন তফাতই ভিন্নতর ভালোবাসা নয়-
নয় অতিমানবীয় প্রত্নের উপাদান
এখানে চোখই আলাদা কিছু আর হৃদয়
রাত পেরিয়ে ঘুম ভেঙ্গে গেলে সুর্যে
মৃত শিশিরের মত উবে যায় ভাবালুতার গান

এখানে-ওখানে, মাটিতে-আকাশে, গভীরে-বাহিরে
হৃদয়ে-বোধে সর্বত্র দর্শনের মত মানুষই ঈশ্বর
এখানে চাঁদ বা জোছনার মত পৃথিবীরও কোন প্রাণ নেই

তাকালেই তাকানোর চোখে অন্ত:-অনন্তে
মৃত শ্বাসেও আলো জ্বলে-জ্বলবেই

মানুষ মুগ্ধ হতে জানে বলেই মুগ্ধতারও নিজস্বতা বর্তমান…

গদি

ক্ষমতা হেঁটে গেলে অক্ষম রাস্তার ঘর
নমস্যে নত আজন্ম অবহেলিত সেতু
ভাঙ্গা সেতুর চুন-সুরকি অচিরেই গলে
মিশে যায় ফুটন্ত গালির কড়াইয়ে
নিমন্ত্রণে উজ্জ্বলতর দিন প্রস্থানে অতীত
হাসি হাসি মুখ নিয়ে হাত ঠিক ব্যস্ত প্রতিউত্তরে
দ্বিচারেই আত্মপ্রবোধ খুঁজে নেয় মন

বস্তুতঃ প্রাণ রামকে ভালোবাসলেও পূজা করে রাবণের

স্থির

দূরে গেলাম
দূরে গেলি
দূরত্ব-ই কাছে থাকলো
ভুলে গেলাম
ভুলে গেলি
ভুল-ই বেঁচে থাকলো


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ