,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আবু জাফর সিকদার – এর একগুচ্ছ কবিতা

লাইক এবং শেয়ার করুন

বেলা শেষের গান

একটি নিষ্পাপ ডিম্ব থেকে
একটি বিষধর গোখরো বেরিয়ে আসার মত,
আতুর ঘরে এখন কাল কেউটে নাচে, পদ্মপাতায় ।

আমাদের পুষ্পকলিরা হেঁটে যাচ্ছে
হেমন্তের নবান্ন উৎসবের আঙ্গিনা পেরিয়ে
অতঃপর পথ হারাচ্ছে মরু সাহারার মরীচিকায়;
পায়ে পায়ে পৌঁছে যাচ্ছে জাহান্নামের দোরগোড়ায়।

ফারাও দ্বিতীয় রামেসিসের
প্রাগৈতিহাসিক ফসিলের মত
মর্গে পরে থাকা বেওয়ারিশ লাশগুলো
মরেও বেঁচে থাকার প্রায়শ্চিত্ত করে যায়।

দেশ মহাদেশ ঘুরে
একটি নিরাপদ আশ্রয়ের খুঁজে,
বেলা শেষে যেন ডুবে যায় রণতরী
বারমুডা ত্রিভুজ আঙ্গিনায়।

গোধূলির রক্তিম আভায়
কেবল সময় সাক্ষী হয় ;
পাগলা ঘণ্টি বেজে যায় বেলায়,অবেলায়।

সেই দেবদাস, এই বলদাস

(উৎসর্গ : খাদিজা আকতার নার্গিস কে)

প্রেম বিরহে কাতর ছিল একদা এক দেবদাস
সকাল বিকাল জলসা ঘরে গিলতে শুধু ছাইপাশ

মুখেতে গজানো খোঁচাখোঁচা দাঁড়ি
রাত বিরাতে রাস্তায় খেতো গড়াগড়ি
ভুলে যেতো তাদের ছিল এক আলিশান রাজারবাড়ি
সবাই ভাবতো প্রেম নিয়ে হেম,এই তার চরম বাড়াবাড়ি ।

দিনে দিনে বদলে গেছে এখন সময়
হয়ে গেছে প্রেমের অপর নাম অয়োময়
হাতে তুলে নিয়ে চাকু ভণ্ড প্রেমিক ঘুরছে দিন রাত
প্রেম না দিলে নাই বা দিবি, জীবন হবে শাঁখের করাত !

সেই চেতনায় হালের প্রেমিক প্রবর সোনার ছেলে হলো এবার ঘাতক ‘বলদাস’
কোপাকুপি করে অসহায় নার্গিসের করলো সে সর্বনাশ,করলো সে সর্বনাশ !

ঢাকা টু চট্টগ্রাম:এক মায়াবী হাতছানি

চোখ চোখ আনারসের সমস্ত শরীর জুড়ে
গোধূলি ফিকে হয়ে আসে নিজের নিয়মে
অন্ধকার নেমে আসে বাতাবি লেবুর বনে
এক গাছি চুলে চৌকাঠের ওপারে বকুল মালা
পায়চারি করা সুগন্ধি লোবান ছড়িয়ে পড়ে
জোনাকি পোকার ডানায় দূরে, বহু দূরে !

শীত-ঘুমে অচেতন পড়শি যুগল
পানিফল ঝুলে থাকে শিং-ওয়ালা সবুজ পেটে
শাপলা শালুক ঘুমিয়ে থাকে কাদার নির্যাসে।
কেবল জেগে থাকে হৃদয়ের গহীন কোণে
ডাঁসা মাছির অক্ষিগোলক
টিক টিক ঘড়ির কাঁটার মতো ।

রাতগুলো অনন্ত কালের মতো বড় হতে থাকে
এগিয়ে যায় সময় মাইলের পর মাইল
গ্রহ গ্রহাণুপুঞ্জ তেঁতুল পাতার মতোই
এক গাছে থিতু হয়ে থাকে ।

আবার ফিরতি ট্রেনের সিটি বাজে জানি
দুরুদুরু বুকের পাঁজরে
এক-বৃত্তের ব্যাসার্ধে
হপ্তা মাস বছর ঘুরে
শিখর থেকে শেকড়ে টানছে যেন উল্টো রথে
ঢাকা টু চট্টগ্রাম:এক মায়াবী হাতছানি ।

যুদ্ধবাজ নিপাত যাক

ছলাৎ ছলাৎ কীর্তনখোলা
গাধায় চিবায় কাঁচা ছোলা।

বরফ গলে না কাশ্মীরে
ভণ্ড গেছে সব আজমিরে !

যুদ্ধ যুদ্ধ লাগলো দোলা
অস্ত্রের হাটে ঢাকনা খোলা।

জমলো এবার জমলো খেলা
কেউ বা হলো রাশান চেলা ।

খালি করে টাকার সিন্দুক
কারো হাতে চায়না বন্দুক ।

বানায় বোমা সব আণবিক
দেখায় মনটা খুব মানবিক ।

মুক্ত স্বাধীন উঁচু যার শির
ভূ- স্বর্গ থাক একক কাশ্মীর ।

নিপাত যাক এই সব যুদ্ধবাজ
মুক্ত হোক আজ মানব সমাজ ।

এক গুচ্ছ হাইকু

হাইকু/১

হেমন্ত বেলায়
ঘাসের ডগাতেই হাসে
একফোটা শিশির।

হাইকু/২

ছিল অতীত কাল
সেই নবান্ন উৎসবে
ঢেঁকি ছাটা চাল।

হাইকু/৩

সর্দি নাকএ তাই
আষাঢ়েতে ডাকে ব্যাঙ
ঘ্যাঙর ঘ্যাঙর ঘ্যাঙ ।

হাইকু/৪

খেজুর রস ভরপুর
শীত পিঠা পাটালি গুড়
কোথায় তা এখন !


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ