,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

সাইদুল ইসলাম-এর একগুচ্ছ কবিতা

লাইক এবং শেয়ার করুন

মুক্তি

বলে ছিলাম না’ অঞ্জন দাশ
কুত্তায় খায় ঘাস
মানুষ খায় বাঁশ
আর উনি খেলায় তাস।

মরতে মরতে দেয়ালে আজ পিঠ
এটা কি সিনেমা,যে হবে হিট
তবু বে শরমা জতি হবে না ফিট
কলপিটের রক্ত বসত করে কিট।

ওরা গুম গুম খেলতে ভালোবাসে
দেখতে মনুষ হলে ও,শুয়রের পাশে
স্বজন হারা কাঁন্না বাতাসে ভাসে
তাতে ওদের কি যায়- আসে?

কুত্তার সাথে ধর্ষণের চুক্তি
হায়না চাটে মানুষের সুক্তি
আর মানিনা কোন হিরালালের যুক্তি।
শালা জানোয়ার বল,দিবি কি মুক্তি??

বিজয়ে বিশ্বাসি

দেখিস একদিন আমরা কাউকে কৈফিয়ত দিবো না।
কোন ধর্ষনের বিচার মাটির স্থূপে চাপা পরতে দিবো না।
দেবতার জ্ঞানের হাই- প্রোফাইল কে পায়ের নিচে গেঁথে দিবো।
আর যাই হোক আমার জ্ঞানের জিম্মা তোমায় দিবো না।
কেউ দিবে না,
পৃথিবীতে আমরা আর দেবতায় বিশ্বাসি নই,,।
আমরা প্রতিশোধে বিশ্বাসি।
নিঃলজ্জতায় বিশ্বাসি।
আমরা বিজয়ে বিশ্বাসি।

নিরবে নিথর

ভালো থাকার মতো অভিনয় আর হাত উঠিয়ে নেয়ার মতো মিথ্যে দ্বিতীয় টি নেই।
তবু তো অভিনয় করছি,মিথ্যে ও বলছি।
কারো জন্য কারো হৃদয় থেমে থাকে না এটা সত্য,
কাউকে ছাড়া বাঁচা অনেক সময় মরনের কারণ হয়েও দাড়ায়।
কি আশ্চর্য্য!
তুমি একটু ভালোথাকার জন্য আমায় তাড়িয়ে দিয়েছো,
আর সেই একটু ভালোথাকার ফাঁদে ‘একটা জ্যান্ত জীবন নষ্ট করে দিলে।
ভালোবাসা যদি হয় বাঁচার নতুন আশ্বাস।
কিছু অন্ধ ভালোবাসা মৃত্যুর ও কারণ।
একদিন ভালোবাসা ভিক্ষে চেতাম,
তুমি দম্ভের স্বরে তাড়িয়ে দিতে।
আজ আর চাই না,
নিজেকে প্রশ্ন কোরছো কেনো?
আমার নিরব আর্তনাদ হয়তো ঈশ্বর বিরক্ত হয়ে তোমার রূপের যৌলুশ বিকলঙ্গ করে দিবে।
তাই তোমার কাছে আর প্রার্থনা নিয়ে আসিনা।
জীবনে দেবতা পাবে,
ভালোবাসার পূজারী পাবে না।
আজ যে ফুল পায়ে দলিত করে মাড়িয়ে গেলে।
সে ফুল তোমায় ভালোবাসার অপরাধে ‘তোমার পায়ের নিচে পিষ্ট হয়ে হলো।

সেই ঝড়ের আম গাছ গুলো

এখন কি আম গাছ গুলো আছে কি না’ জানি না।
আমের মুকুল বা আম হয় কিনা তাও জানি না।
ঝড়ের দিন গুলিতে কি সেলীরা আম কুড়াতে আসে?
ওরা এখন কেউ আর থাকেনা ওখানে।
হয়তো ঝড় আসলে নতুন কেউ ঠিক ই আম তলায় আসে।
আমার মতো হয়তো ঝড়-বৃষ্টিতে ভিজে ভাঙা আমের ডালে আম দেখে আত্মহারা হয়!!
ওখানে এখন আর মা ও নেই,যে চ্যেরাক ধরে রাত দুপুরে আমার জন্য আম কুড়াতো।
বাদুর বা চামচিকার গ্রাস হতে যে তার সন্তানের জন্য আধ খাওয়া আম টি নিতে ভুলতো না।
কালের স্বাক্ষী হয়ে দাড়িয়ে আছে পুরানো আম গাছ গুলো।
আমাদের কতো জন কেই দেখেছে সে আম কুড়াতে।
পৃথিবীর কতো ঝড়ে ভাঙা ডালে আম কুড়ানোর স্বাক্ষী এই আম গাছ গুলো।
তারা স্বপদে কালের প্রতিনিধি হয়ে দাড়িয়ে আছে!
শুধু এই ঝড়ের রাতে সেই পুরানো পঁচিশ বছর আগের কেহো আম কুড়ায় না।

প্রথম মৃত্যু ও দ্বিতীয় জন্ম

আমি বিশ্বাস করতে পারি নি, আমাকে মরতে হবে।
এই অবিশ্বাস একদিন আমার দুয়ারে মরন নিয়ে হাজির হলো।
যদি ভাবতাম আমি মরে যাবো,
তবে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করার জন্য মৃত্যুসব করতাম।
পরিতাপের বিষয়, জানার অগোচরে মৃত্যুর করুণ আগমন।
আমার মৃত্যু মানে নতুন আর একবার জন্মের আয়োজন ।
তোমারা পরকাল বললেও, আমি বলবো আমার দ্বিতীয় জন্ম।
মৃত্যুর মত দ্বিতীয় পাষান্ড সত্য আর নেই।
আর নির্মম মিথ্যে, আমি কোন দিন ভাবি নি মরে যাবো।
আমি আর ফিরবো না,
তবে এ রংঙে বার্নিশ মিথ্যে??
আমি তোমাকে কেনো আমার বলেছি,তুমি তো তোমার!!
আমার কিছু নয়,আমি মিথ্যের প্রসাদে দাড়িয়ে রাজাত্ব করেছি।
আর মৃত্যু মানে এই সব সত্যের উৎঘটন।
শুধু একটাই সত্য, মৃত্যু
আর মৃত্যুর পরে দ্বিতীয় জন্ম।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ