,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার আখাউড়ায় ১৬ মাস আগে নিখোঁজ বাপ্পী খুন হয়েছে

লাইক এবং শেয়ার করুন

আদিত্ব্য কামাল, নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলায় ১৬ মাস আগে নিখোঁজ হওয়া বাপ্পী নামে এক যুবক খুন হয়েছে বলে অভিযুক্ত বন্ধু পুলিশকে জানিয়েছে। এ অবস্থায় অভিযুক্তদের চিহ্নিত করা একটি কবর আদালতের নির্দেশে আজ বুধবার খোঁড়া হতে পারে। উপজেলার মোগড়া বাজারের মােহাম্মদ আলী লিটনের ছেলে বাপ্পী ২০১৫ সালর ২৬ ডিসম্বর থেকে নিখোঁজ ছিল।

অভিযুক্তদের বরাত দিয় পুলিশ জানায়, বাপ্পীসহ ১০ জনের একটি দল ডাকাতি, ছিনতাই, চুরির সাথে জড়িত ছিল। মাস শেষে সেসব ভাগ বাটোয়ারা  হতো। সেই ভাগ-বাটােয়ারা নিয়ে বাপ্পীর সঙ্গে  দ্বন্দ্ব দেখা দেয়।  তারা ২০১৫ সাল ২৬ ডিসম্বর রাতে ১০ সদস্যের একজন স্বপনের বাড়িত খাবারের আয়োজন করে এবং বাপ্পীকেও আমন্ত্রন জানান। ওইদিনই রাত দুইটার দিকে বালিশ চাঁপা দিয়ে বাপ্পীক হত্যা করা হয়। পরে বাড়ির পাশের প্রায় ৩০ বছরের পুরাতন একটি কবরে তাকে মাটি চাপা দেয়া হয়।

পুলিশ আরো জানায়, এ ঘটনার পর নিহত বাপ্পীর মা সাজেদা বেগম বাদি হয়ে আখাউড়া থানায় একটি সাধারণ ডায়রী (জিডি) করে বাপ্পীর নিখােঁজের বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করেন। পরে সন্দেহ হওয়ায় তিনি আদালতে মামলা করেন। আদালত মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন। পিবিআই তদন্ত শেষে এজাহার নামীয় আসামীরা জড়িত থাকতে পারে বলে আদালতকে অবহিত করেন। পর আদালত এ বিষয় মামলা নিতে আখাউড়া থানা পুলিশক নির্দেশ দিলে চলতি বছরের ২৩ মার্চ আখাউড়া থানায় মামলা হয়।

আখাউড়া থানার ওসি মোশারফ হােসন তরফদার জানান, মামলা দায়রের পর আমরা বিভিন সময়ে তিনজনকে গ্রপ্তার করি এবং রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করি। বর্তমান ওই তিন জন জেল হাজতে আছেন। পরে মঙ্গলবার ভাের এজাহারনামিয় আসামী আলাউদ্দিনকে গ্রেফতার করি এবং তার স্বীকারােক্তি মতে মােগড়া এলাকা থেকে সটু, ওয়াসিম, বাবু এবং আলমগীরকে গ্রেপ্তার করি। পরে খুনের পর লাশ পুতে রাখার অবস্থান তারাই চিহিৃত করন। তিনি জানান, ম্যাজিস্ট্রেডের উপস্থিতিতে আজ বুধবার লাশ উত্তালন করা হবে। তবে লাশ এখানে আছে কি-না এ নিয়েও সন্দেহ আছে। বাপ্পীর বাবা মাহাম্মদ আলী লিটন দাবি করেন তার ছেলে কোন অপরাধের সাথে জড়িত ছিলনা। বশিরভাগ সময় বন্ধুদর নিয়ে নিজের চায়ের দোকানেই আড্ডা দিত। বন্ধুরাই তাকে হত্যা করেছে। আমরা এ হত্যাকান্ডের বিচার চাই।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ