,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

বঙ্গোপসাগরে আটকে পড়া ১৯ বাংলাদেশি শ্রমিককে উদ্ধার

লাইক এবং শেয়ার করুন

মোহাম্মদ রাহাদ রাজা,খুলনা বিভাগীয় স্টাফ রিপোর্টারঃ দক্ষিণাঞ্চল বঙ্গোপসাগরের ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকায় আটকে পড়া জাহাজে থাকা অনাহারী ১৯ বাংলাদেশি শ্রমিককে উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী।

বুধবার (৫ এপ্রিল/১৭) সকালে বানৌজা করতোয়া জাহাজ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করে আনা হয়। মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় উদ্ধার হওয়া শ্রমিকদের হিরণ পয়েন্ট এলাকায় মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের টাগবোটে তুলে দেওয়া হয় বলে জানা গেছে। এছাড়া, খাদ্য ও পানি সংকটে পড়া বিদেশি জাহাজটির ক্রুদের জন্যও ২ টন বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ করেছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী।
এ ঘটনায় ২২ বাংলাদেশি শ্রমিকের মধ্যে উদ্ধার হওয়া ১৯ জন বাদে বাকি ৩ শ্রমিক চট্রগাম বন্দর থেকে ছেড়ে যাওয়া লাইটারের অপেক্ষায় জাহাজটিতেই অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার এম ওয়ালিউল্লাহ আমাদের খুলনা বিভাগীয় স্টাফ রিপোর্টার কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

একই খবর নিশ্চিত করেছেন উদ্ধার হওয়া ক্রেন ডাইভার মো. মাসুদ। তিনি জানান, তার সঙ্গে থাকা শ্রমিকদের সবাই ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন। নৌবাহিনীর সদস্যরা সব শ্রমিককে খাবার সরবরাহ করেছে ও প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছে। রাতের যেকোনও সময় টাগবোট মংলায় পৌঁছাবে বলেও আশা করছেন উদ্ধার হওয়া শ্রমিকরা।

মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার এম ওয়ালিউল্লাহ জানান, কয়লা বোঝাই জাহাজটি হিরণ পয়েন্ট থেকে প্রায় ৭০ নটিক্যাল মাইল দূরে গভীর সমুদ্রে অবস্থান করছে। মংলা বন্দর থেকে এর দূরত্ব প্রায় ১২০ নটিক্যাল মাইল। দুযোগপূর্ণ আবহাওয়া ও সমুদ্র উত্তাল থাকায় কোনও ধরনের কার্গো ও কোস্টার ওই এলাকায় পৌঁছাতে পারছে না। এ কারণে বিশুদ্ধ পানি ও খাদ্য পৌঁছানো সম্ভব হয়নি জাহাজটিতে। এ অবস্থায় বিদেশি এ জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট ও স্টিভিডরস বন্দর কর্তৃপক্ষের সাহায্য চায়। বুধবার সকালে নৌবাহিনীর ২ জাহাজ ঘটনাস্থল থেকে ঝুঁকি নিয়ে ১৯ জনকে উদ্ধার করেছে।

ইন্দোনেশিয়া থেকে বিদেশি ওই জাহাজটি ২৮ হাজার ৫শ’ মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে গত শুক্রবার (১০ মার্চ/১৭) মংলা বন্দরের অদূরে বঙ্গোপসাগরের ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকায় অবস্থান করে। এরপর ২৬ মার্চ লাইটারে করে জাহাজের কয়লা খালাস কাজে অংশ নেন শ্রমিকরা। একদিন পর সমুদ্র উত্তাল থাকায় আর কোনও নৌযান জাহাজের সঙ্গে ভিড়তে না পেরে ফেরত আসে। দীর্ঘ সময় সমুদ্রে অবস্থান করায় জাহাজে থাকা ২৩ বিদেশি নাবিক ও ২২ জন বাংলাদেশি শ্রমিক চরম খাদ্য সংকটে পড়েন। শেষ পর্যন্ত মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে নৌবাহিনীর সদস্যরা দেশীয় ১৯ জন শ্রমিককে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ