,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

লক্ষ্মীপুরে শিক্ষক সংকটে ভুগছে মাধ্যমিক স্কুল ও সরকারী কলেজগুলো

লাইক এবং শেয়ার করুন

কিশোর কুমার দত্ত, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুুরে দীর্ঘদিন থেকে শিক্ষক সংকটে ভুগছে মাধ্যমিক স্কুল ও সরকারী কলেজগুলো। এতে করে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম। বিষয় ভিত্তিক শিক্ষক না থাকায় অনেকটাই ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে এসব প্রতিষ্ঠানে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের। সংকট কাটাতে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জোড়াতালি আর অতিথি শিক্ষক দিয়েই ঢিমেতালে চালানো হচ্ছে পাঠদান কার্যক্রম। এতে ক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থী ও অভিবাবকরা। দ্রুত শিক্ষক সংকট নিরসনের দাবীও জানান তারা।  

জানা যায়, জেলায়  ৫টি সরকারী কলেজসহ মাধ্যমিক পর্যায়ের স্কুলগুলোতে বিরাজ করছে চরম শিক্ষক সংকট। এতে করে জেলার স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। ফলে নিয়মিত বিষয় ভিক্তিক পাঠদান না পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। পাঠদানে সমস্যা সমাধানে কলেজগুলোতে অতিথি শিক্ষক (গেস্ট টিচার) বা কোন কোন ক্ষেত্রে অন্য উপায়ে কোনো রকমে সংকট সমাধানের চেষ্টা করছে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। এতে করে প্রভাব পড়েছে ফলাফলের উপরও।

স্কুল-কলেজর শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা জানায়, লক্ষ্মীপুর সরকারী মহিলা কলেজে দীর্ঘদিন থেকে ইংরেজি, গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ণ, হিসাব বিজ্ঞানসহ প্রায় ৯টি বিষয়ের ২১ জন শিক্ষকের পদ খালি রয়েছে। এখানে ২৯টি পদের বিপরীতে শিক্ষক রয়েছে মাত্র আটজন। লক্ষ্মীপুর সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ৭৩ টি পদের বিপরীতে কর্মরত আছেন ৪৮ জন। ২২ টি প্রভাষকসহ ২৭টি পদই রয়েছে শূন্য এখানে। উচ্চমাধ্যমিক, ডিগ্রি ও অনার্স-মাষ্টার্সসহ ১০ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য ইংরেজি বিষয়ে পাঠদানের জন্য রয়েছেন মাত্র একজন শিক্ষক। গত কয়েক বছরে উচ্চমাধ্যমিক থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লেও কলেজে শিক্ষকের শূন্য আসন পূরণ হয়নি। হয়নি শিক্ষকের নতুন পদ সৃষ্টিও। একই চিত্র জেলার বিভিন্ন সরকারী কলেজসহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় গুলোতেও। এসব প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক না থাকায় ব্যাহত হচ্ছে পাঠদান। এতে করে শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এদিকে শিক্ষক সংকটের প্রতিবাদে বিভিন্ন সময় মহাসড়ক অবরোধসহ নানা কর্মসূচি পালন করে সরকারী মহিলা কলেজের ছাত্রীরা।

শিক্ষক সংকটের কারণে ফলাফলের উপর প্রভাব পড়ার কথা উল্লেখ করে লক্ষ্মীপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ জিল্লুর রহমান চৌধুরী জানালেন, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সন্ত্রণালয়কে অবহিত করা হয়েছে। সব গুলো শূন্য পদ পূরন না হলেও সরকার কিছু সংখ্যক শিক্ষকের ব্যবস্থা করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। শিক্ষক সংকট সমাধানে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দ্রুত প্রদক্ষেপ নিবেন, এমনটাই প্রত্যাশা ছাত্র-ছাত্রী ও অভিবাবকদের।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ