,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আমি এখন সব কাজ করতে পারি : খাদিজা আক্তার

লাইক এবং শেয়ার করুন

দুই দিনের মধ্যেই বাসায় ফিরতে পারবেন সিলেটে ছাত্রলীগ নেতার হামলার শিকার কলেজছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিস, এখন তাকে সাভারের পক্ষাঘাত গ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে (সিআরপি) চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। এ সময় খাদিজা বলেন, তিনি এখন প্রায় সুস্থ। দৈনন্দিন সব কাজ করতে পারেন। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় সিআরপি ফিজিওথেরাপি বিভাগের হলরুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন সিআরপির হেড অফ মেডিকেল সার্ভিস এন্ড কনসালটেন্ট নিউরোসার্জন বিশেষজ্ঞ সাঈদ উদ্দিন হেলাল ও খাদিজা। সাঈদ হেলাল বলেন, ‘খাদিজা এখন শারীরিকভাবে অনেকটাই সুস্থ। আগামী দুই দিনের মধ্যে তিনি বাসায় ফিরতে পারবেন।’

সংবাদ সম্মেলনে খাদিজা বলেন, ‘আমি এখন প্রায় সুস্থ। দৈনন্দিন সব কাজ করতে পারি।’প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহায্য নিয়ে আবারও পড়াশুনা করার কথা জানান খাদিজা। প্রধানমন্ত্রী, চিকিৎসক, গণমাধ্যমকর্মীসহ দেশের সবাই ধন্যবাদ জানান খাদিজা। সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। গত বছরের ৩ অক্টোবর সিলেটের এমসি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়ে বের হওয়ার পর হামলার শিকার হন সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক (পাস কোর্স) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী খাদিজা। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলমের চাপাতির কোপে তার মাথার খুলি ভেদে করে মস্তিষ্কও জখম হয়।

সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর তাকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সুস্থ হওয়ার পর গত বছরের ২৮ নভেম্বর স্কয়ার হাসপাতাল থেকে খাদিজাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। পরে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে নেয়া হয় সাভারের সিআরপিতে। বাম হাত ও বাম পায়ের দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসার জন্য তাকে সিআরপিতে নেয়া হয়েছিল। সেখানে চিকিৎসা নেয়ার পর খাদিজা অনেকটাই সুস্থতার পথে বলে জানান চিকিৎসক। সংবাদ সম্মেলনে ডা. সাঈদ উদ্দিন হেলাল বলেন, ‘প্রায় তিন মাসের ফিজিওথেরাপিক চিকিৎসার পর খাদিজা এখন স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছে। তিনি দৈনন্দিন কাজকর্ম একাই করতে পারেন। তবে হেড ইনজুরি সারতে পাঁচ থেকে ছয় বছর সময় লাগতে পারে।’


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ