,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

অফিসার ইনচার্জের নেতৃত্বে সফল দেবিদ্বার পুলিশ

লাইক এবং শেয়ার করুন

মোঃ কামরুজ্জামান বাবু,দেবিদ্বারঃ   আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় বিশেষ অবদানের জন্য দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমান নভেম্বর’২০১৬ মাসে কুমিল্লা জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হয়েছেন। সোমবার পুলিশ সুপার কুমিল্লা’র সম্মেলন কক্ষে জেলা পুলিশ সুপার জনাব মোঃ শাহ আবিদ হোসেন সাফল্যজনক কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমানের হাতে সম্মাননা স্মারক ক্রেষ্ট তুলে দেন।

গত নভেম্বর মাসে জেলার ১৭টি থানা এবং ডিবি সহ মোট ১৮টি ক্রাইম ইউনিটের মধ্যে আইন শৃংখলা ও অপরাধ দমনে সেরা পারফর্মেন্স প্রদর্শন করে সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জন করে দেবিদ্বার থানা প্রথম স্থান অধিকার করে। এর পূর্ববর্তী অক্টোবর’১৬ মাসে সম্মিলিত পারফর্মেন্স তালিকায় দেবিদ্বার থানার অবস্থান ছিল ৪র্থ। এবার দাউদকান্দি ২য় ও জেলা ডিবি ৩য় স্থান অর্জন করে।

দেবিদ্বার থানার পুলিশ ও সাম্প্রতিক কিছু সাফল্যঃ (তথ্য সহযোগিতায় – দেবিদ্বার পুলিশ স্টেশন )

০২/০২/১৭ খ্রিঃ তারিখ ভোর অনুমান ০৫.১৫ ঘটিকার সময় এএসআই মোঃ মঞ্জুরুল ইসলাম দেবিদ্বার পৌর এলাকায় রাত্রীকালীন রনপাহারা ডিউটি অবস্থায় দেবিদ্বার থানাধীন পান্নানপুল বি-বাড়ীয়া সিএনজি পাম্পের সামনে রাস্তায় সন্দেহ জনক ভাবে ঘোরাফেরা করা কালে আসামী  মোঃ ফারুক হোসেন (২৫), পিতা-মৃত মহরম আলী ও মোঃ কাউছার (১৮), পিতা-আবুল হোসেন, উভয় সাং-পৈয়াপাথর উত্তরপাড়া, থানা-মুরাদনগর, জেলা-কুমিল্লাদ্বয়কে গ্রেফতার করেন। উপস্থিত লোকজনের সম্মূখে আসামীদ্বয়ের দেহ তল্লাশি করে তাহাদের হেফাজত হতে ০৬ টি চোরাই মোবাইল ফোন, ০১টি ব্লেড খুর, ০১টি ছুরি, ০১টি ষ্টীলের টর্চলাইট জব্দ করেন। আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক চুরি মামলা রয়েছে। উক্ত ঘটনা সংক্রান্তে দেবিদ্বার থানার এএসআই মঞ্জুরুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

দেবিদ্বার থানার এসআই মোঃ মাহফুজুর রহমান দেবিদ্বার উপজেলার দক্ষিণ নারায়নপুর এলাকা হইতে এক ব্যক্তিকে মাদক সেবনের অপরাধে গ্রেফতার করেন। ০১/০২/১৭ খ্রিঃ তারিখ বিকাল ১৬.০০ ঘটিকার সময় এসআই মাহফুজুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স সহ দেবিদ্বার উপজেলার দক্ষিন নারায়নপুর এলাকা থেকে অভিযান পরিচালনা করে মাদক সেবন অবস্থায় আসামী মোঃ আনোয়ার হোসেন (৩৮), পিতা-ছিদ্দিকুর রহমান, সাং-দক্ষিন নারায়নপুর, থানা-দেবিদ্বার, জেলা-কুমিল্লাকে গ্রেফতার করেন। ভ্রাম্যমান আদালতের নিকট উক্ত আসামীকে সোপর্দ করিলে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) জনাব আনোয়ার-উল-হালিম উক্ত আসামী আনোয়ার কে মাদক আইনে ০৬ (ছয়) মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

দেবিদ্বার উপজেলার জাফরগঞ্জ এলাকা থেকে ১০২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার হয়। ০১ ফেব্রুয়ারী ২০১৭ তারিখ ১৬.৫০ ঘটিকার সময় এসআই মোঃ মাহফুজুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স সহ থানা এলাকায় গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও মাদক দ্রব্য উদ্ধার অভিযান ডিউটি করাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানাধীন জাফরগঞ্জ বাজারস্থ জনতা ব্যাংকের সামনে সিএনজি ষ্ট্যান্ডের সামনে পৌঁছামাত্র পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে একজন মহিলা দৌড়ে পলায়নের চেষ্টাকালে আসামী নুর নাহার বেগম (৩২), স্বামী-তাজুল ইসলাম প্রঃ রাজু, সাং-হাতিমারা, থানা-দেবিদ্বার, জেলা-কুমিল্লা, বর্তমানে-নানীর বাড়ী, নানা-মনু মিয়া, পিতা-নুরুল ইসলাম, সাং-খীরার চর, থানা-মেঘনা, জেলা-কুমিল্লাকে আটক করেন। উপস্থিত লোকজনদের সম্মুখে নারী পুলিশের মাধ্যমে আটককৃত আসামী নুর নাহার এর দেহ তল্লাশী করে তাহার পরিহিত ছেলোয়ারের গোঁজে নীল রংয়ের প্লাষ্টিকের ব্যাগে রক্ষিত ১০২ (একশত দুই) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার পূর্বক জব্দ করে। উক্ত ঘটনা সংক্রান্তে দেবিদ্বার থানার এসআই মাহফুজুর রহমান বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করেন।

কুমিল্লা দেবিদ্বার উপজেলার বড় আলমপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলী এর ছেলে মাদক মামলায় ০৬ মাসের কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামী ইয়াকুব’কে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমান এর নেতৃত্বে এসআই মোঃ মোর্শেদ আলম সঙ্গীয় ফোর্সদের সহায়তায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করেন।
০১ ফেব্রুয়ারী ২০১৭খ্রিঃ রাত ১১.৩০ ঘটিকার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমান এর নেতৃত্বে এসআই মোঃ মোর্শেদ আলম সহ একদল পুলিশ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে দেবিদ্বার উপজেলার বড় আলমপুর গ্রাম থেকে উক্ত সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে গ্রেফতার করে। আসামী ইয়াকুব দেবিদ্বার থানার মামলা নং-১২(৫)১৪ এর সাজা পরোয়ানাভুক্ত আসামী। আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

দেবিদ্বার উপজেলার সুবিল এলাকা থেকে ০৫ জন প্রতারক গ্রেফতার হয়। ৩১ জানুয়ারী ২০১৭ তারিখ ১৭.১৫ ঘটিকার সময় এসআই সাইদুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স সহ থানা এলাকায় গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও মাদক দ্রব্য উদ্ধার অভিযান ডিউটি করাকালে সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানাধীন সুবিল গ্রামের জনৈক গোলাম মোস্তফা প্রঃ মোমেন এর বাড়ীর ২য় তলা হইতে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভুঁয়া এনজিও অফিস খুলে ঋন দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে জনসাধারনের নিকট হতে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে পালিয়ে যাওয়া একটি শক্তিশালী চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেন। তাদের কাছ থেকে নিম্নোক্ত আলামত উদ্বার হয়েছে।
১. ২টি মোটর সাইকেল । ২. বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে জামানত হিসাবে হাতিয়ে নেয়া বিভিন্ন ব্যাংকের ১৯টি স্বাক্ষরিত অলিখিত চেক। ৩.পল্লী নারী জাগরন সংস্থা নামীয় ভুঁয়া এনজিওর বিপুল সংখ্যক ভর্তী ও ঋন আবেদন ফরম, পাস বই, রেজিষ্টার, সিল, ব্যাংক জমা বই ইত্যাদি।
গ্রেপ্তারকৃত আসামী: ১.হাফিজ(৪২), পিতা-মৃত মোসলেম শেখ, ২. আবুল হোসেন(৩৩), পিতা-আক্তারুজ্জামান ৩. মোস্তাফিজ(৩২), পিতা-সিরাজ, ৪. লেবু শেখ(৩৬), পিতা- আঃ রব শেখ। সর্ব- মোকসেদপুর, গোপালগন্জ। ৫. মিন্টু ঘোষ (২৮), পিতা-সুভাষ ঘোষ সাং- চুমুরদি, ভাঙ্গা, ফরিদপুর। তন্মধ্যে হাফিজ ও লেবু শেখের বিরুদ্ধে ধামরাই, আলফাডাংগা ও ডিএমপি মিরপুর থানার একাধিক প্রতারনা মামলার রেকর্ড পাওয়া গেছে। আসামীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করে অদ্য কোর্টে পাঠানো হয়েছে।

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার রসুলপুর গ্রামের আলী আকবর মোয়জ্জেম এর ছেলে ধর্মীয় অবমাননা মামলায় ০১ বৎসরের কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামী গোলাম কিবরিয়াকে দেবিদ্বার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মোরশেদ পারভেজ তালুকদার এর নেতৃত্বে এএসআই আবু হানিফ সঙ্গীয় ফোর্স সহ অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করেন। ২৬ জানুয়ারী ২০১৭খ্রিঃ রাত ০৭.৩০ ঘটিকার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মোরশেদ পারভেজ তালুকদার এর নেতৃত্বে এএসআই আবু হানিফ সহ একদল পুলিশ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে দেবিদ্বার উপজেলার রসুলপুর গ্রাম থেকে উক্ত সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে গ্রেফতার করে। আসামী গোলাম কিবরিয়া দেবিদ্বার থানার মামলা নং-১(১১)১৩,ধারা-৪৪৮/২৯৫/৪২৭ পেনাল কোড মামলার সাজা পরোয়ানাভুক্ত আসামী। অদ্য আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।  

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ভরাট গ্রামের সামছুল হক এর ছেলে চুরির মামলায় ০৩ বৎসরের কারাদন্ড সহ ৫,০০০/- টাকার অর্থ দন্ড প্রাপ্ত আসামী কামালকে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে এএসআই আবু হানিফ, এএসআই আঃ রহিম সঙ্গীয় ফোর্সদের সহায়তায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করেন।
২৪ জানুয়ারী ২০১৭খ্রিঃ রাত ০৮.৩০ ঘটিকার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে এএসআই আবু হানিফ, এএসআই আঃ রহিম সহ একদল পুলিশ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে দেবিদ্বার উপজেলার ভরাট গ্রাম থেকে উক্ত সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে গ্রেফতার করে আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয় ।

দেবিদ্বার উপজেলার বিহারমন্ডল এলাকা থেকে ৪০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার হয়। ২৪ জানুয়ারী ২০১৭ তারিখ ২১.৩০ ঘটিকার সময় এসআই মোর্শেদ আলম সঙ্গীয় ফোর্স সহ থানা এলাকায় গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও মাদক দ্রব্য উদ্ধার অভিযান ডিউটি করাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানাধীন বিহারমন্ডল গ্রামের মালেক ব্যাপারীর বাড়ীর সামনে পৌঁছামাত্র পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে একজন ব্যক্তি দৌড়ে পলায়নের চেষ্টাকালে আসামী মোঃ মাহফুজ সরকার (২৫), পিতা-মৃত আজিজ সরকার, সাং-বাগুর (সরকার বাড়ী), থানা-দেবিদ্বার, জেলা- কুমিল্লা কে আটক করেন। উপস্থিত লোকজনদের সম্মুখে পুলিশ আসামী মাহফুজ এর দেহ তল্লাশী করে তার পরিহিত প্যান্টের ডান পকেট হতে একটি পলিথিনের টুকরোতে মোড়ানো অবস্থায় গোলাপী রংয়ের ৪০ (চল্লিশ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার পূর্বক জব্দ করে। উক্ত ঘটনা সংক্রান্তে দেবিদ্বার থানার এসআই মোর্শেদ আলম বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করেন।

দেবিদ্বার থানার নবীপুর ও দেবিদ্বার নিউ মার্কেট এলাকা হইতে কুখ্যাত চোর ও মাদক সেবন কালে ০২ মাদক সেবীকে আটক করে। ২৪ জানুয়ারী/১৭ খ্রিঃ তারিখ এস আই মোঃ মোর্শেদ আলম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নবীপুর এলাকা হইতে মাদক সেবন করা অবস্থায় হাতে নাতে আসামী ১। মোঃ মোস্তফা (৩৫), পিতা-নসু মিয়া, সাং-খাইয়ার, থানা-দেবিদ্বার, জেলা- কুমিল্লা এবং দেবিদ্বার নিউ মার্কেট হইতে চুরি করার চেষ্টাকালে আসামী ২। জিলানী (২০), পিতা-সিরাজুল ইসলাম, সাং-মাশিকাড়া, থানা-দেবিদ্বার, জেলা- কুমিল্লাদ্বয়কে আটক করেন। উল্লেখ্য যে, আসামী জিলানী ইতোপূর্বেও দেবিদ্বার থানা পুলিশের নিকট চুরির অপরাধে ধৃত হয়ে কারাদন্ড ভোগ করেছে। আসামীদ্বয়কে ভ্রাম্যমান আদালতের নিকট সোপর্দ করলে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভ‚মি) জনাব আনোয়ার-উল-হালিম আসামীদ্বয়কে ০১ বৎসরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। আসামীদ্বয়কে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে ।

দেবিদ্বার উপজেলার ভিংলাবাড়ী এলাকা থেকে ৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার হয়। ২৩ জানুয়ারী ২০১৭ তারিখ ১৭.৩০ ঘটিকার সময় এএসআই সাইফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স সহ থানা এলাকায় গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও মাদক দ্রব্য উদ্ধার অভিযান ডিউটি করাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানাধীন পান্নানপুল ষ্টেশন জামে মসজিদের সামনে পৌঁছামাত্র পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে একজন ব্যক্তি দৌড়ে পলায়নের চেষ্টাকালে আসামী তানভীর (২৪) পিতা-আবুল কাসেম, সাং-গাইটুলী, পোঃ মুরাদনগর, থানা-মুরাদনগর, জেলা-কুমিল্লাকে আটক করেন। উপস্থিত লোকজনদের সম্মুখে পুলিশ আসামীর দেহ তল্লাশী করে তার পরিহিত প্যান্টের ডান পার্শ্বের পকেট হতে একটি সাদা প্যাকেটে রক্ষিত গোলাপী রংয়ের ৩০ (ত্রিশ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার পূর্বক জব্দ করে। উক্ত ঘটনা সংক্রান্তে দেবিদ্বার থানার এএসআই সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করেন।

দেবিদ্বার থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১০ কেজি গাঁজা সহ গ্রেফতার হয় এক মাদক ব্যবসায়ী। ২১ জানুয়ারী ২০১৭ খ্রিঃ তারিখ রাত ০০:৩০ টার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানার এস আই সোহেল আহমেদ এবং সঙ্গীয় ফোর্স সহ থানা এলাকায় গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও মাদক দ্রব্য উদ্ধার অভিযান ডিউটি করাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানাধীন এগারগ্রাম থেকে কালিকাপুর রাস্তার চাঁনপুর গ্রামের জনৈক মতিন মিয়ার বাড়ীর সামনে অবস্থান করে সন্দেহভাজন ব্যাক্তি ও গাড়ী তল্লাশীকালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে একজন লোক দ্রæত দৌড়ে পলায়নের সময় পুলিশ তাকে আটক করে। আটককৃত ব্যাক্তির নাম জামাল উদ্দিন(৩৫),পিতা-শহিদুল ইসলাম,সাং-শিদলাই,থানা-ব্রাহ্মণপাড়া,জেলা-কুমিল্লা। উপস্থিত লোকজনদের সম্মুখে পুলিশ আটককৃত আসামী জামাল উদ্দিন এর দেহ তল্লাশী করে তার ডান হাতে থাকা সাদা প্লাষ্টিকের বাজারের ব্যাগের ভিতর পলিথিন প্যাকেটে রক্ষিত প্রতিটি ১ কেজি করে ১০ টি প্যাকেটে মোট ১০ কেজি গাঁজা উদ্ধার পূর্বক জব্দ করে। উক্ত ঘটনা সংক্রান্তে দেবিদ্বার থানার এস আই সোহেল আহমেদ বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেন।

সফল অভিযান সম্পর্কে দেবিদ্বার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মোরশেদ পারভেজ তালুকদার  জানান, আমাদের প্রধান ও বিশেষ অভিযানের অংশ হিসেবে রয়েছে মাদকদ্রব্য উদ্ধার, ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ এবং ডাকাত যাদের সাসপেক্টাসভাবে গ্রেপ্তার করা হয়। আমাদের সম্মিলিত চেষ্টায় এই অভিযান পরিচালিত হয় কয়েকটি টিমে ভাগ ভাগ হয়ে । আমাদের এই অভিযান অব্যহত রয়েছে, ভবিষ্যতেও থাকবে ।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ