,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

তাহিরপুরে পুলিশের হাত থেকে আসামীর পলায়ন, পরে গ্রেফতার

লাইক এবং শেয়ার করুন

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি # সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে একটি আতœহত্যার প্ররোচনা মামলার চার্যসিট ভুক্ত আটক আসামী শফিকুল ইসলাম (৩৫) পুলিশের হাত থেকে পালিয়ে যাওয়ার পর আবার আটক। সে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের দীঘিরপাড় গ্রামের মহি উদ্দিন ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নে অবস্থিত অস্থায়ী পুলিশ ফাঁড়িতে।

জানা যায়,গত বুধবার রাত সাড়ে ৭টার সময় উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের বাদাঘাট বাজারের রেন্টি গাছের সামনে শফিকুলের নিজের মসল্লার দোকান থেকে এসআই চম্পক দাম সহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য থেকে তাকে আটক করে বাদাঘাট পুলিশ ফাঁড়ি ক্যাম্পে নিয়ে যায়। এসআই চম্পক দাম ক্যাম্পে থাকা দায়িত্বরত কনষ্টবেলের কাছে রেখে ক্যাম্পের ভিতরে গেলে দায়িত্বে থাকা কনষ্টেবল কে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে শফিকুল ইসলাম দৌড়ে পালিয়ে যায়। এখবর জানতে পেরে তাহিরপুর থানার অফির্সাস ইনচার্য নন্দন কান্তি ধরের নেতৃত্বে তাৎক্ষনিক একদল পুলিশ সদস্য বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযোনে ঐ আসামীকে রাত দশটায় সময় মোল্লাপাড়া গ্রামের চাঁন মিয়ার বাড়ির পিচনের একটি পরিত্যক্ত খলা থেকে আটক করা হয়।

এব্যাপারে এসআই চম্পক দাম জানান,একটি আতœহত্যা প্ররোচনা মামলার চার্যসিট ভুক্ত আসামী শফিকুল কে আটক করে হ্যান্ডক্যাপ না পরিয়ে ক্যাম্পে নিয়ে যাই। ক্যাম্পে দায়িত্বে থাকা কনষ্টেবলের কাছে রেখে তাহিরপুর থানায় নিয়ে যাবার জন্য প্রস্তুতি নেই। এই সুযোগে কনষ্টেবল কে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে আসামী শফিকুল ইসলাম দৌড়ে পালিয়ে যায়। তাহিরপুর থানার অফির্সাস ইনচার্য নন্দন কান্তি ধর এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করার জন্য পুলিশের বিষেশ অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ