,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

ঝালকাঠির বাড়ৈগাতি হাবিব বাহীনির নির্যাতনে ভিটোমাটি ছাড়া এক প্রবাসীর অসহায় পরিবার!প্রতিবন্ধী কন্যা সহ স্ত্রী পুত্র নিরাপত্তহীনতায়

লাইক এবং শেয়ার করুন

ঝালকাঠি সংবাদদাতাঃ ঝালকাঠির বাড়ৈগাতি গ্রামের হাবিব বাহীনির অত্যাচার-নির্যাতনে অতিষ্ট হয়ে ঝালকাঠি শহরে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছেন দুবাই প্রবাসী মো. বেল্লাল হোসেন হাওলাদারের পরিবার। শহরে এসেও এ বাহীনির অত্যচার ও হুমকীর থেকে রেহাই পাচ্ছেনা এ অসহায় পরিবারটি। পরিবারের প্রধান দুবাই প্রবাসী মো. বেল্লাল হোসেন হাওলাদার এদের ভয়ে দেশে ফিরতে পারছেনা। এ বাহীনির হাত থেকে প্রতিবন্ধী কন্যা, দুই শিশু পুত্র সহ তাদের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, জেলাপ্রশাসক ও পুলিশ সুপার সহ উর্ধতন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।
     জানাগেছে, ঝালকাঠি সদরের বাসন্ডা ইউনিয়নের বাড়ৈগাতি গ্রামের মো. বেল্লাল হোসেন হাওলাদ প্রায় এক যুগ আগে স্ত্রী ফিরোজা বেগম, ৩ মেয়ে মুক্তা, শাবনুর ও প্রতিবন্ধী তামান্না, ২ ছেলে তারেক ও আরিফকে রেখে দুবাই পাড়ি দেয়। অভিভাবকহীন এ পরিবারটির অর্থ ও নারীদের প্রতি কু-দৃষ্টি পড়ে স্থানীয় হাবিব বাহীনির প্রধান হাবিব ও তার সহযোগীদের। এরপর হাবিব বাহিনীর ক্যাডার আছলাম, উজ্জল, বারেক, রুস্তুম ও মোশারেফ সহ অন্যান্য ক্যাডাররা হামলা-হুমকী, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও অত্যাচার শুরু করে। এদের অত্যাচার থেকে বাঁচতে প্রায় ৪ বছর পূর্বে ফিরোজা বেগম ঝালকাঠি শহরে ভাড়া বাসা নিলে এই সুযোগে হাবিব বাহীনি বাড়ি ঘর লুট পাট করে নিয়ে যায়।
      খবর পেয়ে ফিরোজা বেগম বাড়িতে গিয়ে বাধা দিলে তাকে ও তার ছেলে মেয়েদের কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে সন্ত্রাসী বাহীনি। এ ঘটনায় ফিরোজা বেগম বাদী হয়ে ঝালকাঠি সদর থানায় একটি মামলা দায়ের হলে পুলিশ ৫ আসামীকে অভিযুক্ত করে চার্জশীট দাখিল করে পুলিশ। পরেও থেমে নেই হাবিব বাহীনি। মামলা তুলে নিতে হুমকী দিলে ফিরোজা বেগম বাদী হয়ে আসলাম, হাবিব, উজ্জল ও মতিনকে আসামী করে ঝালকাঠি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিট্রেট আদালতে ৭ ধারায় মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনার জের ধরেই গত ২৯ মে হাবিব বাহীনির সন্ত্রাসীরা প্রবাসী বেল্লাল হোসেনের রোপিত ৩ শতাধিক রেইন্ট্রি চারা গাছ কেটে নষ্ট করে ফেলে। এ ঘটনায় সদর থানায় ফিরোজা বেগম বাদী সাধারন ডায়েরি (নং ১১৫২) দায়ের করেন।
    এ ব্যপারে প্রবাসি বেল্লাল হাওলাদার জানায়, তাকে বিভিন্ন মাধ্যমে দেশে না আসেত হুমকী দিচ্ছে বেল্লাল বাহীনি। সে দেশে আসলে তার জীবন নাশের হুমকী দিচ্ছে। দেশে আসলে মামলায় জড়িয়ে বিদেশে যাওয়া বন্ধ করে দিবে। তাদের অত্যচারের কারনে তার স্ত্রী সন্তান গ্রামের বাড়িতে যেতে পারছেনা। বাড়িতে গেলে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে হুমকী দেয় হাবিব ও তার সন্ত্রাসীরা।
     ফিরোজা বেগম জানান, হাবিব ও তার সহযোগীরা স্বামির বাড়ি ঘর থেকে তারিয়ে দিয়ে তাদের বাড়ি ঘর দখলের চেষ্টা করছে। তারা বাড়ির বাগানে মাদকের আস্তানায় পরিনত করেছে। জুয়ার আসর বসে সেখানো। গাছের ফল নিয়ে যায় তারা। বিভিন্ন গাছ কেটে নিয়ে যায় যখন তখন ইচ্ছেমত। তারা হবিব বাহীনির হাত থেকে রেহাই পেতে চায়। ছেলে মেয়ে নিয়ে নিজ গ্রামে ফিরতে চায় ফিরোজা বেগম। তিনি এ ব্যপারে প্রাধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপিসহ আইন শৃংখলা বাহিনীর হস্তোক্ষেপ কামনা করেছেন।
    এ ব্যাপারে বাড়ৈগাতি গ্রামের হাবিব হাওলাদার জানায়, তার সাথে এ পরিবারের কোন বিরোধ নেই। তাকে দিয়ে প্রবাসীর স্ত্রী এলাকার কতিপয় যুবকের বিরুদ্ধে মিথ্যা সাক্ষী দিতে বলে আমি তার প্রাস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় আমাকে হয়রানি করার জন্য এ মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে কেনো আপনার বিরুদ্ধেই মিথ্যা মামলা হলো অন্য কারো নামে কেনো হলোনা জানতে চাইলে সে কো সদুত্তর দিতে পারেনি। PROBASE PIC


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ