,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

বিভিন্ন দাবীতে গোপালগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

লাইক এবং শেয়ার করুন

এস এম সাব্বির, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ গোপালগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ বিভিন্ন দাবীতে মানববন্ধন করেছে।
রবিবার দুপুরে গোপালগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টা ব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ছাত্র-ছাত্রী হোষ্টেল, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসন ব্যবস্থা, সু-পেয় পানির ব্যবস্থা, স্থায়ী খেলার মাঠ, স্থায়ী মসজিদ এবং যাতায়াতের জন্য গাড়ীর সু-ব্যবস্থা সহ বিভিন্ন দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ করে গোপালগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।
সমাবেশে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেন, জাবেদ হোসেন, আবদুল্লাহ, মো. আশরাফুল ও শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য প্রদান করেন, প্রফেসর শাহদাৎ হোসেন, প্রফেসর শাহজালাল, প্রফেসর আব্দুস সালাম, প্রফেসর জাকির হোসেন এবং প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মহানন্দ মজুমদার।
বক্তারা বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদের হোষ্টেল না থাকায় এরা স্থায়ী বসবাসরত বিভিন্ন ব্যাক্তির বাড়ি-ঘর ভাড়া করে থাকে। এতে নানাবিধ সমস্যার শ্বিকার হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ তাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত বাসা ভাড়া নেয় স্থানিয় ব্যাক্তি বৃন্দ। এছাড়া বিভিন্ন সময় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের অপর স্থানিয় প্রভাবশালীরা খারাপ ব্যবহার এমনকি মার-ধরও করে থাকে। এতে করে চরম ভোগান্তির শ্বিকার হচ্ছে বিভিন্ন মফস্বল জেলা-উপজেলা থেকে আসা গোপালগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে অধ্যায়নরত প্রায় ১৬০০ শিক্ষার্থী।
এছাড়া স্থানিয় বকাটে কিছু যুবক ছেলে দ্বারা ঐ প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে লাঞ্ছিত হচ্ছে, এমনকি বক্তারা অভিযোগ করেন কিছুদিন আগে ধর্ষণের মত জঘণ্যতম ঘটনার শ্বিকার হন প্রতিষ্ঠনটির এক মেধাবী ছাত্রী।
এমতা অবস্থায় গোপালগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক ও অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের ধারনা অনন্তত তাদের প্রতিষ্ঠানের নিজেস্ব একটি মেয়ে হোস্টেল এবং একটি ছেলে হোস্টেল যদি নির্মান করা হয়, তবে এইসকল বিবিধ সমস্যা থেকে শিক্ষার্থীদের প্ররিত্রাণ পাওয়া সম্ভব। এছাড়া সু-পেয় পানির ব্যবস্থা, স্থায়ী খেলার মাঠ, স্থায়ী মসজিদ এবং যাতায়াতের জন্য গাড়ীর সু-ব্যবস্থা দরকার বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ