,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

সিলেট আওয়ামীলীগের বিভাগীয় প্রতিনিধি সম্মেলন আগামীকাল

লাইক এবং শেয়ার করুন

সিলেটে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিভাগীয় প্রতিনিধি সম্মেলন আগামীকাল ২২ মার্চ। দীর্ঘ ১৫ বছর পর আবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই তৃনমূল বিভাগীয় সম্মেলন। এই সুবাধে সিলেটের চারটি জেলার ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তৃনমূল নেতৃবৃন্দ আবার এক সাথে মিলিত হবেন। সমাবেশ সফল করতে ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে দলটি। সমাবেশস্থল আলিয়া মাদ্রাসা ময়দান এখন প্রায় প্রস্তুত। যে সামান্য কাজ বাকী আছে, মোটামোটি আজকের মধ্যেই তা শেষ হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সোমবার দুপুরে সিলেটের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে প্রস্তুতি কাজ দেখেগেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। মূল মঞ্চের সামিয়ানার মধ্যে বসানো হবে ৭ হাজার চেয়ার। মোটামোটি ৮ হাজার মানুষ থাকতে পারবেন সামিয়ানার ভেতর।

২০ ফুট বাই ৪০ ফুট মঞ্চের ডানপাশে থাকছে সংবাদ মাধ্যমকর্মীদের বসার জায়গা। বাঁ পাশটা গুরুত্বপূর্ণ নেতৃবৃন্দ ও যাতায়াতের জন্য ব্যবহার হবে। মঞ্চ ও সামিয়ানা প্রস্তুতির সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন পুরো মঞ্চ এবং সামিয়ানা তৈরিতে প্রায় ৮ হাজার বাঁশ ব্যবহার করা হচ্ছে।

জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী জানান, সমাবেশের প্রস্তুুতি ইতিমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফের সভাপতিত্বে সিলেট বিভাগীয় প্রতিনিধি সম্মেলনে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সিলেট বিভাগের দায়িত্বে নিয়োজিত সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক (ময়মনসিংহ বিভাগ) মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ। এছাড়া স্থানীয় এমপিরা উপস্থিত থাকবেন। ৮ থেকে ১০ হাজার ডেরিগেট উপস্থিত থাকবেন আশা করা হচ্ছে। এর মধ্যে ডেলিগেট কার্ড সব উপজেলায় পৌছে গেছে।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের মূখপাত্র এবং অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মূসা জানান, সমাবেশ সুশৃঙ্খল ও শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন করার জন্য পুলিশ প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। মঞ্চের পাশে, সমাবেশ স্থলে ও নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে। এছাড়া সমাবেশ স্থলে ও আশপাশ এলাকার উচু বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে পুলিশের নজরদারী থাকবে। এছাড়া সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরাও দায়িত্ব পালন করবেন। যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ও নাশকতামূলক ঘটনা এড়াতে পুলিশ প্রস্তুত থাকবে।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ