,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরিফের পাশে নেই সিলেট বিএনপির শীর্ষ নেতারা

লাইক এবং শেয়ার করুন

দীর্ঘদিন পর কারামুক্ত হওয়া সিলেট সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর পাশে দেখা যায়নি তাঁর দলের শীর্ষ নেতাদের। বুধবার সন্ধ্যায় ২ বছর ৪ দিন কারাভোগের পর সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান মহানগর বিএনপির সাবেক এই সভাপতি ।

এসময় কারাফটকে বিএনপির মধ্যম সারির কয়েকজন নেতা উপস্থিত থাকলেও জেলা মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদের কাউকেই দেখা যায়নি। কেবল বিএনপি নয়, ছাত্রদল যুবদলসহ অঙ্গসংগঠনের শীর্ষ নেতাদেরও দেখা যায় নি আরিফের পাশে।

কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে শাহজালাল (র.) মাজার জিয়ারত করে নগরীর কুমারপাড়ার নিজ বাসায় যান আরিফ। বাড়িতেও আরিফুল হকের পাশে দেখা যায়নি বিএনপি শীর্ষ নেতাদের।

বিকেলে আরিফের কারামুক্তির সময় কারাফটকে দেখাগেছে বিএনপি নেতা ও কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম, সৈয়দ তৌফিকুল হাদি, এবিএম জিল্লুর রহমান উজ্জলকে। বিএনপি নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন আজমল বক্ত সাদেক, মইনুদ্দিন সোহেল, নাজিম উদ্দিন লস্করসহ আরোও কয়েকজন।

এছাড়া আরিফের অনুসারি হিসেবে পরিচিত বিএনপি ছাত্রদলের শতাধিক কর্মী উপস্থিত ছিলেন কারাফটকে। মুক্তির সময় কারাফটকে ও পরে আরিফুল হকের বাসায় সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদের উপস্থিত না থাকা নিয়ে অনেকেই সমালোচনা করতে দেখা যায়।

২০১৩ সালের ১৫ জুন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হওয়া আরিফুল হক ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর থেকে কারাবন্দি অবস্থায় ছিলেন। ওই বছরের ১০ ডিসেম্বর সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলার সম্পূরক চার্জশিটে আরিফুল হক চৌধুরীকে অভিযুক্ত করা হয়।

গেলো বছরের শেষের দিকে আরিফ সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়া হত্যাকান্ডের ঘটনায় দায়েরকৃত হত্যা ও বিস্ফোরক মামলায় জামিন লাভ করেন। এরপর তাকে গ্রেফতার দেখানো হয় সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জনসভায় বোমা হামলার মামলায়। এ ঘটনায় দায়েরকৃত হত্যা ও বিস্ফোরক মামলায়ও উচ্চ আদালত থেকে জামিন লাভ করেন আরিফ। তারপরও তার মুক্তি নিয়ে দেখা দেয় অনিশ্চয়তা। সরকারের পক্ষ থেকে তার জামিন আদেশের বিরুদ্ধে করা হয় আপিল। আপিল বিভাগও তার জামিন বহাল রাখে।

বুধবার সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালতে শুনানী শেষে আদালত তার পি ডব্লিউ প্রত্যাহার করেন। এতে তার কারামুক্তির সকল বাধা দূর হয়। বুধবার সন্ধ্যায় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তিনি মুক্ত হন।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ