AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

শেষ হলো সিলেট জেলার ৩ দিনব্যাপী ইজতেমা

লাইক এবং শেয়ার করুন

তাবলিগ জামাতের উদ্যোগে বিশ্ব ইজতেমার অংশ হিসেবে শুরু হওয়া তিন দিনব্যাপী সিলেট জেলা ইজতেমা শনিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে । বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়ে আজ দুপুর ১১ টা ৩০ মিনিটে আখেরি মোনাজাত  শুরু হয়ে ১২ টায়  শেষ হয়।

মোনাজাতে অংশ নিতে ভোর থেকেই ঠান্ডা উপেক্ষা করে লাখো মুসল্লি হেঁটে, বিভিন্ন যানবাহনে চড়ে ইজতেমাস্থলে সমবেত হন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে পুরো এলাকা কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। ইজতেমা স্থলে পৌঁছাতে না পেরে অনেক মুসল্লি বাইপাস সড়ক, আশেপাশের রাস্তা ও গ্রামে অবস্থান নেন। এছাড়া বিপুলসংখ্যক নারী মুসল্লিও মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমার আশপাশের বিভিন্ন স্থানে সকাল থেকেই অবস্থান নেন।

টঙ্গির তুরাগ নদীর তীরে বিশ্ব ইজতেমায় মুসল্লীদের উপস্থিতি বেশি হওয়ায় এবার ৩২ জেলার অংশগ্রহণে তুরাগ তীরে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া বাকি ৩২ জেলায় জেলাভিত্তিক ইজতেমা পালন করবে। এরই ধারাবাহিকতায় সিলেটেও তিন দিনব্যাপী ইজতেমা শুরু হয়।

গত বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজ পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে দক্ষিণ সুরমার লতিপুর-খিদিরপুর এলাকার মাঠে অনুষ্ঠিত এই ইজতেমায় নিজেদের আত্মশুদ্ধি এবং আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের লক্ষ্যে দেশি-বিদেশি কয়েক লক্ষ মুসল্লির সমাগম ঘটে। শুধু তাই নয়; ইজতেমার ময়দানে জুমার নামাজ আদায় করতেও জনতার স্রোত মিশেছিল সেখানে।

ইজতেমায় তাওহীদ, রিসালাত, দাওয়াত, সালাত, জিকিরসহ ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ে বয়ান হয়। তিনদিন ধরে মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে অবস্থান করে এসব বয়ান শোনেন। ইজতেমা শেষে মুসল্লিরা বিভিন্ন গন্তব্যে যাবেন। সেখানে তাঁরা ইসলামের দাওয়াত দেবেন।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) মোহাম্মদ জেদান আল মুসা জানান, আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তাব্যবস্থা ছিল। চার স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তাব্যবস্থার পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন রাখা হয়।

মোনাজাতের পর দেশি-বিদেশি মুসল্লিরা যতক্ষণ পর্যন্ত মাঠ না ছাড়বেন, ততক্ষণ পর্যন্ত ইজতেমা ময়দানে নিরাপত্তার জন্য পুলিশ অবস্থান করবে বলেও জানান তিনি।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ