,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

শাবি ‘ছাত্রলীগ’ নেতা ছিলো বদরুল, এখন ছাত্রলীগের কেউ নয় !

লাইক এবং শেয়ার করুন

সিলেট মুরারিচাঁদ কলেজ (এমসি) ক্যাম্পাসে কলেজ ছাত্রী খাদিজাকে নৃশংসভাবে কোপানোর ঘটনায় হামলাকারী শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের নাম গণমাধ্যমে আসার পর শাবিপ্রবি ছাত্রলীগ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায় বদরুলের সাথে তাদের কোন সম্পর্ক নেই, বদরুল চাকরীজীবী হওয়ায় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তার সদস্যপদ চলে গেছে। কাজেই কারো ব্যক্তিগত অপরাধের দায় সংগঠন নেবে না।

atok-300x216

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বদরুল চাকরিরত অবস্থাতেই বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পান বদরুল আলম। শিক্ষকতায় যোগদান করলেও ছাত্রলীগের মিটিং-মিছিলে নিয়মিত যোগদান করতেন। সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার আলহাজ আয়াজুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ে তিন বছর থেকেই শিক্ষকতা করে আসছেন শাবিপ্রবির অর্থনীতি বিভাগের এই ছাত্র। আর নতুন কমিটি অনুমোদন পায় প্রায় পাঁচ মাস আগে।

20160930_155148

শাবিপ্রবি ছাত্রলীগ তাদের পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, “গঠনতন্ত্র অনুযায়ী নিয়মিত ছাত্ররাই সংগঠনের সদস্য হিসেবে সক্রিয় সদস্য হিসেবে অংশগ্রহণ করতে পারে, কোনো চাকুরীজীবী নয়। তবে গত মে মাসের ৮ তারিখে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন সাক্ষরিত বিবৃতিতে শাবিপ্রবির অনুমোদিত কমিটিতেই বদরুলের নাম দেখা যায়।

এ ব্যাপারে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান আহমেদ বলেন, “বদরুল তথ্য গোপন করে ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পায়। সে চাকরি করত এটা গতকালও আমরা জানতাম না। সোমবার রাতে আমাদের সিদ্ধান্ত ছিল তাকে আজীবন বহিষ্কার করা হবে কিন্তু সে চাকরি করে জানার পর বহিষ্কারের আর দরকার পড়েনি, কারণ গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কেউ চাকুরী করলে এমনিতেই সে আর পদে বহাল থাকে না।”

তিনি বলেন, “বদরুল একবার শিবিরের হামলায় আহত হওয়ায় তার প্রতি মানবিক হয়ে কমিটিতে স্থান দেয়া হয় কিন্তু সে যে এরকম অমানবিক কাজে যুক্ত থাকবে তা ভাবাই যায়নি। আমরা বদরুলের পাশবিক কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়ে তার সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি”।

img_20160802_195534মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে আহত কলেজছাত্রী খাদিজাকে দেখতে গিয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বলেন, অভিযুক্ত বদরুল আলম এখন ছাত্রলীগের কেউ নয়। কারো ব্যক্তিগত দায় ছাত্রলীগ নেবে না।

14454680_1223130501061647_1135707276_n

তিনি আরো বলেন, অভিযুক্ত বদরুল শাবি ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক ছিলো। কিন্তু সে ছাতকের আলহাজ আয়েজুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে চাকরি করতো। ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, কেউ চাকরি অথবা বিয়ে করলে দলে থাকতে পারবে না। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তার পদ এমনিতেই বাতিল হয়ে যাবে। সুতরাং সে এখন ছাত্রলীগের কেউ নয়।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ