,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

লাইক এবং শেয়ার করুন

আমি নিন্মস্বাক্ষরকারী জামাল উদ্দিন, পিতা- জনাব আব্দুল খালিক, ঠিকানা: সৌরভ ২/ডি, দর্জিপাড়া, রায়নগর, সিলেট। বিগত ৩০শে আগষ্ট সিলেট এর ডাকে প্রকাশিত সংবাদ ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী জামাল আটক এর প্রতিবাদ প্রসঙ্গে। আমার বক্তব্য পুলিশ আনুমানিক রাত তিনটার দিকে আমার বাসায় যান এবং আমাকে তাদের সাথে আসতে বলেন। আমি কারণ জানতে চাইলে আমাকে বলেন কারন জানিনা এসি সাহেবের নির্দেশ।

আমার পুলিশের আচরনে সন্দেহ হলে আমি বাসার ছাদ থেকে নিচে নামার উদ্দেশ্যে নামতে গেলে নিচে পড়ে আমার পা ভেঙ্গে যায়। বর্তমানে আমি ওসমানী মেডিকেলে ৯নং ওয়ার্ড ৩৫নং কেবিনে চিকিৎসাধীন। রিপোর্টে আর লিখা হয় আমি এস আর ক্যাপিটালের ইনচার্জ ছিলাম। আমি এস আর ক্যাপিটালের কোন ইনচার্জ নই ও ছিলাম না। আমার এস আর ক্যাপিটালের এর একটি ব্রাঞ্চ অফিস ছিল, যাহা আমি মাসুদ খান মাসুদ এর ৪১ লক্ষ টাকা ঋণ সহ গ্রহণ করি।

এস আর ক্যাপিটাল ও আমার মধ্যে ব্রাঞ্চ নিয়ে দ্বন্ধ ছিল এবং পাল্টা পাল্টি মামলা ছিল। যাহা পরে আপোষে নিস্পত্তি হয়। কথিত বেলায়েত হোসেন আমার ব্রাঞ্চ একজন গ্রাহক ছিলেন। আমার হাউজের পাওনা ৭,১২,০০০ টাকা বেলায়েত হোসেনের কাছে, যাহা বেলায়েত হোসেন নেটিং করে লস করেছেন।

আমি উনাকে বারবার টাকার জন্য চাপ দিলে উনি দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন এবং আমার সাবেক কর্মচারী অসুখের মাধ্যমে হারানো চেকের একটি কপি সংগ্রহ করে তাতে ৭,১২,০০০/- এমাউন্ট লিখে আমার টাকা না দেওয়ার উদ্দশ্যে প্রতারণা মুলক ভাবে মামলা করেন। উলে­খ্য যে চেক দ্বারা তিনি মামলা করেছেন তাহার বরাবরে এস আর ক্যাপিটালের সিইও শুভেটু কান্ত একটি জিডি করেন। পরিশেষে আমার মুল বক্তব্য বেলায়েত হোসেন আমার পাওনা টাকা না দেওয়ার উদ্দেশ্যে প্রতারনার আশ্রয় নিয়েছেন।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ