,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আগামীকাল বৃহস্পতিবার দায়িত্বগ্রহণ করছেন মেয়র আলহাজ্ব জি, কে গউছ

লাইক এবং শেয়ার করুন

শেখ মোহাম্মদ তানভীর হোসেন: হবিগঞ্জ  জেলা প্রতিনিধি#  অবেশেষে দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর হবিগঞ্জ পৌরসভার দায়িত্ব গ্রহন করছেন টানা ৩ বারের নির্বাচিত মেয়র আলহাজ্ব জি কে গউছ। আগামীকাল (২৩ মার্চ) বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় তিনি দায়িত্ব গ্রহন করবেন। পৌরসভার সচিব নুরে আলম সিদ্দিকী এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পৌরসভার সচিব নুরে আলম সিদ্দিকী বলেন- মেয়র জি কে গউছের সাময়িক বরখাস্তের আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্ট ডিভিশনে দায়েরকৃত রীট পিটিশনের আদেশ প্রতিপালনে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব আব্দুর রউফ মিয়া হবিগঞ্জ পৌরসভাকে চিঠি দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে মেয়র জি কে গউছকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হবে। ইতিমধ্যেই পৌরসভার পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহন করা হয়েছে। এদিকে মেয়র জি কে গউছ পৌরসভার দায়িত্ব গ্রহন করছেন এমন সংবাদে উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে পৌরবাসী। ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর পৌরবাসী রায় দিয়েছিল ব্যালটে। প্রতিক্ষায় ছিলেন কখন দায়িত্ব নিবেন তাদের ভোটে নির্বাচিত মেয়র জি কে গউছ। কিন্তু আইনী জটিলতায় আটকে ছিল দায়িত্ব গ্রহনের আনুষ্ঠানিকতা। যদিও ২০১৬ সালের ২৭ জানুয়ারী প্যারোলে মুক্তি দিয়ে শপথ গ্রহন করানো হয়েছিল। সেই থেকে অপেক্ষার পালা। অবশেষে ৪৪৮ দিন পর পৌরবাসীর মধ্যে ফিরে এসেছে সেই মান্দ্রেক্ষণ। দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হবে মেয়র জি কে গউছকে। এই সংবাদে স্বস্তি ফিরে এসেছে হবিগঞ্জ পৌরবাসীর মধ্যে। অপরদিকে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরাও আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছেন। সব মিলিয়ে স্বরণীয় করে রাখতে চায় কারাগার থেকে নির্বাচিত মেয়র জি কে গউছের দায়িত্ব গ্রহনের দিনটিকে। ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বার কারাগার থেকে ৩য় বারের মত মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর দায়িত্ব বুঝিয়ে না দিয়েই ২০১৬ সালের ২০ মার্চ স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ এক আদেশে মেয়র জি কে গউছকে সাময়িক বরখাস্ত করে। ২০১৭ সালের ৪ জানুয়ারী ৭শ ৩৯ দিন কারাভোগের পর জামিনে মুক্তি পান মেয়র জি কে গউছ। ২২ জানুয়ারী স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের সাময়িক আদেশের বিরুদ্ধে তিনি হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। ২৩ জানুয়ারী মেয়র জি কে গউছকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের দেওয়া আদেশ স্থগিত করেন হাইকোর্ট। বিচারপতি নাইমা হায়দার ও খান মোঃ সাইফুর রহমানের বেঞ্চ এই স্থগিতের আদেশ দেন। এই আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্টপক্ষ হাইকোর্ট বিভাগের চেম্বার আদালতে আপিল করেন। ৩০ জানুয়ারী আদালত শোনানী শেষে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ বহাল রাখেন। এই আদেশের ফলে মেয়র জি কে গউছকে হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়রের দায়িত্ব বুঝিয়ে দিতে আইনগত আর কোন বাধাঁ ছিল না। কিন্তু রহস্যজনক কারণে মেয়র জি কে গউছকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের চিঠি আসতে প্রায় পৌনে ২ মাস সময় অতিবাহিত হয়।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ