,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

মৌলভীবাজারে এফ সি ফাউন্ডেশনের ছিন্নমূল শিশুদের নিয়ে ঈদ আনন্দ উদযাপন

লাইক এবং শেয়ার করুন

ঈদের দিন ভাল খাবার খেয়ে ও নতুন টাকা পেয়ে আনন্দ উপভোগ করল মৌলভীবাজার সহ দেশের প্রায় ২১৭৮ সুবিধাবঞ্চিত শিশু। ঈদ এর দিন এফ সি ফাউন্ডেশন সুবিদাবঞ্চিত শিশুদের জন্য সারা দেশে আয়োজন করে এক ব্যতিক্রম ধর্মী ঈদ উৎসব।মৌলভীবাজার জেলা ইউনিট এর ঈদ আনন্দ অনুষ্টান এ মৌলভীবাজার জেলার অতিরিক্ত সিনিয়র পুলিশ সুপার মো: রওশনুজ্জামান সিদ্দিকীর পক্ষ থেকে উপহার দেওয়া হয়েছে নতুন টাকা। অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রওশনুজ্জামান সিদ্দিকী।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্তিত ছিলেন মৌলভীবাজার নিউজ এর সম্পাদক সাংবাদিক মাহবুর রহমান রাহেল,
উপস্তিত ছিলেন এফসি ফাউন্ডেশন ঢাকা ইউনিট আহব্বায়ক সুমন আহমদ, মৌলভীবাজার জেলা ইউনিট এর যুগ্ন আহব্বায়ক কানিজ ফাতেমা পিংকি, কামার চাক ইউনিট আহব্বায়ক মুজাহিদুল ইসলাম আলমাছ, কমলগঞ্জ ইউনিট আহব্বায়ক পলাশ দেবনাথ, কামালপুর ইউনিট আহব্বায়ক ফয়েজ, তারুণ্যের সদস্য রাব্বি, সাখাওত সহ আরো অনেকেই।

গত সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার চাঁদনীঘাট ইউনিয়নের গুজাড়াই এলাকায় ঈদের খুশিকে সমাজের দুস্থ ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কাছে পৌঁছে দিতে এগিয়ে এসেছে স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন এফ সি ফাউন্ডেশন ও তারুণ্যে ।

উক্ত ঈদ আনন্দ অনুষ্টানে সভাপতিত্ব করেন এফ সি ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্টাতা চেয়ারম্যান পথ শিশু খ্যাত শাহ মাছুম বিল্লাহ ফারুকী, সহ সভাপতিত্ব করেন মোঃমাহমুদুর রহমান মান্না।

নতুন টাকা পেয়ে সুবিধাবঞ্চিত শিশু জরিনা আক্তার বলেন, কোনো দিন আমি ঈদে নতুন টাকা দেখিনি এবার প্রথম আমি ঈদে নতুন টাকা পেয়েছি। এই টাকা দিয়ে আজ সারাদিন ঘুরবো।

রায়শ্রী এলাকা থেকে আসা সুমন মিয়া বলেন, আমি টাকা পেয়ে খুব খুশি আজ বিকেলে টাকা নিয়ে মনুব্যারেজ যাব সেখানে দিয়ে ফুসকা খাব।

এফ সি ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্টাতা চেয়ারম্যান শাহ মাছুম বিল্লাহ বলেন, `মূলত সমাজের সুবিধাবঞ্চিত শ্রেণির উন্নতি ও কল্যাণের জন্যে আমরা চেষ্টা করছি আর সে কাজের অংশ হিসেবেই ঈদে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝেও ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করে দিতে আমাদের এই উদ্যোগ।আমরা আশা করি সমাজের প্রতিটি ভিত্তবান মানুষ যদি এগিয়ে আসে তাহলে সমাজের পরিবর্তন সম্ভব।

তিনি আরো বলেন আজ আমরা ২৯ টি স্তানে এই অনুষ্টান করেছি আগামী বছর প্রতিটি ইউনিয়ন এ এর বাস্তবায়ন করতে চাই,এতে সকলের সহযোগীতা প্রয়োজনে।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ