,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

রাবিতে জোহা দিবসকে জাতীয় শিক্ষক দিবস করার দাবিতে মানববন্ধন

লাইক এবং শেয়ার করুন

জি.এ.মিল্টন, রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক শহীদ সৈয়দ ড. শামসুজ্জোহার মৃত্যুবার্ষিকী ১৮ ফেব্রুয়ারিকে জাতীয় শিক্ষক দিবস করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে  বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে তারা এ কর্মসূচী পালন করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, জোহা স্যারের চেতনা থেকে আমাদের শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে এবং ছাত্র শিক্ষক সম্পর্ক উন্নয়নে আরো আন্তরিক হতে হবে। আজ আমরা যে দাবি নিয়ে দাঁড়িয়েছি তা শুধু এই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি নয়, এটা বাংলাদেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষকদের দাবি। সেদিন জোহা স্যার যদি ছাত্রদের কথা চিন্তা না করে ঘরে বসে থাকতেন তাহলে শত শত শিক্ষার্থীকে প্রাণ দিতে হত। তিনি তাঁর আতœত্যাগের মাধ্যমে স্বাধীনতার ভিত্তি রচনা করে গেছেন। আমরা চাই স্বাধীনতার পক্ষের সরকার জোহা স্যারের এই আত্মদানকে স্বীকৃতি দিবে।

বক্তারা আরো বলেন, আমরা আন্দোলন করতে ভুলে যাচ্ছি। ৬৯’র গণঅভ্যূত্থানে ছাত্রদের বাঁচাতে গিয়ে যেই চেতনার জায়গা থেকে ড. প্রাণ দিয়েছিলেন সেই চেতনা থেকে আমরা দিনদিন দূরে সরে যাচ্ছি। তিনি তার জীবন দিয়ে ছাত্র-শিক্ষকদের মধ্যে যে ঐক্য রচনা করে গেছেন তা হারিয়ে যাচ্ছে। ১৮ ফেব্রুয়ারিকে জাতীয় শিক্ষক দিবস হিসেবে ঘোষণা করলে দেশের মানুষ তাঁর অবদানের কথা জানতে পারবে।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাহ্ আজম, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক সরকার ফারহানা আক্তার, রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া, সহÑসভাপতি কাজী আমিনুল হক লিংকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর ইসলাম, ফয়েজ আহমেদ, ছাত্রলীগ কর্মী তাওশিক তাজ, ইমরান খান নাহিদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। এছাড়া বিভিন্ন বিভাগের প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। কর্মসূচী শেষে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করার কথা জানান তারা। প্রসঙ্গত, ১৯৬৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে নিহত হন অধ্যাপক সৈয়দ ড. শামসুজ্জোহা। এর পর থেকে রাজশাহী বিশ্বুিবদ্যালয়ে ১৮ ফেব্রুয়ারিকে ‘শিক্ষক দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়। ড. জোহাকে মুক্তিযুদ্ধের প্রথম শহীদ বুদ্ধিজীবী হিসেবে বলা হয়। দীর্ঘদিন ধরে দিবসটিকে ‘জাতীয় শিক্ষক দিবস’ ঘোষণার দাবি জানিয়ে আসছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ