,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

রাবিতে তাজিন ম্যাহনাজ মুরশিদ ‘বাঙ্গালির আত্মপরিচয় ধর্ম দ্বারা প্রভাবিত’

লাইক এবং শেয়ার করুন

জি.এ.মিল্টন, রাবি প্রতিনিধি: বাঙালি পরিচয় একই সাথে ধর্মনিরপেক্ষ ও ধর্মদ্বারা গভীরভাবে প্রভাবিত। তাদের পরিচয়ের বিভিন্ন অনুষঙ্গ- ভাষা, সংস্কৃতি, জাতিগত বৈশিষ্ট্য, ধর্ম ইত্যাদি সহজেই সহাবস্থান করে যতক্ষন না রাজনৈতিক অভিজাতেরা নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গীকে সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থনের আশায় সুকৌশলে পরিবর্তন ঘটায়। যখন প্রতিযোগিতায় থাকা অভিজাতেরা এইসব অনুষঙ্গকে একে অন্যের বিপরীতে দাঁড় করিয়ে দেন তখন সংঘাতের উত্থান হয়।

বুধবার সকাল ১০টায় রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে বিশ^বিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ স্টাডিজ (আইবিএস) আয়োজিত শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ‘বাঙালির আত্মপরিচয়ে ধর্মনিরপেক্ষতার অন্তর্ভুক্তি : ভাষা আন্দোলন প্রসঙ্গ’ শীর্ষক বক্তৃতায় বেলজিয়ামের ডেভেলপমেন্ট রিসার্চ কোঅপারেশন-এর পরিচালক ড. তাজিন ম্যাহনাজ মুরশিদ এসব কথা বলেন। তাজিন মুরশিদ বলেন, ১৯৪০ এবং ৫০ এর দশকে, বিশেষত স্বাধীন পাকিস্তান রাষ্ট্রের উদ্ভবের পর, পূর্ব বাংলায় বাঙালির নিজস্ব পরিচয় গঠনের ইতিহাস খোঁজা হয়েছে। সামাজিক এবং রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি অথবা পরিচয় নির্মাণে বাংলাদেশের মুসলিম বুদ্ধিজীবী সম্প্রদায় নীতিগতভাবে সমজাতীয় ছিলেন না।

তিনি আরও বলেন, ১৯৪৭ সালে ভারত বিভাগের পর বাঙালি মুসলমান ধর্মীয় ও ধর্মনিরপেক্ষ পরিচয় নিয়ে উভয় সংকটে পড়ে। যদি সে ধর্মকে গ্রহণ করে তবে সে ইসলাম কিরূপ সেটি নির্ধারনে মুসলিম লীগের অধিকার মেনে নিল; কিন্তু যদি সে ধর্মনিরপেক্ষতাকে বেছে নেয় তবে সে বিদ্রোহী হিসেবে চিহ্নিত হয়। এই ধর্মীয় ধর্মনিরপেক্ষ উৎকণ্ঠা রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অংগনকে উত্তপ্ত করে তোলে এবং বাঙালি মুসলমানের পরিচয়ের সংকটকে তীব্র করে তোলে। আমাদের ভাষা আন্দোলনের নানামুখী গুরুত্ব আছে। এটি বুদ্ধিজীবী সমাজের আত্মউপলব্ধির বৈপরিত্য নিয়ে তাদের অবস্থানকে চিহ্নিত করে।

আইবিএসের পরিচালক প্রফেসর স্বরোচিষের সভাপতিত্বে এবং আইবিএস-এর পিএইচডি ফেলো জাহিদুল ইসলাম ও এমফিল ফেলো নিবেদিতা রায় এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিন ও বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক প্রফেসর হাসান আজিজুল হক ও বিশিষ্ট চিন্তক-গবেষক-লেখক প্রফেসর সনৎকুমার সাহা।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ