,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

বৈশাখে শড়ির সঙ্গে রেশমি চুড়ি

লাইক এবং শেয়ার করুন

রুনঝুন আওয়াজ। কখনো কাঁচের সাথে কাঁচের ঘর্ষণ আবার কখনো মাটির আদলে তৈরি রাজকীয় সাজ। যাকে ছাড়া সাজের সম্পূর্ণতা অপূর্ণ থেকে যায়। তা হচ্ছে চুড়ি। উৎসবে হোক কিংবা আনন্দে, যেকোন সাজের সাথে খুব সহজে মানিয়ে যায় চুড়ি। গ্রামে হোক কিংবা শহরে, চুড়ির সাজে নিজেকে সাজাতে পছন্দ করেন সবাই। এই চুড়ি হতে পারে মাটির, কাঁসার, প্লাস্টিকের।

চুড়ির ক্ষেত্রে নারীর মনে সবার আগে জায়গা করে নেয় কাঁচের চুড়ি। যা রেশমি চুড়ি নামে পরিচিত। উৎসবের মাত্রাকে কয়েকগুন বাড়িয়ে সেউ এই রেশমি চুড়ি। আর এই চুড়ি পড়ার একটি সুন্দর সময় আর উৎসব হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। এক দিকে চারিদিকের আমের মুকুলের ঘ্রাণ আর অন্যদিকে নতুন বছরকে ঘরে আনার প্রস্তুতি। তাই তো নিজেকে সাজাতেই ব্যস্ত থাকেন সবাই। পড়নের শাড়ি যাই হোক তার সাথে যদি চুড়ি যুক্ত না হয় তাহলে এই বৈশাখের রঙিন সাজ যেন সাদামাটা হয়ে যায়।

একটি সময় ছিলো যখন লাল পাড়ে আর সাদা জমিনের শাড়ি না হলে বৈশাখের সাজ সম্পূর্ণই হতো না। সময়ের সাথে সাথে সাজের এই ধারণায় পরিবর্তন এসেছে। লালের সাথে এখন সবুজ, কমলা, নীলের মতো অনেক উজ্জ্বল রঙের খেলা চোখে পরে। তবে সময়ের সাথে সাথে যা বদলায়নি একেবারেই তা হচ্ছে চুড়ি। রেশমি চুড়ির আবদার আগেও ছিল এখনো ঠিক তেমনি আছে।

কেউ কেউ এই রেশমি চুড়ি একহাত ভরেই পরে থাকেন। তবে দুইহাত ভরে পরলে তা আরো বেশি ভালো লাগে। আবার কেউ কেউ পরে থাকেন কিছুটা আলাদা ভাবে। একটি লাল তার ঠিক পরেই একটি সাদা। আবার কখনো দুটি লাল তার মাঝে একটি সাদা চুড়ি এবং ঠিক এর পরেই আবার দুটি লালা চুড়ি এভাবেও পরে থাকেন অনেকে। চুড়ির পড়ার এই ভিন্নতা সম্পূর্ণই নির্ভর করে আপনার রুচির উপর আর আপনার শাড়ির রঙের আর ধরনের উপর।

নানা রঙের রেশমি চুড়ি বৈশাখের এই আনন্দের মাত্রাকে যেন দ্বিগুণ করে দেয়। রেশমি চুড়ি যে কেবল শাড়ির সাথেই মানানসই তা কিন্তু নয়। সালোয়ার কামিজসহ যেকোনো পোশাকের সাথেই খুব সহজে মানিয়ে যায় এই রেশমি চুড়ি। এই চুড়ির একই বড় বৈশিষ্ট হলো এর শব্দ আর এর রঙ। আলোর মাঝে এর রঙের খেলা যেকোনো নারীর মন চুরি করতে যথেষ্ট।

কোথায় পাবেন, কেমন দাম :
যমুনা ফিউচার পার্ক, চাঁদনীচক , নিউমার্কেট, ইস্টার্ন প্লাজা, বসুন্ধরা সিটি, কর্ণফুলী গার্ডেন সিটি, মৌচাকের বিপণিবিতানগুলোতে রেশমি চুড়ি কিনতে পাবেন। প্রতি ডজন চুড়ির দাম ২৫ থেকে ৪০ টাকার মধ্য হয়ে থাকে। সাধারণ রেশমি চুড়ি ২৫ থেকে ৩০ টাকার মধ্যে পাবেন। আর বহুরঙা চুড়ির দাম ৪০ থেকে ৫০ টাকার মতো পড়বে। আবার কিছু কিছু চুড়ি ২০০ থেকে ৪০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ